• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘পিটিয়ে খুন করে এস, আমরা দেখে নেব’, ছাত্রদের ‘শিক্ষা’ দিলেন উপাচার্য

Purbanchal University VC
বিতর্কিত মন্তব্য পূর্বাঞ্চল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের। ছবি: টুইটারের সৌজন্যে

তিনি কোনও রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি নন। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। শান্তি, সৌহার্দ্য, সম্প্রীতির শিক্ষা দেওয়াই তাঁর কাজ। সেই উপাচার্যই কিনা ছাত্রদের এমন উপদেশ দিলেন, যা হার মানাতে পারে অনেক রাজনীতিককে। বললেন, ‘কোথাও গন্ডগোল হলে খুন করে চলে এস, আমরা দেখে নেব।’ পূর্বাঞ্চল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য রাজারাম যাদবের মুখে এ হেন প্রবচন শুনে বিস্মিত শিক্ষা মহল।

উত্তরপ্রদেশের গাজিপুরে পূর্বাঞ্চল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসেই শনিবার একটি সেমিনারে যোগ দিয়েছিলেন উপাচার্য রাজারাম যাদব। সেখানেই হিন্দিতে তিনি যা বলেন, তার বাংলা তর্জমা করলে দাঁড়ায়, ‘‘তোমরা যদি পূর্বাঞ্চল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র হও, তাহলে কাঁদতে কাঁদতে কখনও আমার কাছে আসবে না। কোথাও কারও সঙ্গে গন্ডগোলে জড়িয়ে পড়লে পিটিয়ে দিয়ে চলে আসবে। যদি সম্ভব হয়, পিটিয়ে খুন করে চলে এস, পরে আমরা দেখে নেব।’’

যদিও এই বিতর্কিত ও উস্কানিমূলক মন্তব্যের পরও দর্শক মহলে প্রশংসাই কুড়িয়েছেন উপাচার্য। তাঁর এই মন্তব্যের পর ‘বাহ! বাহ! জাতীয় শব্দও শোনা গিয়েছে দর্শকাসন থেকে। ভেসে এসেছে হাততালির আওয়াজও।

আরও পড়ুন: নীল আকাশের নীচে মৃণাল সেন আর নেই (১৯২৩-২০১৮)

রাজারাম যাদবের এই মন্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই নিন্দার ঝড় ওঠে। একজন উপাচার্য হয়ে পড়ুয়াদের কী ভাবে এই ‘শিক্ষা’ দিতে পারেন তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।সমালোচনায় সরব হয়েছে কংগ্রেসও। দলের নেতাদের কটাক্ষ, ‘‘বর্তমানে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে এরকম শিক্ষাই দেওয়া হচ্ছে। বিজেপি সমর্থকদের ধন্যবাদ। আপনাদের সন্তানরা ভাল লোকজনের কাছেই শিক্ষা নিচ্ছে।

আরও পড়ুন: বরফে পিছল রাস্তা, খাদের কিনারায় গাড়ি, মনে হচ্ছিল আর বেঁচে ফিরব না

কিছুদিন আগে প্রায় একই রকম মন্তব্য করেছিলেন এইচডি কুমারস্বামী। নিজের দলের এক কর্মী খুনের পর পুলিশকে বলেন, অভিযুক্তদের গুলি করে মারুন। তা নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। এবার উপাচার্যের মুখে এ রকম ‘শিক্ষা’র বাণী শুনে আঁতকে উঠেছেন শিক্ষাবিদরা।

(ভারতের রাজনীতি, ভারতের অর্থনীতি- সব গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন