Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Winter Drinks: কাওয়া থেকে শিরা, দেশের নানা প্রান্তে তৈরি হয় রকমারি শীতকালীন পানীয়

এই দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ তৈরি করেছেন সুস্বাদু একাধিক পানীয়, যা শীতকালে বিশেষ আরামদায়ক। আয়ুর্বেদ মতে এ সব পানীয়ের গুরুত্ব অসীম।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৩ জানুয়ারি ২০২২ ১৯:৪০
Save
Something isn't right! Please refresh.
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Popup Close

আমরা সকলেই শীতকালে শরীরকে উষ্ণ রাখার জন্য বার বার চা-কফি খেয়ে থাকি। অথচ এই দেশেরই বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ তৈরি করেছেন সুস্বাদু কিছু পানীয়, যা শীতকালে হতে পারে বিশেষ আরামদায়ক। তা ছাড়া, শরীর ঠিক রাখতে নিয়মিত ওষুধ খাওয়ার বদলে যদি এই রকম পুষ্টিগুণে ভরপুর পানীয়কে সঙ্গী করা যায়, তা হলে অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা অনেকটাই কমবে বলে বিশেষজ্ঞদের ধারণা।

কাওয়া

এই বিশেষ কাশ্মীরি পানীয় হল সবুজ চা পাতা, জাফরান, দারচিনি, এলাচ, কাজু, খেজুর বা পাইন বাদামের মতো শুকনো ফলের সঙ্গে লবঙ্গের সুগন্ধযুক্ত মিশ্রণ। বাদাম এবং মশলা দেওয়ার ফলে স্বাদ এবং পুষ্টিগুণে এটি একটি বিখ্যাত শীতকালীন পানীয় হয়ে উঠেছে। শীতকালে এটি শরীর উষ্ণ রাখতে সাহায্য করার পাশাপাশি অনাক্রম্যতা বৃদ্ধিতেও বিশেষ সহায়ক।

Advertisement

হলুদ দুধ

এই পানীয়টির আলাদা পরিচিতির প্রয়োজন নেই। গরম দুধের মধ্যে হলুদ যা অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্যে পরিপূর্ণ, তা শরীরের ব্যথা নিরাময়ে, অনাক্রম্যতা বৃদ্ধি এবং বিপাক উন্নত করতে সহায়তা করে। এর সঙ্গে গোলমরিচের সংযোজন গলা ব্যথা, সর্দি-কাশি, জ্বর নিরাময়ে উপকারী। এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ অ্যান্টি-ভাইরাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

গুড়, গোলমরিচ এবং হলুদ যোগ করে শীতের সময়ে শিরা খেতেও বেশ ভাল লাগে

গুড়, গোলমরিচ এবং হলুদ যোগ করে শীতের সময়ে শিরা খেতেও বেশ ভাল লাগে


শিরা

শিরা একটি আনন্দদায়ক পানীয়। মূলত উত্তর ভারতে এর প্রচলন বেশি। শীতের মরসুমে প্রস্তুত করা হয় কারণ এটি গলা ব্যথা, সর্দি-কাশি এবং জ্বর নিরাময় করে। গুড়, গোলমরিচ এবং হলুদ যোগ করে শীতের সময়ে শিরা খেতেও বেশ ভাল লাগে। তা ছাড়া, এই আবহাওয়ায় শরীরকে প্রয়োজনীয় উষ্ণতা দিতে সাহায্য করে এটি। শিরা হল মূলত ঘি, বেসন, দুধ, হলুদ, গুড় এবং গোলমরিচের একটি সুস্বাদু মিশ্রণ।

রসম

এই দক্ষিণ ভারতীয় স্যুপটির খ্যাতি আজ সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়েছে। তেঁতুল এবং টমেটো দিয়ে তৈরি রসম ভাতের সঙ্গেও খাওয়া হয়। এটি গলার ব্যথা দূর করতে বিশেষ সহায়ক। শীতে নিয়মিত খেলে অনেক ব্যাধি থেকে দূরে থাকা সম্ভব। এখন বিভিন্ন নাম করা দক্ষিণ ভারতীয় রেস্তঁরায় মিলবে রসম।

বাজরা রব

এই ঐতিহ্যবাহী পানীয়টি রাজস্থানে প্রচণ্ড ঠান্ডায় নিয়মিত খাওয়া হয়। এই অঞ্চলে এটি বেশ জনপ্রিয়ও বটে। এটি বাজরার আটা, ঘি, গুড়, আদা এবং তরমুজের বীজ ব্যবহার করে তৈরি করা হয়। এই পানীয়টি পুষ্টির সঙ্গে আপনার অনাক্রম্যতা উন্নত করতে সাহায্য করবে। এখন কলকাতার কিছু রেস্তঁরাতেও এই পানীয় আপনি খোঁজ করলে পাবেন।



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement