Advertisement
১৪ জুলাই ২০২৪
East Bengal

ম্যাচে নামার আগে সমস্যায় ইস্টবেঙ্গল

শনিবার সন্ধ্যায় অনুশীলন করার জন্য ইস্টবেঙ্গলকে দেওয়া হয়েছিল কোট্টাপাড়ি স্টেডিয়াম। মঞ্জেরি থেকে ঘণ্টাখানেক দূরত্বের সেই মাঠে পৌঁছে বিস্মিত হয়ে যান ক্লেটন সিলভারা।

A photograph of the East Bengal Team

মহড়া: ওড়িশা ম্যাচের প্রস্তুতিতে ইস্টবেঙ্গলের ফুটবলাররা।  ছবি: টুইটার।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৯ এপ্রিল ২০২৩ ০৯:২২
Share: Save:

আজ, রবিবার ওড়িশা এফসির বিরুদ্ধে সুপার কাপের প্রথম ম্যাচ ইস্টবেঙ্গল খেলবে মঞ্জেরিতে। অথচ ম্যাচের আগের দিন সাংবাদিক বৈঠক করতে লাল-হলুদ কোচ স্টিভন কনস্ট্যান্টাইনকে যেতে হল প্রায় আড়াই ঘণ্টা দূরে কোঝিকোড়ে!

শনিবার সন্ধ্যায় অনুশীলন করার জন্য ইস্টবেঙ্গলকে দেওয়া হয়েছিল কোট্টাপাড়ি স্টেডিয়াম। মঞ্জেরি থেকে ঘণ্টাখানেক দূরত্বের সেই মাঠে পৌঁছে বিস্মিত হয়ে যান ক্লেটন সিলভারা। স্টেডিয়ামের দরজা বন্ধ। ছিলেন না প্রতিযোগিতার আয়োজকদের তরফেও কেউ। লাল-হলুদ শিবিরের অভিযোগ প্রায় মিনিট কুড়ি অপেক্ষার পরে এক ব্যক্তি এসে ফুটবলারদের মাঠে নিয়ে যান মাছের বাজারের মধ্যে দিয়ে! এখানেই শেষ নয়। মাঠে নাকি পর্যাপ্ত আলোও ছিল না। ওড়িশার বিরুদ্ধে ম্যাচের আগে রীতিমতো বিপর্যস্ত মশালবাহিনী।

আইএসএলে এই মরসুমে ওড়িশার কাছে দুই পর্বেই হেরেছে ইস্টবেঙ্গল। প্রথম সাক্ষাতে ফল ছিল ২-৪। দ্বিতীয় ম্যাচে হার ১-৩ গোলে। বিদায় নিশ্চিত হয়ে যাওয়া সত্ত্বেও স্টিভন মরিয়া জয় দিয়ে সুপার কাপে যাত্রা শুরু করতে। কিন্তু ম্যাচের চব্বিশ ঘণ্টা আগে একের পর এক ঘটনায় ক্ষুব্ধ লাল-হলুদের ব্রিটিশ কোচ। সাংবাদিক বৈঠকে স্টিভন বলেছেন, ‘‘এই সাংবাদিক বৈঠকে আসতে গাড়িতে আমার দু’ঘণ্টার বেশি সময় লেগেছে। ফিরতেও একই সমস্যা হবে। এর পরে অনুশীলন করতে যেতে লাগবে আরও এক ঘণ্টা।’’

সুপার কাপের নিয়ম নিয়েও অসন্তোষ জানিয়েছেন তিনি। বলেছেন, ‘‘আইএসএল ও আই লিগের দলগুলিকে নিয়ে সুপার কাপ সারা বছর ধরে হওয়া উচিত। এখানে আমরা তিনটে করে ম্যাচ খেলব। এ ভাবে হয় না। নক-আউট হওয়া উচিত এই প্রতিযোগিতা।’’ যোগ করেছেন, ‘‘আইএসএলের মাঝেই সুপার কাপ হওয়া উচিত। আসলে এই প্রতিযোগিতা এমন ভাবে করা হচ্ছে যাতে এএফসিকে দেখানো যায় যে ক্লাবগুলি অনেক ম্যাচ খেলছে।’’

পরিস্থিতি যত প্রতিকূলই হোক, লাল-হলুদ সমর্থকরা রবিবার ওড়িশার বিরুদ্ধে বদলে যাওয়া ইস্টবেঙ্গলকে দেখার আশায় বুক বাঁধছেন। ক্লেটনরা কি পারবেন প্রতিবেশি রাজ্যের দলকে হারিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে? স্টিভন বলছেন, ‘‘আইএসএলে দু’বার দেখা হয়েছিল। প্রথমবার আমাদের জেতা উচিত ছিল, কিন্তু হেরেছিলাম এবং দ্বিতীয়বার ম্যাচটা ড্র হতে পারত, তবু হেরে যাই। আশা করছি এ বার ছবি পাল্টাবে।’’

কলকাতার আর এক প্রধান এটিকে-মোহনবাগানের প্রথম ম্যাচ গোকুলম এফসির বিরুদ্ধে সোমবার। আজ, রবিবার কেরল রওনা হওয়া কথা আইএসএল চ্যাম্পিয়নদের।

বেঙ্গালুরুর ড্র: সুপার কাপের প্রথম ম্যাচেই আটকে গেলেন সুনীল ছেত্রীরা। শ্রীনিধি ডেকান এফসির বিরুদ্ধে হাভিয়ের হার্নান্দেস ১০ মিনিটে এগিয়ে দিয়েছিলেন বেঙ্গালুরুকে। ২১ মিনিটে সমতা ফেরান ফয়সল শায়েস্তা।

অন্য ম্যাচে কেরল ব্লাস্টাস ৩-১ হারিয়ে দিয়েছে রাউন্ডগ্লাস পঞ্জাব এফসিকে।

রবিবার সুপার কাপে: ইস্টবেঙ্গল বনাম ওড়িশা এফসি (রাত, ৮.৩০)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Odisha FC East Bengal football Super cup
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE