ডিজিটাল দুনিয়ায় কোনও খবরের সত্যতা যাচাই করা বড় দায়। যে কোনও মুহূর্তে একটি ভুল খবর ভাইরাল হয়ে যেতে পারে। বিভ্রান্ত করতে পারে অনেককে। গ্রাহকরা সব সময় খবরের সত্যতা বিচার করেই তারপর খবর শেয়ার করবেন, তা আশা করা যায় না। ভাইরাল হয়ে যাওয়া খবর সম্পর্কে অনেকেই ভুল মন্তব্য করে থাকেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তাই টুইটার নিয়ে এল এক নয়া ফিচার যা কোনও ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সুনাম ক্ষুণ্ণ হওয়া থেকে রক্ষা করবে।

ফেসবুক, টুইটার এবং ইনস্টাগ্রামের মতো সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলি খুব সহজেই ট্রোল, ফেক নিউজ, টিপ্পনি এবং নেতিবাচক সমালোচনার শিকার হয়। অনেকেই অনেক তথ্য না জেনে কোনও বিষয়ের উপর মন্তব্য করে থাকেন। যা আপাত দৃষ্টিতে ঠিক দেখায় না, এবং সমাজের পক্ষেও খারাপ। ভুল বা মিথ্যে মন্তব্য করায় কোনও ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে অন্যের মধ্যে ভুল ধারণা তৈরি হতে পারে।

 

অনেকেই জানেন না, ফেসবুকে কোনও বিষয়ের উপর মন্তব্য করলে সেটি  চাইলেই ওই ব্যক্তি অর্থাৎ যার উপর মন্তব্য করা হচ্ছে তিনি ডিলিট বা গোপন করতে পারেন। কিন্তু মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে এত দিন পর্যন্ত এ রকম কোনও ব্যবস্থা ছিল না।কারও নির্দিষ্ট কোনও মন্তব্য ডিলিট করা গেলেও ফলোয়ারদের কথোপকথন গোপন করা যেত না।

আরও পড়ুন : অ্যাপের আড়ালে নজরদারি, প্লে স্টোর থেকে সরল সাতটি অ্যাপ

 

টুইটার তাই এ বার নিয়ে এল এই ধরনের এক নতুন ফিচার। যার মাধ্যমে চাইলেই আপনি বিশেষ কোনও মন্তব্য বা ফলোয়ারদের কথোপকথন গোপন করতে পারবেন। তাঁর জন্য একটি 'হাইড রিপ্লাইস' অপশনটি সিলেক্ট করতে হবে।

 

টুইটারের তরফে জানানো হয়েছে, আপাতত এই ফিচার কানাডাতে চালু করা হয়েছে। ওখানকার টুইটার ইউজাররা এই বিশেষ সুবিধা পাবেন। খুব জলদি এই ফিচার বিশ্বব্যাপী করা হবে। 'হাইড রিপ্লাইস' অপশনটি কোনও ভাবে ডিলিট করা বোঝায় না।কোনও ফলোয়ার চাইলেই নির্দিষ্ট কোনও মন্তব্য পুনরায় দেখতে পারেন সেটিংস-এ গিয়ে।

সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে সুস্থ স্বাভাবিক কথোপকথন করার জন্যই এই নতুন ফিচারটিকে আনা হয়েছে। কিন্তু কবে থকে ভারত তথা সারা বিশ্বে এই ফিচার আনা হবে তা টুইটার জানায়নি।

আরও পড়ুন : হোয়াটস্অ্যাপে আসছে এই নতুন পাঁচটি ফিচার, দেখে নেওয়া যাক