Advertisement
০৩ মার্চ ২০২৪
Pakistan Cricket

পাকিস্তান ক্রিকেটে চরম নাটক! গড়াপেটায় দোষীকে নির্বাচকের দায়িত্ব দেওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বরখাস্ত

ম্যাচ গড়াপেটায় দোষী প্রমাণিত ক্রিকেটারকে নির্বাচক কমিটিতে জায়গা দিয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আবার তাঁকে বরখাস্ত করে দেওয়া হল।

cricket

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। —ফাইল চিত্র

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
শেষ আপডেট: ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ ১০:২৯
Share: Save:

পাকিস্তান ক্রিকেটে আবার নাটক। এ বার ম্যাচ গড়াপেটায় দোষী প্রমাণিত প্রাক্তন ক্রিকেটার সলমন বাটকে নির্বাচক কমিটিতে জায়গা দেওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাঁকে বরখাস্ত করা হয়েছে। শুক্রবার সলমনকে নির্বাচক কমিটির পরামর্শদাতা হিসাবে নিয়োগ করেছিলেন প্রধান নির্বাচক ওয়াহাব রিয়াজ। শনিবার তাঁকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

শুক্রবার নির্বাচক কমিটির জন্য তিন জন পরামর্শদাতা নিযুক্ত করেছিলেন ওয়াহাব। সেখানে কামরান আকমল, রাও ইফতিখার অঞ্জুমের পাশাপাশি রাখা হয়েছিল সলমনকে। শনিবার একটি সাংবাদিক বৈঠক করে সিদ্ধান্ত বদলের কথা জানিয়ে দেন ওয়াহাব। তিনি বলেন, ‘‘পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের কোনও পদে নেই সলমন। ও খুব ভাল ক্রিকেটার। গত ২-৩ বছরে পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটে অনেক যোগদান রয়েছে সলমনের। ওর মতামত নেওয়ার জন্যই ওকে নিয়ে এসেছিলাম। সেই সিদ্ধান্ত বদলেছি। এটা সম্পূর্ণ আমার সিদ্ধান্ত।’’

ওয়াহাব জানিয়েছেন, সলমনকে দায়িত্ব দেওয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠেছিল। সেটা ঠিক নয়। নির্বাচক প্রধান বলেন, ‘‘সলমনকে দায়িত্ব দেওয়ায় অনেকে বলেছিল, আমি স্বজনপোষণ করেছি। কিন্তু সেটা ঠিক নয়। সলমনের ক্রিকেটীয় মস্কিষ্কের কারণেই ওকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এখন আর ও কোনও দায়িত্বে নেই। সেটা সলমনকে জানিয়ে দিয়েছি।’’

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড সূত্রে খবর, এই সিদ্ধান্তের নেপথ্যে পাকিস্তানের অন্তর্বর্তী প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার উল হক কাকরের ভূমিকা রয়েছে। তিনি নাকি সলমনের নিযুক্তি ভাল ভাবে নেননি। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের ‘প্যাট্রন ইন চিফ’ তিনি। তাই তাঁর মতামতের যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ পেয়েই নাকি সলমনকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এমনটাই জানিয়েছেন পাক বোর্ডের এক আধিকারিক।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE