Advertisement
২৮ নভেম্বর ২০২২
Hardik Pandya

Hardik Pandya: পাণ্ড্যর ‘শেষ হয়ে যাওয়া ক্রিকেটজীবন’ বাঁচিয়েছিলেন ধোনি

নিজের ক্রিকেটজীবনের শুরুটা ভাল হয়নি হার্দিকের। বল হাতে ভাল করতে পারেননি। ধোনি আস্থা রেখেছিলেন হার্দিকের উপর।

হার্দিকের পাশে ছিলেন ধোনি

হার্দিকের পাশে ছিলেন ধোনি ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৭ জুন ২০২২ ১৫:৩৪
Share: Save:

প্রথম ওভার বল করার পরেই মনে হয়েছিল, আর কোনও দিন হয়তো দেশের জার্সি গায়ে নামতে পারবেন না। তাঁর ক্রিকেটজীবন বাঁচিয়ে দেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। তখনকার তরুণ ক্রিকেটার হার্দিকের প্রতিভায় আস্থা রেখেছিলেন ধোনি। সেই আস্থার দাম এখনও রেখে চলেছেন হার্দিক।

Advertisement

২০১৬-য় অ্যাডিলেডে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে অভিষেক হয় হার্দিকের। প্রথম ওভারেই ২১ রান দিয়েছিলেন। ভেবেছিলেন, আর তাঁকে বল করতে দেওয়া হবে না। দেশের হয়েও হয়তো শেষ ম্যাচ খেলে ফেললেন। সেটা হয়নি।

এক সাক্ষাৎকারে হার্দিক বলেছেন, “ভারতীয় দলে প্রথম বার যোগ দেওয়ার সময় দেখি দলে সুরেশ রায়না, হরভজন সিংহ, যুবরাজ সিংহ, এমএস ধোনি, বিরাট কোহলী, আশিস নেহরার মতো ক্রিকেটার রয়েছে। ওদের দেখেই আমি বড় হয়েছি। আমি ভারতীয় দলে ঢোকার আগেই ওরা তারকা হয়ে গিয়েছে। তাই দলে ঢোকাটাই আমার কাছে কৃতিত্বের ছিল। আমিই বোধ হয় প্রথম বোলার যে প্রথম ওভারে ২১ রান দিয়েছিল। সত্যি বলতে, ভেবেছিলাম কেরিয়ার শেষ। নিজের শেষ ওভার বল করে ফেলেছি। কিন্তু মাহি ভাই আমাকে বাঁচায়। আমাদের প্রত্যেকের উপর ওর এতটা আস্থা ছিল বলেই এখন দল এই জায়গায় পৌঁছেছে।”

প্রথম ওভারে ২১ রান দিলেও হার্দিককে আরও দু’টি ওভার দিয়েছিলেন ধোনি। সেই দু’ওভারে ১৬ রানে দু’উইকেট নিয়েছিলেন হার্দিক। সেই সিরিজে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাননি। তবে ধোনি বুঝে গিয়েছিলেন ভারতীয় দল অলরাউন্ডার পেয়ে গিয়েছে। হার্দিক বলেছেন, “কেরিয়ারের তৃতীয় ম্যাচের পরেই ধোনি বলেছিল, আমি বিশ্বকাপের দলে থাকব। তৃতীয় ম্যাচ খেলেই বিশ্বকাপের দলে সুযোগ! আমার বিশ্বাসই হচ্ছিল না।”

Advertisement

ছ’বছর আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল হার্দিক পাণ্ড্যের।

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ

Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.