• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ব্যাটে ফিঞ্চ-স্মিথ, বলে জাম্পা, সিরিজের প্রথম ম্যাচে উড়ে গেল ভারত

Australia
প্রথম ম্যাচে জয় অস্ট্রেলিয়ার। ছবি: সোশ্যাল মিডিয়া

৫০ ওভার | ভারতের ৩০৮/৮ | সিরিজের প্রথম ম্যাচে জয় অস্ট্রেলিয়ার। ৬৬ রানে হারল ভারত।

উইকেট | আউট শামি। উইকেট পেলেন স্টার্ক। ১৩ রানে ফিরলেন বাংলার পেসার।

উইকেট | শেষ ভারতের আশা। আউট জাদেজা। ৩৭ বলে ২৫ রান করে জাম্পার বলে স্টার্কের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন তিনি।

৪৫ ওভার | ভারতের ২৭৩/৬ | ৯ ওভার বল করে ৩ উইকেট নিয়েছেন জাম্পা। ম্যাচ প্রায় পকেটে ভরেই ফেলেছে অস্ট্রেলিয়া। জাদেজার উইকেট নিতে পারলেই কফিনের শেষ পেরেক পোঁতা হয়ে যাবে অজিদের।

৪০ ওভার | ভারতের ২৫০/৬ | শিখর, হার্দিক ফিরতেই হাসি দেখা গেল ফিঞ্চদের মুখে। জেতার জন্য ১২৫ রান প্রয়োজন ভারতে। ক্রিজে রয়েছেন জাদেজা (১৯ বলে ১০ রান করে অপরাজিত) এবং সাইনি (৫ বলে ১ রান করে অপরাজিত)। 

উইকেট | আউট হার্দিক পাণ্ড্য। জাম্পার বলে ৬ মারতে গিয়ে স্টার্কের ধরা পড়লেন তিনি। ৭৬ বলে ৯০ রান করে আউট হলেন হার্দিক। ভারতের জেতার আশাও ধীরে ধীরে ক্ষীণ হচ্ছে।

৩৫ ওভার | ভারতের ২৩১/৫ | শিখর এবং হার্দিকের ১২৮ রানের পার্টনারশিপ ভেঙে দিলেন জাম্পা। ৮২ রানে অপরাজিত হার্দিক এবং সদ্য নামা জাদেজার সামনে কঠিন কাজ। ম্যাচ জিততে হলেই এই ২ ব্যাটসম্যানকে শেষ অবধি থাকতেই হবে। ১৫ ওভারে জেতার জন্য ভারতের দরকার ১৪৪ রান। 

উইকেট | ভারতকে ধাক্কা দিলেন জাম্পা। আউট শিখর। ৮৬ বলে ৭৪ রান করে স্টার্কের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন তিনি।

৩০ ওভার | ভারতের ২০৮/৪ |  ভারতের জেতার জন্য প্রয়োজন ১৬৭ রান। শিখর (৫৯ রানে অপরাজিত) এবং হার্দিক (৭৫ রানে অপরাজিত) লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে ২০ ওভারে এই রান তুলতে হলে দরকার ব্যাটিং গভীরতা। ৪ উইকেট হারিয়ে ভারতের এখন সেটারই অভাব। ড্রেসিংরুমে রয়েছেন রবীন্দ্র জাদেজা। এই ২ ব্যাটসম্যানের পর তাঁর ওপরেই ভরসা করতে পারবে ভারত।

২৫ ওভার | ভারতের ১৮০/৪ | শিখর, হার্দিকের কাঁধে ভর করে এগোচ্ছে ভারত। তবে জেতার জন্য এখনও ১৯৫ রান প্রয়োজন। পরের ২৫ ওভারে সেই রান তুলতে হলে এই দুই ব্যাটসম্যানকে শেষ অবধি থাকতে হবে।

শিখর ৫০* | হাফ সেঞ্চুরি করলেন শিখরও। তবে তিনি নিলেন ৫৫ বল। একদিনের ক্রিকেটে ৩০তম অর্ধশতরান তাঁর।

হার্দিক ৫০* | ম্যাক্সওয়েলের এক ওভারে দুটো ছয় হার্দিকের। ৩১ বলে ৫০ করলেন তিনি। তবে এখনও যে বহু দূর যাওয়া বাকি তা বুঝিয়ে দিলেন তিনি। একদিনের ক্রিকেটে পঞ্চম হাফ সেঞ্চুরি হার্দিকের।

২০ ওভার | ভারতের ১৪৪/৪ | শিখরের সঙ্গে হার্দিকের পার্টনারশিপ লড়াইয়ে রেখেছে ভারতকে। ২১ বলে ৩১ রান করে অপরাজিত হার্দিক। দ্রুত রান তোলার দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন তিনি। হাফ সেঞ্চুরির দোরগোড়ায় ধওয়ন। তবে এখনও অনেক রান বাকি জেতার জন্য। 

১৫ ওভার | ভারতের ১০৬/৪ | ম্যাচের রাশ হাত থেকে বেরিয়ে যাচ্ছে ভারতের। রাহুল, কোহালিদের হারিয়ে বেশ চাপে তারা। যে পিচে রান করা সহজ মনে হচ্ছিল অস্ট্রেলিয়া ব্যাট করার সময়, সেই পিচেই এখন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা দাঁড়াতেই পারছেন না। অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান শিখর (৩৪ রানে অপরাজিত) এখনও লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন সদ্য নামা হার্দিককে (১ রানে অপরাজিত) সঙ্গে নিয়ে।   

উইকেট | ১২ রান করে ফিরলেন লোকেশ রাহুল। অ্যাডাম জাম্পার লো ফুলটস বুঝতে না পেরে স্মিথের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন তিনি।

১০ ওভার | ভারতের ৮০/৩ | ময়াঙ্ক আউট হতে নামেন বিরাট কোহালি। ১ রানের মাথায় তাঁর ক্যাচ ফেলেন অ্যাডাম জাম্পা। প্যাট কামিন্সের বলে ছয় মারতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন তিনি। জীবন পেয়ে দ্রুত রান তোলার কাজ চালিয়ে যাচ্ছিলেন বিরাট। কিন্তু বেশিক্ষণ থাকতে পারলেন না তিনি। ক্রিজে রয়েছেন শিখর (২২ রানে অপরাজিত) এবং লোকেশ রাহুল (০ রানে অপরাজিত)।

উইকেট | আউট হলেন শ্রেয়াস আয়ার। হ্যাজেলউডের বাউন্সার বুঝতে না পেরে ক্যাচ তুলে দিলেন তিনি। মাত্র ২ রানে আউট তিনি।  

উইকেট | আউট বিরাট কোহালি। ফের হ্যাজেলউড। ২১ বলে ২১ রান করে ফিঞ্চের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন ভারত অধিনায়ক।

উইকেট | ভাল শুরু ধরে রাখতে পারল না ভারত। হ্যাজেলউডের বলে ২২ রান করে আউট ময়াঙ্ক।

৫ ওভার | ভারতের ৫৩/০ | রানের এই পাহাড় টপকাতে যেমন শুরু দরকার ছিল সেটাই দেখা গেল দুই ভারতীয় ওপেনার শিখর ধওয়ন (২০ রানে অপরাজিত) এবং ময়াঙ্ক আগরওয়ালের (২২ রানে অপরাজিত) থেকে। প্রথম ওভারেই তাঁরা করেন ২০ রান। 

সিডনির মাঠে শুক্রবার অস্ট্রেলিয়া প্রথমে ব্যাট করে ভারতের সামনে ৩৭৫ রানের লক্ষ্য রাখল। ফিঞ্চ এবং স্মিথের জোড়া সেঞ্চুরিতে ভর করে অজিরা গুঁড়িয়ে দিল ভারতীয় পেস অ্যাটাক। শামি ৩টে উইকেট পেলেও ১০ ওভারে দিয়েছেন ৫৯ রান। দলের সেরা পেসার বুমরার অবস্থা আরও করুণ। ১০ ওভার বল করে ৭৩ রান দিয়ে তিনি নিয়েছেন মাত্র ১ উইকেট। ৮৩ রান দিয়ে ১ উইকেট পেয়েছেন সাইনি এবং ৮৯ রান দিয়ে একটি উইকেট নিয়েছেন চহাল। ভারতীয় বোলারদের নিয়ে ছেলেখেলা করলেন ফিঞ্চরা। এই বিশাল রান টপকাতে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের দ্রুত রান তুলতে হবে।

৫০ ওভার | অস্ট্রেলিয়ার ৩৭৪/৬ | প্রথম একদিনের ম্যাচে জেতার জন্য ভারতের সামনে লক্ষ্য ৩৭৫ রানের। প্রথমে ফিঞ্চ-ওয়ার্নার জুটি এবং তার পর ফিঞ্চকে সঙ্গে নিয়ে স্মিথের ঝোড়ো সেঞ্চুরি অস্ট্রেলিয়াকে এই বিশাল রান তুলতে সাহায্য করল। সঙ্গে ম্যাক্সওয়েল ঝড়। এই রান টপকে জিততে গেলে প্রথম থেকেই দ্রুত রান তোলার লক্ষ্য নিতে হবে ভারতকে।

উইকেট | রান তোলার তাড়ায় নিজের উইকেট ছুঁড়ে দিলেন স্মিথ। শামির বলে বোল্ড হয়ে ফিরলেন তিনি। ৬৬ বলে ১০৫ রান করলেন তিনি। 

স্মিথ ১০০* | ৬২ বলে শতরান স্মিথের। রানের পাহাড়ে অস্ট্রেলিয়া।

উইকেট | দ্রুত রান তুলতে গিয়ে উইকেট ছুঁড়ে দিলেন লাবুশানে। ২ বলে ২ রান করে সাইনির বলে ধওয়নের হাতে ক্যাচ তুলে দিলেন তিনি। 

৪৫ ওভার | অস্ট্রেলিয়ার ৩৩০/৪ | ঝড় তুললেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (১৯ বলে ৪৫ রান)। ফিঞ্চ এবং স্টোইনিস ফিরে গেলেও সেই অভাব বুঝতেই দিলেন না অজি অলরাউন্ডার। ভারতীয় বোলারদের একের পর এক ফেলতে লাগলেন মাঠের বাইরে। তাঁর ইনিংস সাজানো ছিল ৩টে ছক্কা এবং ৫টা চার দিয়ে। অন্য দিকে স্মিথ ৮১ রানে অপরাজিত। সেঞ্চুরির পথে এগোচ্ছেন তিনিও।

উইকেট | ১৯ বলে ৪৫ রানের ঝড় তুলে আউট হলেন ম্যাক্সওয়েল। শামির বলে ছয় মারতে গিয়ে জাদেজার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন তিনি।

উইকেট | নেমেই আউট স্টোইনিস (০)। তাঁকে প্রথম বলেই ফেরালেন চহাল। পর পর উইকেট নিয়ে ধাক্কা দেওয়ার চেষ্টা ভারতের।

৪০ ওভার | অস্ট্রেলিয়ার ২৬৪/২ | ফিঞ্চের বদলের ক্রিজে এলেন মার্কোস স্টোইনিস। বড় রানের দিকে এগোচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। ফিঞ্চ ফিরলেও অনেক দেরি করে উইকেট পেল ভারত। বিপদ যা হওয়ার হয়েই গিয়েছে। ক্রিজে সেট হয়ে গিয়েছেন স্মিথ। স্টোইনিসের মতো মারকুটে ব্যাটসম্যানের সঙ্গে দলের রান দ্রুত বাড়িয়ে নেওয়ার কাজে লেগে পড়বেন তিনি তা বলাই বাহুল্য।

উইকেট | এ শতরানের পরেই আউট ফিঞ্চ। ১২৪ বলে ১১৪ রানের ইনিংস খেলে আউট তিনি। বুমরা বলে রাহুলের হাতে ক্যাচ দিয়ে  ফিরলেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক।

ফিঞ্চ ১০০* | একদিনের ক্রিকেটে ১৭তম শতরান ফিঞ্চের। ১১৭ বলে সেঞ্চুরি করলেন তিনি।

স্মিথ ৫০* | মাত্র ৩৬ বলে হাফ সেঞ্চুরি স্মিথের। বড় রানের দিকে দলকে নিয়ে চলেছেন তিনি। ৩৮ ওভার শেষে ফিঞ্চ অপরাজিত ৯৯ রানে।

৩৫ ওভার | অস্ট্রেলিয়ার ২০৮/১ | রানের গতিতে লাগাম লাগাতে পারছে না ভারত। ওয়ার্নারকে হারিয়েও অস্ট্রেলিয়া রয়েছে ছন্দেই। ২০০ রানও টপকে গেলেন তারা। স্মিথ (২৭ রানে অপরাজিত) এবং ফিঞ্চ (৯৬ রানে অপরাজিত) দলকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন বড় রানের দিকে। শতরানের দোরগোড়ায় ফিঞ্চ।

৩০ ওভার | অস্ট্রেলিয়ার ১৬৯/১ | অবশেষে উইকেট পেল ভারত। ওয়ার্নার ফিরতে মাঠে নামলেন স্টিভ স্মিথ। উইকেট পড়লেও রানের গতি এখনও কমেনি। চহালের নো বলের জন্য ফ্রি হিট পায় অস্ট্রেলিয়া। সেই বল চারে পাঠিয়ে উইকেট পরার চাপ যেন কাটিয়ে দিলেন অধিনায়ক ফিঞ্চ। শুক্রবার একদিনের ক্রিকেটে ৫ হাজার রানের মাইলফলক পাড় করলেন তিনি।

উইকেট | শামির বলে আউট ওয়ার্নার (৬৯ রান ৭৬ বলে)। ২৭.৫ ওভারে উইকেট পেল ভারতীয় দল। শামির বলে উইকেট কিপার রাহুলের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন অজি ওপেনার।

২৫ ওভার | অস্ট্রেলিয়ার ১৩৪/০ | এখনও উইকেট অমিল। চাপ বাড়ছে ভারতীয় দলের। সিডনির মাঠে বড় রানের দিকে এগোচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। সৌজন্যে ২ ওপেনার। হাফ সেঞ্চুরি পেরনো ফিঞ্চ এবং ওয়ার্নারকে কোনও সমস্যাতেই ফেলতে পারছেন না বুমরারা। ইতিমধ্যেই বুমরাকে দিয়ে ৬ ওভার করিয়ে ফেলেছেন বিরাট। ৩৩ রান দিয়ে কোনও উইকেট নিতে পারেননি ভারতের এক নম্বর পেসার। শামি দিয়েছেন ৫ ওভারে ১৭ রান। ৬ ওভার বল করে ২৯ রান দিয়ে ফেলেছেন জাদেজাও। উইকেটের জন্য মরিয়া হচ্ছে ভারত, কিন্তু এখনও তা অধরাই।

আরও পড়ুন: ফিল হিউজ কাণ্ডের ৬ বছর, শ্রদ্ধা জানাল ভারত

ওয়ার্নার ৫০* | ডেভিড ওয়ার্নারেরও পঞ্চাশ। তিনি ৫৪ বলে হাফ সেঞ্চুরি করলেন।

২০ ওভার | অস্ট্রেলিয়ার ১০৩/০ | দুই ওপেনারের হাত ধরে বড় রানের দিকে এগিয়ে চলেছে অস্ট্রেলিয়া। ইতিমধ্যেই অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক হাফ সেঞ্চুরি করে ফেলেছেন। ৫০-এর দিকে এগোচ্ছেন অন্য ওপেনার ওয়ার্নারও। উইকেট নেওয়ার জন্য বিরাট দলের সব বোলারকেই ব্যবহার করে ফেলেছেন, কিন্তু কেউ দাফল্য এনে দিতে পারেননি এখনও। দুই ওপেনার খেলে চলেছেন কোনও বাধা ছাড়াই।

ফিঞ্চ ৫০* | ওপেনিং জুটিতেই ১০০ রান অস্ট্রেলিয়ার। ৬৯ বলে হাফ সেঞ্চুরি করলেন অ্যারন ফিঞ্চ। 

১৫ ওভার | অস্ট্রেলিয়ার ৭৬/০ | উইকেট পাওয়ার আশায় স্পিনারদের হাতে বল তুলে দিলেন অধিনায়ক কোহালি। যুজবেন্দ্র চহাল এবং রবীন্দ্র জাদেজা রানের গতি কিছুটা আটকে দিলেও উইকেট নিতে পারেননি এখনও। চহালকে একটি ৪ মারলেও, জাদেজাকে দেখতে খেলতে চাইছেন দুই ওপেনারই। ফিঞ্চ (৩৬ রানে অপরাজিত) এবং ওয়ার্নারকে (৩৪ রানে অপরাজিত) দ্রুত ফেরাতে না পারলে রানের পাহাড় তৈরি করার দিকে এগিয়ে যাবে অস্ট্রেলিয়া তা বলাই যায়। 

১০ ওভার | অস্ট্রেলিয়ার ৫১/০ | শুরুর চাপ কাটিয়ে স্বচ্ছন্দ হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার। সপ্তম ওভারে তরুণ পেসার নবদীপ সাইনিকে নিয়ে এলেন বিরাট কোহালি। ভারত অধিনায়ক ভালই জানেন এই দুই ওপেনার বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকলে কতটা ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারেন। উইকেট নেওয়ার জন্য ঝাঁপাতেই হবে ভারতীয় বোলারদের। তবে বেশ অনায়াসেই খেলছেন ফিঞ্চ (২৯ রানে অপরাজিত) এবং ওয়ার্নার (২০ রানে অপরাজিত)। 

৫ ওভার | অস্ট্রেলিয়ার ২৭/০ | অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিংকে শুরু থেকেই চাপে রেখেছিল দুই ভারতীয় পেসার মহম্মদ শামি এবং যশপ্রীত বুমরা। দুই অস্ট্রেলীয় ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ এবং ডেভিড ওয়ার্নারকে বেশ বিপদে পড়তে দেখা যায় বুমরার পেসে। শামির সুইংয়ের বিরুদ্ধেও খুব একটা স্বচ্ছন্দ দেখা গেল না তাঁদের। চতুর্থ ওভারের শেষ বলে রান আউটের মুহূর্ত তৈরি হলেও ৫ ওভার শেষে বিনা উইকেটে ২৭ রান অস্ট্রেলিয়ার। শামি তৃতীয় ওভারে ১০ রান দেন।

টস | অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত | সিডনির মাঠে ভারত এবং অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে প্রথম এক দিনের ম্যাচে টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালি জানিয়েছেন রোহিত শর্মার অবর্তমানে ময়াঙ্ক আগরওয়াল ওপেন করবেন শিখর ধওয়নের সঙ্গে।শুক্রবারের ম্যাচে ভারতীয় দলে সুযোগ পেলেন না শুভমন গিল, সঞ্জু স্যামসন, মণীশ পাণ্ডে, শার্দুল ঠাকুর এবং টি নটরাজন। যশপ্রীত বুমরা এবং মহম্মদ শামির সঙ্গে পেস আক্রমণ সামলাবেন নবদীপ সাইনি। অস্ট্রেলিয়া দলও শুরু করেছে ৩ পেসার নিয়ে।

টসের পর ফিঞ্চ বলেন, “এত দিন পর দর্শকের সামনে খেলার সুযোগ ভাল লাগছে। পিচ বেশ ভাল মনে হচ্ছে। প্রথমে ব্যাট করে রান তুলে নেওয়ার চেষ্টা করাই ঠিক মনে হচ্ছে। পরের দিকে পিচে স্পিনও পাওয়া যেতে পারে মনে হচ্ছে।” বিরাট বলেন, “আমাদের দল হিসেবে ভাল শুরু করাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। অনুশীলনের যে সুযোগ আমাদের দেওয়া হয়েছিল তা কাজে লাগানোর চেষ্টা করা হয়েছে পুরোদমে।”

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন