• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

প্রায় চোটমুক্ত, জানুয়ারিতেই ফিরতে পারেন যশপ্রীত বুমরা

Jasprit Bumrah
অগস্টে শেষবার জাতীয় দলের হয়ে খেলতে দেখা গিয়েছিল বুমরাকে। ফাইল ছবি।

ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে সুখবর। নতুন বছরের গোড়ায় অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে টিম ইন্ডিয়া। তখনই চোট সারিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে পারেন ভারতের তারকা পেসার যশপ্রীত বুমরা

ভারতীয় দল এই মুহূর্তে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ও দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলার জন্য প্রস্তুতি সারছে। বুমরা স্ট্রেস ফ্র্যাকচারের জন্য এই সিরিজে নেই। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজেও খেলেননি তিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজের পর আর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দেখা যায়নি তাঁকে। চোটের জন্য তখন থেকেই দলের বাইরে তিনি। ফলে, ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে জমছিল আশঙ্কা।

সেই আশঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে বুমরা জানুয়ারিতেই জাতীয় দলে ফিরছেন বলে খবর। এক সূত্রকে উদ্ধৃত করে সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, দিওয়ালি ব্রেকের সময় পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছিল ডানহাতি পেসারকে। আর তা থেকেই পরিষ্কার হয়েছে যে, জানুয়ারিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে পারেন বুমরা। চোট থেকে সেরে ওঠার প্রক্রিয়া ঠিকঠাকই এগোচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। শনিবার বুমরা সোশাল মিডিয়ায় তাঁর প্রস্তুতির এক ভিডিয়ো পোস্টও করেছেন। যাতে দেখা যাচ্ছে ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে তিনি দৌড়চ্ছেন।

আরও পড়ুন: ‘প্রায় সবাই ম্যাচ গড়াপেটা করত, মাঠে নেমে ২১ জনের বিরুদ্ধে খেলতে হত’​

আরও পড়ুন: অভিষেক হচ্ছে মারকুটে অলরাউন্ডারের? দেখে নিন বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভারতের সম্ভাব্য একাদশ​

জানুয়ারিতে শ্রীলঙ্কা ও অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ত্রিদেশীয় সিরিজের পর বিরাট কোহালির দল যাবে নিউজিল্যান্ডে। সেখানে দুটো টেস্ট, তিনটি একদিনের ম্যাচ ও পাঁচটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে। সেই সফরে ১০০ শতাংশ সুস্থ বুমরাকে পেতে চাইছে ভারতের টিম ম্যানেজমেন্ট। সূত্রের মতে, কিউয়িদের দেশে বোলিংয়ের গুরুত্ব অনেক বেশি। অতীতেও দেখা গিয়েছে, বড় রান করার চেয়ে বিপক্ষের কুড়ি উইকেট নেওয়া বেশি জরুরি। তার জন্যই পুরোপুরি সুস্থ হয়ে ওঠার জন্য বুমরাকে সময় দিতে চাইছে ভারতীয় দল।

এই মুহূর্তে ভারতীয় দল একটানা ক্রিকেট খেলছে। তার জন্য বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে অধিনায়ক কোহালিকে। চোট এড়ানোর জন্য ক্রিকেটারদের ওয়ার্কলোড কমানোর কথাও শোনা গিয়েছে টিম ম্যানেজমেন্টের মুখে। কোহালি নিজেই বলেছিলেন যে, এই কারণে বিশ্বকাপের পর সাদা বলের ক্রিকেটে আর খেলানো হয়নি বুমরাকে। তাঁকে টেস্টে তরতাজা অবস্থায় পাওয়ার জন্যই বিশ্রাম দেওয়া হয়েছিল। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ চলছে বলে পাঁচ দিনের ফরম্যাটে বুমরার গুরুত্ব আরও বাড়ছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন