চলতি বছরের ১ জুন পর্যন্ত রেলে শূন্যপদের সংখ্যা ২ লক্ষ ৯৮ হাজার ৫৭৪। এর মধ্যে ২লক্ষ ৯৪ হাজার ৪২০ পদে নিয়োগের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানালেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গয়াল। এক প্রশ্নের উত্তরে বুধবার লোকসভায় একথা জানান তিনি।

লোকসভায় পীযূষ লিখিত একটি প্রশ্নের উত্তরে জানান, গত এক দশকে রেল প্রায় ৪ লক্ষ ৬১ হাজার শূন্য পদে নিয়োগ করেছে। শূন্যপদ পূরণ একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া। ১৯৯১ সালে, রেলে ১৬ লক্ষ ৫৪ হাজার ৯৮৫ জন কর্মী ছিলেন। ২০১৯ সালে সেই সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২ লক্ষ ৪৮ হাজার ১০১ জনে। তবে এ জন্য রেলের পরিষেবায় কোনও প্রভাব পড়ছে না বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী।

রেলের নিয়োগ হয় রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ডস (আরআরবিএস) ও রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট সেলেস (আরআরসিএস)-এর মাধ্যমে। রেলমন্ত্রী লোকসভায় জানিয়েছেন, এ, বি, সি ও ডি শ্রেণিতে মোট এই ২ লক্ষ ৯৮ হাজার ৫৭৪টি শূন্য পদ রয়েছে। এর মধ্যে ২ লক্ষ ৯৪ হাজার ৪২০ পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া চলছে।

আরও পড়ুন : বলিদান দিতে হবে, বলছে দিল্লি মেট্রো!

আরও পড়ুন : শরীর ঢেকে বিমানে উঠুন, মহিলা যাত্রীকে বললেন কর্মী!

রেল ২০১৮-১৯ সালেই এই ২ লক্ষ ৯৪ হাজার ৪২০ পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করেছে। যার মধ্যে ১ লক্ষ ৫১ হাজার ৮৪৩ পদে নিয়োগের জন্য পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। এবং ২০১৯-২০ সালে ১ লক্ষ ৪২ হাজা ৫৭৭টি পদের জন্য পরীক্ষা নেওয়া হবে। যার জন্য ২০১৯ সালেই বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছে। যেখানে আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া শ্রেণির জন্যও সংরক্ষণের কথা বলা হয়েছে।

রেলমন্ত্রী পীযূষ গয়াল বলেন, পরিষেবার মান সব সময় কর্মী সংখ্যার ওপর নির্ভর করে না। প্রযুক্তি ও স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থার ব্যবহারেও উন্নত পরিষেবা দেওয়া সম্ভব।