বিশাখাপত্তনমে সিরিজের প্রথম টেস্টেও টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালি। পুণেয় দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টেও তার পুনরাবৃত্তি হল। ফের টস জিতে ব্যাট করতে নামল টিম ইন্ডিয়া। আর ব্যাট করতে নেমে ময়াঙ্ক আগরওয়ালের সেঞ্চুরির সুবাদে প্রথম দিনের শেষে স্বস্তির জায়গায় ভারত।

বিশাখাপত্তনমে দ্বিশতরান করেছিলেন ময়াঙ্ক। এদিন পুণেয় তিনি কেরিয়ারের দ্বিতীয় টেস্ট সেঞ্চুরি করলেন বাউন্ডারি মেরে। তবে সেঞ্চুরির পরেই ফেরেন তিনি। ময়াঙ্কের ১৯৫ বলে ১০৮ রানের ইনিংসে রয়েছে ১৬টি চার ও দুটো ছয়। আলোর অভাবে ৪.৫ ওভার আগে এদিনের মতো খেলা বন্ধের সময় ৮৫.১ ওভারে তিন উইকেটে ২৭৩ রান তুলেছে ভারত। ক্রিজে অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান হলেন বিরাট কোহালি (৬৩) ও অজিঙ্ক রাহানে (১৮)।

সকালে কাগিসো রাবাডার বলে উইকেটকিপারকে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছিলেন প্রথম টেস্টের নায়ক রোহিত শর্মা (১৪)। চায়ের বিরতির আগে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন চেতেশ্বর পূজারা (৫৮)। দ্বিতীয় উইকেটে ১৩৮ রান যোগ করেছিলেন ময়াঙ্ক-পূজারা। তৃতীয় উইকেটে কোহালির সঙ্গে ৩৫ রান যোগ করার পর ফেরেন ময়াঙ্ক। তিনিও পূজারার মতো স্লিপে ক্যাচে দেন। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে তিনটি উইকেটই নিয়েছেন রাবাডা।

এই নিয়ে উপমহাদেশে টানা নয় টেস্টে টস হারলেন প্রোটিয়া অধিনায়ক ফাফ দু’প্লেসি। টস হারার পর তাই হতাশ গলায় বলেই ফেললেন, “টস হওয়ার আগে বিরাটকে বলছিলাম, ভারতে কী ভাবে টস জিততে হয়, সেই জাদু যেন শিখিয়ে দেয়। তবে প্রথম টেস্টে টস হেরে বেশি দুঃখ পেয়েছিলাম। এখানে যদি প্রথম ইনিংসে ভাল বল করতে পারি, তবে চতুর্থ ও পঞ্চম দিনে ব্যাট করার ব্যাপারটা নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু থাকবে না।”

আরও পড়ুন: পুণেয় সৌরভকে টপকালেন কোহালি, সামনে শুধুই ধোনি​

আরও পড়ুন: রবি শাস্ত্রী, জাস্টিন ল্যাঙ্গার থেকে লালচাঁদ রাজপুত, ক্রিকেট কোচেদের বেতন চোখ কপালে তুলবে​

দু’প্লেসির টস হেরে খুব একটা হতাশ না হওয়ার কারণ হল পুণের পিচে ঘাসের উপস্থিতি। তার জন্য দুই দলই তিন পেসার নিয়ে নেমেছে। অফস্পিনার ডেন পিয়েদকে বসিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা খেলাচ্ছে ২৫ বছর বয়সি এক্সপ্রেস পেসার অ্যানরিখ নর্টজেকে। যাঁর টেস্ট অভিষেক হল বৃহস্পতিবার পুণেয়।

ভারতীয় দলের প্রথম একাদশেও এসেছে পরিবর্তন। পিচে সবুজের আভা থাকায় টেস্টের এগারোয় ফিরলেন উমেশ যাদব। বসতে হল হনুমা বিহারিকে। অধিনায়ক বিরাট কোহালি বললেন, “হার্ড সারফেস। দ্বিতীয় দিন থেকে বল ঘুরবে বলে মনে হচ্ছে। তাই ব্যাটিংয়ের পক্ষে প্রথম দেড় দিন সেরা। অশ্বিন-জাডেজা থাকায় স্পিন বিভাগ শক্তিশালী করার দরকার পড়ছে না। উইকেটে ঘাস রয়েছে। পরের দিকে রিভার্স হতে পারে। তার জন্যই উমেশকে নেওয়া হয়েছে। হনুমার দুর্ভাগ্য, বাদ পড়তে হল।”