মোটর ভেহিক্যাল অ্যাক্ট (অ্যামেন্ডড), ২০১৯ চালু হওয়ার পর থেকেই সারা দেশ থেকে বিশাল বিশাল অঙ্কের জরিমানার খবর আসছে। বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন মহলের প্রতিক্রিয়াও বিভিন্ন। আর রাস্তায় বিশাল অঙ্কের জরিমানার হাত থেকে বাঁচতে গুজরাতের এক যুবক যা করেছেন তা দেখে হেসে লুটোপুটি নেটদুনিয়া। পাশাপাশি বুদ্ধিমত্তার জন্য ওই যুবকের প্রশংসাও করছেন অনেকে।

গুজরাতের বডোদরার ওই যুবকের নাম রাম শাহ। তিনি একটি বিমা সংস্থায় এজেন্টের কাজ করেন। সে জন্য দিনের বেশির ভাগ সময় তাঁকে শহরের এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে যাতায়াত করতে হয় বাইকে। আর রাস্তার বিভিন্ন জায়গায় ট্রাফিক পুলিশ দেখতে চায় ড্রাইভিং লাইসেন্স-সহ একাধিক কাগজপত্র। তা দেখাতে না পারলে জরিমানা তো রয়েছেই। সে জন্য রাম নিজের হেলমেটেই সাঁটিয়ে নিয়েছেন ড্রাইভিং লাইসেন্স, বিমার কাগজ, পিইউসি সার্টিফিকেটের মতো একাধিক প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।

এ বিষয়ে এক সংবাদমাধ্যমকে রাম বলেছেন, ‘‘এই পদ্ধতির জন্য রাস্তাঘাটে আমাকে অযথা হেনস্থার সম্মুখীন হতে হবে না।’’ জরিমানা থেকে বাঁচতেই যে তিনি এই কাজ করেছেন তাও জানিয়েছেন রাম। 

ড্রাইভিং সংক্রান্ত নথি লাগিয়ে নিয়েছেন হেলমেটেই। ছবি টুইটার থেকে সংগৃহীত। 

আরও পড়ুন: এক বছরের মেয়ে গাড়ি থেকে গড়িয়ে পড়ল রাস্তায়, বাবা-মার হুঁশ হল প্রায় ৬ কিমি পর!

আরও পড়ুন: ৮৬,৫০০ টাকা জরিমানা! ৭০ হাজার দিয়ে লরি ফিরে পেলেন চালক