ধর্ষণের চেষ্টা করায় নিজের বাবাকে কুড়ুল দিয়ে কুপিয়ে খুন করলেন এক তরুণী। উত্তরাখণ্ডের উত্তরকাশী জেলার বরকোট এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ওই তরুণীকে গ্রেফতার করেছে।

গত সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় মানুষ। তাঁরা জানান, অভিযুক্ত ওই তরুণীর বিয়ে হয়ে গিয়েছে। মেলা দেখতে বাপের বাড়ি গিয়েছিলেন তিনি। ওই দিন রাতে পরিবারের সকলেই মেলায় গিয়েছিলেন। বাকিরা রাত পর্যন্ত সেখানে থাকলেও, তাড়াতাড়ি বাড়ি ফিরে আসেন ওই তরুণী। বাড়িতে কেউ না থাকায়, ঘুমিয়ে পড়েছিলেন তিনি। সেই সময়ই ঘুমন্ত মেয়ের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে ৫১ বছরের ওই ব্যক্তি।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, বাবাকে বাধা দেওয়ার সবরকম চেষ্টাই করেন ওই তরুণী। কিন্তু গায়ের জোরে পেরে উঠছিলেন না তিনি। তখনই ঘরের এক কোণে রাখা কুড়ুলের উপর নজর পড়ে তাঁর। হাত বাড়িয়ে কোনওরকমে সেটি টেনে আনেন তিনি। আর তা দিয়েই বাবাকে কোপাতে শুরু করেন। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ওই ব্যক্তির।

আরও পড়ুন: এক দেশ, এক নির্বাচন: কী করতে চাইছে মোদী সরকার?​

আরও পড়ুন: রাম আর আল্লাকে মিলিয়ে দিয়ে সংসদে নতুন ইনিংসের শুরুতেই সেঞ্চুরি অধীরের​

তার কিছু ক্ষণ পর পরিবারের বাকি সদস্যরা বাড়ি ফিরে আসেন। সেখানে রক্তাক্ত অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে পড়ে থাকতে দেখেন তাঁরা। জিজ্ঞাসাবাদ করতে তাঁদের সব কথা খুলে বলেন অভিযুক্ত তরুণী। খবর যায় পুলিশেও। মঙ্গলবার সকালে ওই তরুণীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

উত্তরাখণ্ডের পুলিশ ওই তরুণীকে গ্রেফতার করে বলে জানা গিয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে শুরু হয়েছে তদন্তও। এই খুনের পিছনে অন্য কোনও কারণ রয়েছে কি না, তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বরকোট থানার অফিসার ডিকে কোহালি।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।