‘হচ্ছেটা কী? আর কত দিন চলবে এই সব জাতীয়তাবিরোধী কার্যকলাপ? কত দিন চলবে এই রাজনীতি?’ কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে রবিবার তাঁর টুইটে এই ভাবেই তোপ দাগলেন প্রিয়ঙ্কা গাঁধী। তাঁর অভিযোগ, সংবিধানের ৩৭০ ধারা রদের পর থেকেই কাশ্মীরীদের গণতান্ত্রিক অধিকার খর্ব করা হচ্ছে। সেটা কী ভাবে হচ্ছে, তা বোঝাতে টুইটে একটি ভিডিয়োও দিয়েছেন তিনি।

সেই ভিডিয়োয় দেখা যাচ্ছে, কাশ্মীরে এখন কী কী ঘটছে, শ্রীনগর থেকে দিল্লিগামী বিমানে এক কাশ্মীরী মহিলা সেই সব বলছেন রাহুল গাঁধীকে। কাশ্মীর পরিস্থিতি দেখতে শনিবারই রাহুলের নেতৃত্বে ৯ বিরোধী দলের ১১ জন নেতা দিল্লি থেকে গিয়েছিলেন শ্রীনগরে। কিন্তু শ্রীনগর বিমানবন্দরে নামার পর তাঁদের আর শহরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। শ্রীনগর বিমানবন্দর থেকেই দিল্লি রওনা করিয়ে দেওয়া হয় রাহুল-সহ বিরোধী নেতৃত্বকে।

এ দিন তাঁর টুইটে ভিডিয়োটি দিয়ে প্রিয়ঙ্কা প্রশ্ন তুলেছেন, ‘‘এই সব আর কত দিন চলবে? ইনি (ওই মহিলা) সেই লক্ষ লক্ষ মানুষের এক জন, যাঁদের মুখ বন্ধ করে রাখা হয়েছে। ‘জাতীয়তাবাদ’-এর নামে।’’

এর একটি টুইটে প্রিয়ঙ্কা লিখেছেন, ‘‘কাশ্মীরে এখন যে ভাবে গণতান্ত্রিক অধিকারগুলিকে খর্ব করা হচ্ছে, তার চেয়ে বড় রাজনীতি আর বড় জাতীয়তাবিরোধী কার্যকলাপ আর কিছু হতে পারে না।’’

আরও পড়ুন- প্রয়াত জেটলি, ইতি পড়ল অটল ঘরানায়​

আরও পড়ুন- রাজীব-স্মরণে মোদীকেই বিঁধলেন রাহুল-প্রিয়ঙ্কারা​