Advertisement
২৯ মে ২০২৪
Qatar World Cup 2022

Qatar World Cup: কাতারে নতুন প্রযুক্তি! মেসি-রোনাল্ডোদের কাজ আরও কঠিন

প্রতিটি বিশ্বকাপেই কিছু না কিছু নতুন প্রযুক্তি আসছে। কাতারও তার ব্যতিক্রম নয়। ফুটবলকে আরও নিখুঁত করে তোলার চেষ্টা চলছে।

মেসি-রোনাল্ডোদের কাজ কঠিন।

মেসি-রোনাল্ডোদের কাজ কঠিন।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ০২ জুলাই ২০২২ ১৮:৪৩
Share: Save:

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, লিয়োনেল মেসিরা এ বার জালে বল জড়ালেও গোল বাতিল হয়ে যেতে পারে। সৌজন্যে নয়া প্রযুক্তি। কাতার বিশ্বকাপে ফিফা এমন প্রযুক্তি আনতে চলেছে, যেখানে অফসাইড ফাঁকি দিয়ে গোল করা কার্যত অসম্ভব। সামান্যতম ফাঁক থাকলেও তা ধরা পড়ে যাবে যন্ত্রে। ফলে আগাম আনন্দ করার কোনও উপায়ই থাকছে না।

কাতার বিশ্বকাপে সেমি অটোমেটেড অফসাইড টেকনোলজি (এসএওটি) আনতে চলেছে ফিফা। গোটা মাঠজুড়ে একাধিক ক্যামেরা ছাড়াও বলে লাগানো থাকবে সেন্সর। ফলে সহজেই স্টেডিয়ামের থ্রিডি স্ক্রিনে সব ঘটনা ফুটে উঠবে, যাতে দর্শকরা আম্পায়ারদের নেওয়া সিদ্ধান্তের কারণ বুঝতে পারেন। কাতারের স্টেডিয়ামগুলির ছাদে ১২টি ক্যামেরা লাগানো থাকবে, যা সেকেন্ডে ৫০ বার ফুটবলারদের থেকে ২৯টি ডেটা পয়েন্ট সংগ্রহ করবে। এ ক্ষেত্রে আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্সের সাহায্য নেওয়া হবে। বলের মধ্যে ‘চিপ’ থাকায় ঠিক কখন সেটিতে শট নেওয়া হচ্ছে, তার পুঙ্খানুপুঙ্খ তথ্য পাওয়া সম্ভব হবে। এতে ফুটবলারের অবস্থান অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়া আরও সহজ হবে।

২০১০ সালে জার্মানি বনাম ইংল্যান্ডের ম্যাচে একটি নিশ্চিত গোল বাতিল হয়েছিল। পরের বিশ্বকাপেই গোল লাইন প্রযুক্তি আনা হয়, যাতে বল গোললাইন পেরোলে সহজেই বোঝা যেত। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে ভিডিয়ো অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি (ভার) চালু করা হয়, যেখানে অফসাইড তো বটেই, আরও বিভিন্ন প্রযুক্তি সহজে দেখা সম্ভব হয়। কাতার বিশ্বকাপের প্রযুক্তি সেটাকেই আরও এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে গেল বলে মনে করা হচ্ছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE