Advertisement
০৩ অক্টোবর ২০২৩
Champions League

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে অদ্ভুত কারণে ম্যাচ শুরু দেরিতে! শেষ আটে চেলসি, বেনফিকা

প্রথম পর্বের ম্যাচে হারলেও দ্বিতীয় পর্যায়ে ঘরের মাঠে জিতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল চেলসি। সহজ জয়ে শেষ আটে জায়গা করে নিয়েছে বেনফিকাও।

Rahim Sterling celebrates after scoring goal against Dortmund

বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের বিরুদ্ধে গোল করেছেন চেলসির রহিম স্টার্লিং (বাঁ দিকে)। গোল করে উল্লাস সতীর্থের সঙ্গে। ছবি: টুইটার

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০৮ মার্চ ২০২৩ ০৯:৫৭
Share: Save:

প্রথম পর্বের খেলায় হেরে গিয়েছিল চেলসি। কিন্তু দ্বিতীয় পর্বে ঘরের মাঠে জয়ে ফিরল তারা। দুই পর্ব মিলিয়ে বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল চেলসি। অন্য দিকে বড় জয় পেয়েছে পর্তুগালের ক্লাব বেনফিকাও। ক্লাব ব্রাগকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে জায়গা করে নিয়েছে তারা।

প্রথম পর্বের খেলায় ডর্টমুন্ড ১-০ গোলে হারিয়েছিল চেলসিকে। মঙ্গলবার স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে খেলা শুরু হতে দেরি হয়। দর্শকদের ভিড়ে ডর্টমুন্ডের টিম বাস মাঠে ঢুকতে দেরি করে। ১৫ মিনিট পরে খেলা শুরু হলেও শেষ পর্যন্ত ঘরের মাঠে বাজিমাত করে চেলসি। ২-০ (সব মিলিয়ে ২-১) গোলে জেতে তারা। চেলসির হয়ে গোল করেন রহিম স্টার্লিং ও কাই হাভের্ৎজ়।

শেষ ৭ ম্যাচের মধ্যে মাত্র ১টি ম্যাচ জিতেছিল চেলসি। তাই তাদের চাপ ছিল বেশি। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে জ্বলে উঠলেন ফুটবলাররা। ৪৩ মিনিটের মাথায় গোল করে চেলসিকে এগিয়ে দেন স্টার্লিং। বিরতির পরে দলের দ্বিতীয় গোল করেন হাভের্ৎজ়। পেনাল্টি থেকে গোল করেন তিনি। দু’বার পেনাল্টি নিতে হয় তাঁকে। প্রথম বার শট মারার আগে প্রতিপক্ষ ফুটবলার বক্সে ঢুকে পড়ায় আরও এক বার তাঁকে শট মারতে হয়। কিন্তু মাথা ঠান্ডা রেখে গোল করেন তিনি।

চেলসিতে যোগ দেওয়ার পরে ডর্টমুন্ডের বিরুদ্ধে খেলতে নেমেছিলেন ফের্নান্দেস। মাঝমাঠে খেলেন তিনি। নতুন ক্লাবের হয়ে শুরুটা ভালই হয়েছে ফের্নান্দেসের। সতীর্থদের সঙ্গে বোঝাপড়া ভাল ছিল। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে ফাউল করায় হলুদ কার্ড দেখতে হয় তাঁকে। ফের্নান্দেসকে অবশ্য পুরো ৯০ মিনিট খেলাননি কোচ।

অন্য দিকে ফের্নান্দেসের পুরনো ক্লাব বেনফিকার হয়ে নজর কাড়লেন গনসালো রামোস। গত বিশ্বকাপে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর বদলে পর্তুগাল দলে সু‌যোগ পেয়ে সুইৎজ়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিক করেছিলেন তিনি। বেনফিকার হয়ে ক্লাব ব্রাগের বিরুদ্ধে জোড়া গোল করলেন তিনি। সহজেই ৫-১ গোলে (সব মিলিয়ে ৭-১) ব্রাগকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিল বেনফিকা।

পর্তুগালের ক্লাবের হয়ে বাকি তিনটি গোল করেন রাফা সিলভা, জোয়াও মারিয়ো ও ডেভিড নেরেস। মারিয়ো চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পর পর পাঁচটি ম্যাচে গোল করলেন। এর আগে বেনফিকার হয়ে এই নজির ছিল একমাত্র ইউসেবিয়োর। বেনফিকার সামনে দাঁড়াতে পারেনি ব্রাগ। হেরে মাঠ ছাড়তে হয় তাঁদের।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE