হিন্দুদের চার পবিত্র ধামের মধ্যে অন্যতম কেদারনাথ। কিন্তু অদূর ভবিষ্যতে এই কেদারনাথেই মানুষ যাবেন অন্য কারণে। অন্ধকার পর্যটন (ডার্ক টুরিজম) গন্তব্য হিসেবে উঠে আসতে চলেছে কেদারনাথ। যেভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেে ৯/১১ হামলার গ্রাউন্ড জিরো বা ফ্রান্স, ইতালি, চেক রিপাবলিক ও ইউক্রেনে জঙ্গি হামলার নিদর্শন দেখতে যান মানুষ, সেভাবেই কেদারনাথে তুলে ধরা হবে ২০১৩ সালের প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের চিহ্নগুলিকে।

২০১৩ সালে উত্তরাখণ্ডের কেদারনাথে মেঘ ভাঙা বৃষ্টি ও তার ফলে হিমালয়ে ভয়াবহ বন্যায় বহু মানুষের প্রাণ যায়। সম্প্রতি উত্তরাখণ্ডের পর্যটন দফতর ঘোষণা করেছে কেদারনাথে ‘স্মৃতি বন’ তৈরি করা হবে। ওই বিপর্যয়ে যাঁরা মারা গিয়েছেন তাঁদের স্মৃতিতে এই বন। সেখানে পর্যটকদের সামনে তুলে ধরা হবে সেই ভয়াবহ বিপর্যয় সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য।তুলে ধরা হবে, কী ভাবে বহু ইমারত ধ্বংস হয়ে গেলেও কেদারনাথ মন্দিরের বিশেষ কোনও ক্ষতি হয়নি।

ভারতে নিযুক্ত মরিশাসের হাই কমিশনার জগদীশ গোবর্ধন সম্প্রতি চার ধাম ভ্রমণ করেন। সেই সময় উত্তরাখণ্ড ও মরিশাসের মধ্যে পর্যটন নিয়ে মউ সই হয়েছে। সেই প্রাথমিক চুক্তি মেনে মরিশাস রাজ্যের পর্যটনকে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে বলে জানিয়েছেন উত্তরাখণ্ডের পর্যটনমন্ত্রী।

আরও পড়ুন : ৬৫ হাজার টাকার বার্গার! দেখুন কী দিয়ে তৈরি

আরও পড়ুন : রসুন ছাড়ানোর অভিনব পদ্ধতি, ভিডিয়ো দেখা হল ২কোটি বারের বেশি

চুক্তিতে বলা হয়েছে, পর্যটনের অফ সিজনে মরিশাসের পর্যটকদের উত্তরাখণ্ডে ৫০ শতাংশ ও সিজনে ৩০ শতাংশ ছাড় দেওয়া হবে। একই ভাবে উত্তরাখণ্ড থেকে মরিশাসে যাওয়া পর্যটকরা বিশেষ ছাড় পাবেন। শুধু তাই নয় উত্তরখণ্ড থেকে লন্ডন, নিউইয়র্ক পর্যন্ত সরাসরি বিমান চালানোর পরিকল্পনা করছে রাজ্য সরকার। ফলে আরও বেশি বিদেশি পর্যটক মিলবে বলে আশা উত্তরাখণ্ড সরকারের।