Advertisement
২২ মে ২০২৪
Oscar Pistorius

মুক্তির পরে প্রথম বার প্রকাশ্যে বান্ধবীর খুনি অ্যাথলিট, এখন কী করছেন পিস্টোরিয়াস

১১ বছর আগে বান্ধবীকে খুন করা অ্যাথলিট অস্কার পিস্টোরিয়াস জেল থেকে মুক্তি পেয়েছেন। তার পর প্রথম বার প্রকাশ্যে দেখা গেল তাঁকে।

sports

বান্ধবী রিভার সঙ্গে অস্কার পিস্টোরিয়াস। —ফাইল চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৪ এপ্রিল ২০২৪ ২২:৩১
Share: Save:

চেহারায় বয়সের ছাপ স্পষ্ট। বেশ খানিকটা রোগাও হয়েছেন অস্কার পিস্টোরিয়াস। কিন্তু চোখমুখে কোনও অনুতাপ নেই। উল্টে হাসি মুখে রাস্তায় হাঁটছেন তিনি। ১১ বছর আগে বান্ধবী রিভা স্টিনক্যাম্পকে খুন করা অ্যাথলিট পিস্টোরিয়াস জেল থেকে মুক্তি পেয়েছেন। তার পর প্রথম বার প্রকাশ্যে দেখা গেল তাঁকে।

পিস্টোরিয়াসের এই চেহারা দেখে ক্ষুব্ধ রিভার পরিবার ও বন্ধু-বান্ধব। তাঁদের দাবি, পিস্টোরিয়াসের মধ্যে দুঃখের লেশমাত্র নেই। যেন সব কিছু একেবারে স্বাভাবিক রয়েছে। কিন্তু তাঁদের জীবনটা বদলে গিয়েছে। রিভার আইনজীবী তানিয়া কোয়েন বলেন, “জুনের (রিভার মা) জন্য আমার খারাপ লাগছে। ওদের জীবনটাও তো যাবজ্জীবন কারাবাসের মতো হয়ে গিয়েছে। মেয়েকে তো কোনও দিন ওরা দেখতে পাবে না। কিন্তু পিস্টোরিয়াসকে দেখে ওরা আরও দুঃখ পাচ্ছে। প্রশাসনের উচিত ব্যবস্থা নেওয়া।” নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রিভার আর এক বান্ধবী সংবাদমাধ্যমে বলেন, “পিস্টোরিয়াসের হাসি দেখে মনে হচ্ছে কিছুই হয়নি। আমি পারলে ওর হাসি মুছে দিতাম। ও কী ভাবে রাতে ঘুমায় সেটা ভাবলে আমার অবাক লাগে।”

পিস্টোরিয়াস পরিচিত ছিলেন ‘ব্লেড রানার’ নামে। কার্বন ফাইবারের পা লাগিয়ে দৌড়তেন তিনি। সেই কারণেই এই নামে পরিচয় হয়েছিল তাঁর। কিন্তু ২০১৩ সালে বান্ধবীকে গুলি করে খুন করার অভিযোগ উঠেছিল পিস্টোরিয়াসের বিরুদ্ধে। ২৯ বছর বয়সি বান্ধবী রিভাকে চারটি গুলি করেছিলেন তিনি। ‘ভ্যালেন্টাইন্স ডে’র দিন সেই ঘটনা ঘটেছিল।

পরে পিস্টোরিয়াস দাবি করেছিলেন, যাঁর উদ্দেশে গুলি চালিয়েছিলেন তিনি যে নিজের বান্ধবী বুঝতে পারেননি। কোনও চোর ভেবে সে দিকে গুলি চালিয়েছিলেন। কিন্তু আদালতে তাঁর যুক্তি খাটেনি। ২০১৬-য় দক্ষিণ আফ্রিকার একটি আদালত তাঁকে ১৩ বছরের কারাবাসের নির্দেশ দেয়।

সম্প্রতি প্যারোলে মুক্তি পেয়েছেন পিস্টোরিয়াস। রিভার মা পিস্টোরিয়াসের জামিনের বিরোধিতা করেননি। কিন্তু প্যারোল বোর্ডকে পাঠানো একটি চিঠিতে তিনি জানতে চেয়েছেন, জেলে থাকাকালীন পিস্টোরিয়াসের রাগ সংক্রান্ত সমস্যার কোনও চিকিৎসা হয়েছে কি না। এটাও জানিয়েছেন, জেলের বাইরে বেরোলে অনেক মহিলার নিরাপত্তার পক্ষে বিপজ্জনক হয়ে উঠবেন পিস্টোরিয়াস। আদালত সব কিছু খতিয়ে দেখেই প্যারোলের আবেদনে রাজি হয়েছে।

মুক্তির পর থেকে এক আত্মীয়ের বাড়িতে রয়েছেন পিস্টোরিয়াস। তাঁকে কিছু নির্দেশ দিয়েছে আদালত। রিভার পরিবারের কারও সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না তিনি। সংবাদমাধ্যমে কোনও সাক্ষাৎকার দিতে পারবেন না। মদ্যপান বা নৈশপার্টি থেকে তাঁকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। রাতে আত্মীয়ের বাড়ির ভিতরে থাকতে হবে তাঁকে। যখনই পুলিশ ডাকবে তখনই হাজিরা দিতে হবে পিস্টোরিয়াসকে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Oscar Pistorius Blade Runner Athlete
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE