বিয়ের আগের দিন এক ব্যক্তির মোবাইলে এসেছিল বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে তোলা তাঁর হবু স্ত্রীর কিছু ছবি ও ভিডিয়ো। তার পরেই বিয়ে ভেঙে দিলেন ওই যুবক। বিয়ে ভাঙার কারণে কনেপক্ষ অভিযোগ দায়ের করে থানায়। কিন্তু তদন্তে নেমে পুলিশ দেখে, যেমনটা মনে করা হচ্ছিল বিষয়টা তেমন নয়। পরিকল্পনা করেই হবু বরের মোবাইলে নিজের বয়ফ্রেন্ডকে দিয়ে ওই ছবি ভিডিয়ো পাঠিয়েছেনখোদ কনে।

চেন্নাইয়ের আয়ানভরমে পাত্র স্বামীনাথন (নাম পরিবর্তিত)-এর বিয়ে ঠিক হয় রাশি (নাম পরিবর্তিত)-র সঙ্গে। সেই মতো চলছিল সব প্রস্তুতি। কিন্তু বিয়ের আগের দিন হঠাৎ স্বামীনাথনের মোবাইলে আসে কিছু ভিডিয়ো ও ছবি। যেগুলিতে রাশির সঙ্গে অপরিচিত এক পুরুষকে দেখা যাচ্ছিল। সেই ছবি দেখে সঙ্গে সঙ্গে বিয়ে ভেঙে দেন স্বামীনাথান।

বিয়ে ভেঙে যাওয়ায় হতাশ হয়ে পড়ে কনেপক্ষ। তারা এমজিআর নগর থানায় অভিযোগ দায়ের করে। যিনি ওই ছবি-ভিডিয়ো হবু বরকে পাঠিয়েছিলেন, সেই অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তির পাশাপাশি বিয়ে ভেঙে দেওয়ার জন্য স্বামীনাথন ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধেও অভিযোগ করা হয়।

আরও পড়ুন: সমুদ্রে ভেসে আসছে কোটি কোটি টাকার কোকেন, সৈকত বন্ধ করে দিল পুলিশ

অভিযোগ পেয়েই তদন্তে নামে পুলিশ। প্রথমেই স্বামীনাথনের মোবাইলে যে নম্বর থেকে ছবি, ভিডিয়োগুলি এসেছিল সেটি খুঁজে বের করা হয়। সেনাপক্কমের এক যুবকের খোঁজ মেলে। তিনিই ছবি, ভিডিয়ো পাঠিয়েছিলেন। উদ্ধার হয় মোবাইলটিও। মোবাইল থেকে কিছু মেসেজ, কথোপকথন ডিলিট করা হয়েছিল আগেই। তারপরেও মোবাইলের তথ্য খুঁটিয়ে পরীক্ষা করা ও ওই যুবককে জেরা চলে।

আরও পড়ুন: দেশীয় প্রযুক্তিতে সূতির পরিবেশ বান্ধব স্যানিটরি ন্যাপকিন বানালেন তামিলনাড়ুর মেয়ে

পুলিশের জেরার মুখে যুবক সব স্বীকার করে নেন। জানান রাশিই তাঁকে এই সব ভিডিয়ো, ছবি স্বামীনাথনকে পাঠাতে বলেছিলেন। এমনকি স্বামীনাথনের মোবাইল নম্বরও রাশি দিয়েছিলেন।  রাশি এই তাঁকেই ভালবাসে বলে জানিয়েছেন। স্বামীনাথনের সঙ্গে বিয়েতে মত ছিল না রাশির। কিন্তু পরিবারের মতের বিপক্ষে যাওয়ার সাহস ছিল না তাঁর। তাই তার বয়ফ্রেন্ডের সাহায্যে বিয়ে ভাঙার পরিকল্পনা করেন ওই তরুণী। সেই মতো এগোন দু’জনে, ভেঙে যায় স্বামীনাথন ও রাশির বিয়ে।

পুলিশ পরে থানায় সব পক্ষকে ডাকে। গোটা বিষয় তাঁদের সামনে তুলে ধরা হয়। কোনও পক্ষই থানায় আর অভিযোগ জানায়নি। রাশি ও তাঁর বয়ফ্রেন্ডকে সতর্ক করে ছেড়ে দেওয়া হয়।