দেহরক্ষী নন, তাঁকে খুন করতে চান মোদী-ই, ফের বিস্ফোরক কেজরীবাল
দেহরক্ষী মোতায়েন থাকা সত্ত্বেও একাধিকবার আক্রান্ত হয়েছেন কেজরীবাল। তা নিয়ে দিন কয়েক আগে পঞ্জাবের একটি টিভি চ্যানেলে ক্ষোভ উগরে দেন তিনি।
arvind kejriwal

অরবিন্দ কেজরীবাল। —ফাইল চিত্র।

ফের বিস্ফোরক দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবাল। দেহরক্ষী নন, বরং প্রধানমন্ত্রী স্বয়ং তাঁকে খুন করতে চান বলে এ বার অভিযোগ তুললেন তিনি।

দেহরক্ষী মোতায়েন থাকা সত্ত্বেও একাধিকবার আক্রান্ত হয়েছেন কেজরীবাল। তা নিয়ে দিন কয়েক আগে পঞ্জাবের একটি টিভি চ্যানেলে ক্ষোভ উগরে দেন তিনি।  প্রাণ সংশয় রয়েছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন। সেখানে তিনি বলেন, “ইন্দিরা গাঁধীর মতো দেহরক্ষীকে দিয়ে খুন করা হতে পারে আমাকে।” কে বা কারা তাঁকে খুন করাতে পারে, তা জানতে চাইলে বলেন,  “বিজেপি আমাকে মেরে ফেলতে পারে। এক দিন ওরাই আমাকে খুন করবে।” 

কেজরীবালের এমন মন্তব্য ঘিরে হইচই শুরু হলে টুইটারে তাঁকে কটাক্ষ করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বিজয় গয়াল। তিনি লেখেন, ‘দেহরক্ষীকে সন্দেহ করে অযথা দিল্লি পুলিশকে বদনাম করছেন কেজরীবালজি। নিজের পছন্দের দেহরক্ষী বেছে নিতেই পারেন উনি। এ ব্যাপারে কোনও সাহায্য লাগলে বলবেন। আপনার দীর্ঘজীবন কামনা করি।’

আরও পড়ুন: আজ রাতেই হবে ইভিএম কারচুপি, কমিশনকে চিঠি আপ নেতার, স্ট্রং রুমে পাহারা বিরোধীদের​

আরও পড়ুন: সুপ্রিম কোর্টে বড় ধাক্কা, পরিস্থিতি কঠিন হচ্ছে রাজীবের কাছে​

যার পর সোমবার টুইটারেই কটাক্ষের জবাব দেন কেজরীবাল। বিজয় গোয়েলের উদ্দেশে লেখেন, ‘বিজয়জি, দেহরক্ষী নন, আমাকে খুন করাতে চান মোদীজি।’

নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে কেজরীবালের এমন মন্তব্য নিয়ে এখনও পর্যন্ত বিজেপির তরফে কোনও বিবৃতি দেওয়া হয়নি। তবে কেজরীবালের নিরাপত্তা তুলে নেওয়ার দাবিতে ইতিমধ্যেই দিল্লি পুলিশকে চিঠি দিয়েছে রাজ্য বিজেপি। কেজরীবালের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়ার দাবি তুলতেও পুলিশকে পরামর্শ দিয়েছে তারা।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত