Advertisement
২৪ জুলাই ২০২৪
Indian Cricket team

৯ শর্ত: রোহিত, কোহলিদের কোচ হওয়ার জন্য কী কী যোগ্যতা দরকার, জানাল বোর্ড

বলা হয়, ভারতীয় দলের কোচের চাকরি বিশ্বের অন্যতম কঠিন। বিশ্বের প্রথম সারির ক্রিকেটারদের সামলানোর পাশাপাশি বিপুল প্রত্যাশার চাপ ঘাড়ে নিয়ে কাজ করতে হয়।

Picture of Rohit Sharma and Virat Kohli

(বাঁ দিকে) রোহিত শর্মা এবং বিরাট কোহলি। — ফাইল চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৪ মে ২০২৪ ১০:৩৯
Share: Save:

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর ভারতীয় ক্রিকেট দলের নতুন কোচ নিয়োগ করবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। আগ্রহীদের আবেদন করার অনুরোধ করেছে বিসিসিআই। নতুন কোচের সঙ্গে ২০২৭ সালের এক দিনের বিশ্বকাপ পর্যন্ত চুক্তি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বোর্ড।

রাহুল দ্রাবিড় নতুন করে আর দায়িত্ব নিতে রাজি নন বলে জানিয়েছেন ঘনিষ্ঠ মহলে। সে ক্ষেত্রে নতুন কেউ দায়িত্ব পাবেন। ন’টি শর্ত জানিয়ে দিয়েছে বিসিসিআই। নতুন কোচকে সবগুলিই পূর্ণ করতে হবে। দেখে নেওয়া যাক ভারতীয় দলের নতুন কোচের জন্য বিসিসিআই-এর দেওয়া শর্তগুলি।

১) কমপক্ষে ৩০টি টেস্ট অথবা ৫০টি এক দিনের ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে প্রধান কোচের। ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) পূর্ণ সদস্য কোনও দেশের জাতীয় দলের কোচ হিসাবে অন্তত দু’বছর কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। আইসিসির অ্যাসোসিয়েট সদস্য দেশের জাতীয় দল, আইপিএল বা সম মানের বিদেশি কোনও লিগের ফ্র্যাঞ্চাইজ়ি, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট দল বা কোনও দেশের ‘এ’ দলের কোচ হিসাবে কাজ করলেও আবেদন করা যাবে। এ ক্ষেত্রে অন্তত তিন বছর কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকা দরকার। বিসিসিআইয়ের লেভেল ৩ অথবা সমতুল কোচিং ডিগ্রি থাকা বাধ্যতামূলক। বয়স হতে হবে ৬০ বছরের কম।

২) ভারতীয় দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব পালনের জন্য মুম্বইয়ে থেকে কাজ করতে হবে।

৩) ১ জুলাই, ২০২৪ থেকে ৩১ ডিসেম্বর, ২০২৭ পর্যন্ত দায়িত্বে থাকতে হবে। সহকারী হিসাবে পাওয়া যাবে ১৪ থেকে ১৬ জনকে।

৪) ভারতীয় দলের প্রশিক্ষণের মূল দায়িত্ব পালন করতে হবে। দলকে প্রস্তুত করার দায় তাঁরই।

৫) ভারতীয় দলকে বিশ্বমানের করে তুলতে হবে। দল যাতে যে কোনও ধরনের ক্রিকেটে, যে কোনও জায়গায় এবং যে কোনও পরিস্থিতিতে সফল হতে পারে। সিনিয়র এবং তরুণ ক্রিকেটারদের সঙ্গে কাজ করতে হবে। তিন ধরনের ক্রিকেটেই ভারতীয় দলের পারফরম্যান্সের সব দায় প্রধান কোচের। সহকারী কোচ এবং অন্য সাপোর্ট স্টাফদের দায়িত্ব ভাগ করে দিতে হবে। তাঁদের পারফরম্যান্সের দিকেও নজর রাখতে হবে। দলের সব ধরনের শৃঙ্খলারক্ষার দায়িত্বও নিতে হবে প্রধান কোচকে।

৬) বিশ্বের প্রথম সারির ক্রিকেটারদের সঙ্গে কাজ করার চাপ সামলাতে হবে। তাদের খেলার মানের সঙ্গে মানানসই ভাবে কাজ করতে হবে।

৭) সমর্থক, সম্প্রচারকারী সংস্থা, সংবাদমাধ্যম, অন্য জাতীয় দল (মহিলাদের বা অনূর্ধ্ব ১৯), বিসিসিআইয়ের সব কর্তা, বিসিসিআইয়েকর সিইও এবং জাতীয় নির্বাচক কমিটির সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রেখে কাজ করতে হবে। প্রয়োজনীয় যোগাযোগ রক্ষা করে চলতে হবে।

৮) দল এবং ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেওয়ার দক্ষতা থাকতে হবে।

৯) ভারতীয় দলের প্রধান কোচকে কৌশল তৈরির ক্ষেত্রে দক্ষ হতে হবে। দলকে ধারাবাহিক ভাবে সাফল্যের পথে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। দলের মধ্যে জয়ের সংস্কৃতি গড়ে তুলে শীর্ষে পৌঁছে দিতে হবে। দলের সকলকে দক্ষতার সঙ্গে সামলাতে হবে প্রধান কোচকে। পেশাদার ভাবে দলকে পরিচালনা করতে হবে। প্রত্যেক ক্রিকেটারকে যথাযথ গুরুত্ব দিতে হবে। সকলের উন্নতির ব্যাপারে যত্নশীল থাকতে হবে। ক্রিকেটারদের প্রতিভা, দক্ষতার সম্পূর্ণ ব্যবহার করতে হবে। দলকে সব সময় আত্মবিশ্বাসী রাখতে হবে। দলের জন্য স্বল্পমেয়াদি এবং দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা তৈরি করতে হবে। সব ধরনের ক্রিকেটের জন্য আলাদা আলাদা পরিকল্পনা তৈরির দক্ষতা থাকতে হবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE