• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পয়েন্ট নষ্ট করেই চলছে ইস্টবেঙ্গল, মিনার্ভার বিরুদ্ধে ড্র করে মাঠ ছাড়লেন ক্রোমারা

Kromah
মিনার্ভার রক্ষণের পরীক্ষা নিচ্ছেন ক্রোমা।

Advertisement

ইস্টবেঙ্গল ১   মিনার্ভা

(ক্রোমা) (ছোটে) 

আবার পয়েন্ট নষ্ট করল ইস্টবেঙ্গল। বৃহস্পতিবার কল্যাণীতে এগিয়ে গিয়েও গোল ধরে রাখতে পারলেন না মারিয়ো রিভেরার ছেলেরা। ভাগ্য ভাল বলতে হবে লাল-হলুদ-এর। ম্যাচটা হারতেও পারতেন কাশিম আইদারা-হাইমে কোলাডোরা। মিনার্ভার একের পর এক আক্রমণ এসে থেমে গেল মিরশাদের হাতে। 

খেলার ৯ মিনিটে আনসুমানা ক্রোমা এগিয়ে দিয়েছিলেন ইস্টবেঙ্গলকে। প্রায় তিরিশ গজ দূর থেকে ডান পায়ের শটে ক্রোমা মিনার্ভার জাল কাঁপান।

এ রকম গোল করার জন্যই তো লাইবেরিয়ান স্ট্রাইকারকে দলে নেওয়া হয়েছে। ম্যাচে একাধিক বার ক্রোমা একাই বল নিয়ে মিনার্ভার রক্ষণে কাঁপুনি ধরিয়েছিলেন। কিন্তু কখনও ফাইনাল পাস নিজে ভুল দিলেন আবার কখনও পাশে পেলেন না সতীর্থকে। দ্বিতীয়ার্ধে তো ক্রোমা একা লড়ে গেলেন মিনার্ভার ডিফেন্ডারদের বিরুদ্ধে। দ্বিতীয়ার্ধে গোল করার সোনার সুযোগও পেয়ে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু গোললাইন থেকে তাঁর শট বাঁচান মিনার্ভার ডিফেন্ডাররা।

আরও পড়ুন: টেস্টে ওপেনিং নিয়ে পৃথ্বীর সঙ্গে কোনও লড়াই নেই, জানিয়ে দিলেন শুভমন

ইস্টবেঙ্গল অবশ্য গোল ধরে রাখতে পারেনি। ৪০ মিনিটে মিনার্ভার ছোটে সমতা ফেরান। বারাবোসার তোলা বল থেকে গোল করেন তিনি। ঠিক মতো মার্কিংয়ে রাখা হয়নি তাঁকে। লাল-হলুদের রক্ষণে বার বার ফাঁকফোকর ধরা পড়ছিল। বেশ ভুলও করছিল লাল-হলুদের রক্ষণ ভাগ। মিনার্ভার আক্রমণ ভাগকে ফাঁকা জায়গা দিয়ে ফেলছিলেন ইস্টবেঙ্গলের ডিফেন্ডাররা। বার দুয়েক সঞ্জু প্রধান ইস্টবেঙ্গলের গোল লক্ষ্য করে শট নিয়েছিলেন প্রথমার্ধে।

সে যাত্রায় মিরশাদ বাঁচান দলকে। এক বার অবশ্য নিজেই ডোবাচ্ছিলেন। বেশি ক্ষণ পায়ে বল রেখে মিনার্ভার ছোটের পায়েই বল তুলে দিয়েছিলেন মিরশাদ। ছোটে শট মারার আগেই বিপন্মুক্ত করেন ইস্টবেঙ্গলের রক্ষণ ভাগের খেলোয়াড়।

দ্বিতীয়ার্ধে মিনার্ভা চেপে ধরে ইস্টবেঙ্গলকে। লাল-হলুদের মাঝমাঠে প্রচুর ফাঁকা জায়গা তৈরি হচ্ছিল। আর তা দিয়ে দারুণ গতিতে আক্রমণ তুলে আনছিল মিনার্ভা। দ্বিতীয়ার্ধে ইস্টবেঙ্গলকে বাঁচান মিরশাদ। খেলা শেষ হওয়ার মিনিট তিনেক আগে গোল করার মতো জায়গায় পৌঁছে গিয়েছিলেন মিনার্ভার দিপান্দা ডিকা। কিন্তু মিরশাদকে পরাস্ত করতে পারেননি তিনি। মারিয়োর কাজটা কঠিন হচ্ছে ক্রমশ। ১১ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে ইস্টবেঙ্গল এখন ৯ নম্বরে। 

আরও পড়ুন: অভিষেক টেস্টে ‘সৌরভ’ ছড়ানোর ছবি পোস্ট করলেন মহারাজ, প্রিয় ‘দাদা’কে ট্রোল করলেন যুবি

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন