Advertisement
২৯ জানুয়ারি ২০২৩
BCCI

Virat Kohli: বিশ্ব টেস্ট ফাইনালে হার, কিন্তু ‘সেনা’র বিরুদ্ধে জয়, ২০২১ স্বপ্নের মতোই গেল কোহলীদের

দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়া। ক্রিকেটবিশ্বে এই চার দেশকে একত্রে ডাকা হয় ‘সেনা’ নামে।

কোহলীদের স্বপ্নের বছর।

কোহলীদের স্বপ্নের বছর। ছবি টুইটার

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩০ ডিসেম্বর ২০২১ ১৮:৪৪
Share: Save:

দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়া। ক্রিকেটবিশ্বে এই চার দেশকে একত্রে ডাকা হয় ‘সেনা’ নামে। ভারত-সহ এশিয়ার যে কোনও দেশের কাছেই এই চারটি দেশকে টেস্টে হারানো সব থেকে বড় পরীক্ষা। তবে বিরাট কোহলীর ভারত শুধু সেই কাজই করে দেখাল না, একই বছরে বিশ্বের সেরা চারটি দেশকে টেস্টে হারিয়ে দিল তারা। মোটের উপর ২০২১ স্বপ্নের মতোই কাটল ভারতীয় টেস্ট দলের কাছে।

Advertisement

এর মধ্যে নিউজিল্যান্ড বাদে বাকি তিনটি দেশের বিরুদ্ধেই জয় এসেছে বিপক্ষের মাঠে। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধেও সেটা হতে পারত, যদি না কোহলীর ভারত লর্ডসে বিশ্ব টেস্ট ফাইনালে হেরে যেত। ওই ফাইনালে হারের বদলা কিছুদিন আগেই নিয়েছে ভারত। দক্ষিণ আফ্রিকায় উড়ে যাওয়ার আগে ঘরের মাঠে দ্বিতীয় টেস্টে হারিয়েছে তাদের। কিন্তু কাঁটার মতো তবু খচখচ করছে বিশ্ব টেস্ট ফাইনালের হার।

বছরের শুরুটা হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ায় সিরিজ জয় দিয়ে। ২০১৮ সালেও সে দেশে সিরিজ জিতেছিল ভারত। কিন্তু তখন অনেকেই বলেছিলেন, স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার-হীন (দু’জনেই বল বিকৃতি কাণ্ডে নির্বাসিত ছিলেন) অস্ট্রেলিয়াকে হারানো মোটেও কৃতিত্বের নয়! দু’বছর পরেই সেই সমালোচনার জবাব দেয় ভারত।

এ বছরের শুরুতে সিডনিতে টেস্ট ড্র করেছিল ভারত। চেতেশ্বর পুজারা, হনুমা বিহারী, রবিচন্দ্রন অশ্বিনের ব্যাট হাতে লড়াই করে ম্যাচ বাঁচানো এখনও লোকের চোখে ভাসে। পরের টেস্টেই গাব্বায় দুর্গে ফাটল ধরায় ভারত। ৩৩ বছর যে মাঠে অস্ট্রেলিয়া অপরাজিত ছিল, সেখানেই ঋষভ পন্থের অসাধারণ ইনিংসের সৌজন্যে শেষ দিনে জয় হাসিল করে নেয় ভারত। সিরিজ জেতে ২-১ ব্যবধানে। প্রথম টেস্টের পরেই দেশে ফিরে এসেছিলেন কোহলী। তাঁকে ছাড়াই এই সিরিজ জয়।

Advertisement

এরপরেই অবশ্য হোঁচট খায় ভারত। বৃষ্টিবিঘ্নিত বিশ্ব টেস্ট ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের কাছে লর্ডসে হেরে যায় তারা। কিন্তু হাল ছাড়েনি। কিছুদিন বিরতির পরেই ছিল ইংল্যান্ড সিরিজ। ট্রেন্ট ব্রিজে প্রথম টেস্ট ড্র হওয়ার পর লর্ডসে ইংল্যান্ডকে ১৫১ রানে হারিয়ে সিরিজে এগিয়ে যায় ভারত। ইংল্যান্ডও ছেড়ে কথা বলেনি। হেডিংলেতে তারা ভারতকে ইনিংস এবং ৭৬ রানে হারিয়ে দেয়।

কিন্তু কোহলীর ভারত পিছিয়ে আসেনি। পরের ম্যাচেই ওভালে ইংল্যান্ডকে ১৫৭ রানে হারিয়ে ফের সিরিজে এগিয়ে যায় তারা। কপিল দেবের পর দ্বিতীয় ভারতীয় অধিনায়ক হিসেবে বিরাট কোহলী ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তাদের মাঠে একই সিরিজের দু’টি ম্যাচে জেতেন। করোনার কারণে ম্যাঞ্চেস্টারের টেস্ট বাতিল হয়ে যায়, যা হওয়ার কথা রয়েছে আগামী বছর।

মাঝে আইপিএল, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর নিউজিল্যান্ড টেস্ট সিরিজ খেলতে আসে ভারতে। কানপুরে প্রথম টেস্টে অসাধারণ লড়াই করে ম্যাচ বাঁচিয়ে দেন নিউজিল্যান্ডের রচিন রবীন্দ্র এবং অজাজ পটেল। কিন্তু দ্বিতীয় টেস্টে ভারতের জয় আটকানো যায়নি। প্রথম ইনিংসে অজাজ ১০টি উইকেট নিয়ে ইতিহাসের পাতায় নাম তুলেছিলেন। কিন্তু ব্যাটারদের ব্যর্থতায় ৩৭২ রানে টেস্ট হারে নিউজিল্যান্ড। রানের বিচারে সেটাই ভারতের বৃহত্তম জয়।

স্বপ্নের ২০২১ শেষ হল দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সেঞ্চুরিয়নের জয় দিয়ে। এর আগে দু’বারই এই মাঠে খেলে পর্যুদস্ত হয়েছে ভারত। কিন্তু বোলারদের দাপটে তৃতীয় বার খালি হাতে ফিরতে হচ্ছে না তাদের।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.