• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এক লিটার দুধ ৮১ জন পড়ুয়াকে! ভিডিয়ো ঘিরে আলোড়ন সোশ্যাল মিডিয়ায়

Mill
স্কুলের মিড ডে মিলে দুধ দেওয়া হচ্ছে। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া।

মির্জাপুরের পর সোনভদ্র, মিড ডে মিল নিয়ে ফের খবরে উঠে এল উত্তরপ্রদেশ। গত অগস্টে মির্জাপুরের এক স্কুলের পড়ুয়াদের মিড ডে মিলে নুন দিয়ে রুটি পরিবেশন করার ছবি সামনে আসার পর হইচই শুরু হয়। এবার সোনভদ্রের একটি স্কুলে এক লিটার দুধ, জলে মিশিয়ে ৮১ জন পড়ুয়াকে খেতে দেওয়ার অভিযোগ উঠল। এমনই একটি  ভিডিয়োই সামনে এসেছে।

ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, একটি অ্যালুমিনিয়ামের পাত্রে এক বালতি জল দিয়ে দিতে একটি এক লিটারের একটি দুধের প্যাকেট কেটে ঢেলে দিচ্ছেন এক মহিলা। ‘দুধ মেশানো সেই জল’ অর্ধেক গ্লাস ভর্তি করে পড়ুয়াদের মধ্যে ভাগ করে দিচ্ছেন তিনি।

এটি উত্তরপ্রদেশে সোনভদ্র জেলার ছবি। উত্তর প্রদেশের পিছিয়ে পড়া এলাকাগুলির মধ্যে সোনভদ্র একটি। সমাজকর্মীদের দাবি, গরিব পরিবারের ছেলে মেয়েরা দিনে একবেলা অন্তত পুষ্টিকর খাবারের আশায় স্কুলে যায়। কিন্তু সেখানেও এই অবস্থা।

আরও পড়ুন: প্রশিক্ষণ শিবিরে শিক্ষিকার নাগিন ড্যান্স, 'বিন' বাজাচ্ছেন শিক্ষক!

সোনভদ্রের এই ভিডিয়োটি স্থানীয় গ্রামপঞ্চায়েত সদস্যের তোলা বলে জানা গিয়েছে। মাস দুয়েক আগেকার ভিডিয়োটি সম্প্রতি সামনে এসেছে। এক সাংবাদিক মিড ডে মিল নিয়ে দুর্নীতির খবর করেন। তার বিরুদ্ধে পুলিশ মিথ্যা খবর করার অভিযোগ আনে। তার পরই এই ভিডিয়োটি সামনে চলে আসে।

আরও পড়ুন: সমুদ্রের বুকে এই ছোট ছোট সাদা ফুটকিগুলি কী জানেন? ভিডিয়ো দেখলে মুগ্ধ হয়ে যাবেন

মিড মিলের ওই মহিলা কর্মী, ফুলবন্তী জানিয়েছেন, তাঁকে এক প্যাকেট দুধই দেওয়া হয়েছিল। সেই দুধই তিনি সব পড়ুয়াদের মধ্যে ভাগ করে দিয়েছেন।

দেখুন সেই ভিডিয়ো:

আবার ওই স্কুলের এক শিক্ষক জিতেন্দ্র কুমার দাবি করেন, আরও দুধের প্যাকেট ছিল, ওই মহিলা কর্মী সেটি জানতেন না। তাই তিনি ভুল করে মাত্র এক প্যাকেটই বিলি করেছেন। ব্লক এডুকেশন অফিসার মুকেশ কুমারের দাবি, প্রথমে হয়তো কিছু ভুল হয়েছিল, কিন্তু ওই দিন পরে আরও দুধ বিলি করা হয়।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন