নতুন বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের মুকুট পরে পি ভি সিন্ধুর আর একটা চ্যালেঞ্জ শুরু হচ্ছে। চ্যালেঞ্জটা চিন ওপেনের। বিশ্ব ব্যাডমিন্টন সংস্থার বছরের শেষ ‘সুপার-১০০০’ পর্যায়ের প্রতিযোগিতা এটি। যা শুরু হচ্ছে আজ, মঙ্গলবার থেকে। যেখানে চ্যাম্পিয়ন হতে পারলে বা ভাল ফল করলে বিশ্ব ক্রম পর্যায়ে আরও এগিয়ে যেতে পারবেন বর্তমানে বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে পাঁচ নম্বরে থাকা সিন্ধু। অলিম্পিক্স ড্র-এর আগে যতটা এগিয়ে যেতে পারবেন সিন্ধু, ততটাই টোকিয়োতে প্রথম দিকে সহজ প্রতিপক্ষ পাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে তাঁর।

সিন্ধু এবং আর এক ভারতীয় ব্যাডমিন্টন তারকা সাইনা নেহওয়াল চিনের এই প্রতিযোগিতার ড্র-এ নীচের অর্ধে আছেন। ২৪ বছর বয়সি সিন্ধু প্রথম রাউন্ডে মুখোমুখি হবেন অলিম্পিক্স চ্যাম্পিয়ন চিনের লি জুয়েরুইয়ের। ক্রমাগত চোট-আঘাতে জর্জরিত জুয়েরুইয়ের আগের মতো দাপট আর নেই। তাই সিন্ধুর সামনে তিনি এখন আর বড় বাধা নন। দ্বিতীয় রাউন্ডে সিন্ধুর সামনে পড়তে পারেন কানাডার মিশেল লি। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে কোয়ার্টার ফাইনালে সিন্ধুকে সামলাতে হতে পারে অল ইংল্যান্ড চ্যাম্পিয়ন চেন উফেইয়ের চ্যালেঞ্জ।

সাইনাও কোয়ার্টার ফাইনালের আগে খুব একটা বড় বাধার মুখে পড়ছেন না। শেষ আটে সাইনা মুখোমুখি হতে পারেন চিনা তাইপের তাই জু ইং-এর। যাঁর বিরুদ্ধে সাইনা মুখোমুখি লড়াইয়ের পরিসংখ্যানে ৫-১৫ পিছিয়ে আছেন। এই পর্যায়ের প্রতিযোগিতাতে আবার চোটের জন্য দীর্ঘদিন কোর্টের বাইরে কাটিয়ে ফিরছেন স্পেনের ক্যারোলিনা মারিন এবং ডেনমার্কের ভিক্টর অ্যাক্সেলসেনও। 

পুরুষদের বিভাগে চোটের জন্য নাম তুলে নিয়েছেন ভারতের কিদম্বি শ্রীকান্ত, সমীর বর্মা। এইচ এস প্রণয়ও নেই ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হওয়ায়। নজর থাকবে চোট কাটিয়ে ফেরা ভারতের সাত্ত্বিকসাইরাজ রানকিরেড্ডি ও চিরাগ শেট্টির ডাবলস জুটির উপরেও।

এ দিকে, জাতীয় দলের ব্যাডমিন্টন কোচ পুল্লেলা গোপীচন্দ ফের জানিয়েছেন, দেশে প্রতিভার অভাব নেই। কিন্তু তাদের ঠিক মতো গড়ে তোলার জন্য কোচের সংখ্যা খুবই কম। তিনি বলেছেন, ‘‘সিন্ধুর ব্যাপারে আমি বরাবর আশাবাদী ছিলাম। কিন্তু জুনিয়র পর্যায়েও অনেক নতুন প্রতিভা রয়েছে। কিন্তু তাদের ঠিক মতো গড়ে তুলতে আরও কোচের প্রয়োজন।’’