Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

১২০ মিনিটের অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে শনিবার বদলার যুদ্ধে নামছে এটিকে মোহনবাগানের বঙ্গব্রিগেড

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১১ মার্চ ২০২১ ২০:১৯
শনিবারের ফাইনালের আগে অনুশীলনে মগ্ন এটিকে মোহনবাগান ফুটবলাররা

শনিবারের ফাইনালের আগে অনুশীলনে মগ্ন এটিকে মোহনবাগান ফুটবলাররা
ছবি টুইটার

ফের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার থেকে প্রস্তুতি শুরু করে দিল এটিকে মোহনবাগান। মুম্বই সিটি এফসি-র বিরুদ্ধে শনিবার ফাইনাল খেলতে নামার আগে সেট পিসে জোর দিচ্ছেন এটিকে মোহনবাগান কোচ আন্তনিয়ো লোপেজ হাবাস। মুম্বই সিটি এফসি-র বিরুদ্ধে বদলা নিতে চান এটিকে মোহনবাগান কোচ। ফুটবলারেদরও সেটা বুঝিয়ে দিয়েছেন।

গোলরক্ষক অরিন্দম ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘মুম্বইয়ের কাছে লিগের দুটো ম্যাচ হেরেছি। ফাইনালে পাল্টা জবাব দিতে হবে। কথায় আছে যার শেষ ভাল তার সব ভাল। ফাইনালে ট্রফি জিততে পারলে সবাই সব ভুলে যাবে। আমাদের কাছে এটা যুদ্ধ। সেই যুদ্ধ জিততেই হবে। নর্থ ইস্টের বিরুদ্ধে সেমিফাইনালে চাপের মধ্যেও জয় পেয়েছি আমরা। তাই ফাইনালে জেতার ব্যাপারে আমরা আশাবাদী। মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে গ্রুপ লিগের ম্যাচে তিনটে গোল খেয়েছি। তবে সবটাই আমাদের দোষে। ক্লান্তির জন্যই এটা হয়েছে। মুম্বইও গ্রুপ লিগের ম্যাচে গোল খেয়েছে, ম্যাচও হেরেছে। তাই ওরা শক্তিশালী হলেও অপরাজেয় নয়। গতবার আমরা লিগের ম্যাচে চেন্নাইয়নের কাছে হারলেও ফাইনালে আমরা ওদের হারিয়েছিলাম। এই ম্যাচ আমার কাছে একই সঙ্গে মানসিক ও কৌশলগত লড়াই। এই ম্যাচে নামার আগে ১২০ মিনিটের অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে মাঠে নামব। তবে ৯০ মিনিটেই ম্যাচ শেষ হোক এটাই চাই।’’

একই ভাবে মুম্বইকে উপযুক্ত জবাব দিতে নিজেকে তৈরি করছেন আরেক বঙ্গসন্তান প্রীতম কোটাল। তিনি বলেন, ‘‘মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে গ্রুপ লিগে জিততে পারিনি। তাই আক্ষেপ অবশ্যই আছে। শনিবার জিতে উপযুক্ত জবাব দিয়ে কলকাতায় ফিরতে চাই। অল্পের জন্য এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার ছাড়পত্র পাইনি। সেই কষ্ট ভুলতে শনিবার জিততে চাই। এই ম্যাচটা চ্যালেঞ্জ হিসেবেই নিচ্ছি। গতবারও চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলাম। তবে এবার সবুজ মেরুন জার্সি গায়ে নামব। এই জার্সির ঐতিহ্য ও গুরুত্বই একেবারে আলাদা।’’

Advertisement

মুম্বই সিটি এফসি সেট পিসে ভয়ঙ্কর। সেই কারণেই সতর্ক প্রীতম। তিনি বলেন, ‘‘ওদের বক্সের আশেপাশে ফাউল করা যাবে না, লিগের ম্যাচে আমরা যে গোলগুলো খেয়েছি, সেগুলো একেবারেই আমাদের ভুলে। মোর্তাজা দারুণ ফুটবলার। ওকে নজরে রাখতে হবে আমাদের। ওকে যদি আমরা আটকে রাখতে পারি তবে আমাদের রয় কৃষ্ণ, মনবীর, ডেভিড উইলিয়ামসরা ঠিক গোল করে দেবে।’’

কলকাতায় ট্রফি নিয়ে ফেরার জন্য মুখিয়ে আছেন শুভাশিস বসু। তিনি বলেন, ‘‘পাঁচ ছয় মাস হয়ে গেল আমরা গোয়ায় হোটেলে রয়েছি। এবার ট্রফি জিতে কলকাতা ফিরতে চাই। আমি যখন বেঙ্গালুরুর হয়ে খেলতাম তখন ফাইনালে উঠলেও কার্ড সমস্যায় সেই ম্যাচে নামতে পারিনি। ট্রফিটাও পাইনি আমরা। আমার সতীর্থরা গতবার ট্রফি জেতার আনন্দ পেলেও আমি একবারও চ্যাম্পিয়ন হতে পারিনি। সেই স্বপ্ন এবার সবুজ মেরুন জার্সি গায়ে পূরণ করতে চাই। শনিবার কোটি কোটি মানুষ টিভির সামনে বসে থাকবেন। আর পেছনে ফিরে তাকাতে চাই না।’’

প্রণয় হালদার মনে করেন লিগের ম্যাচ অতীত, মুম্বই সিটি এফসি ও এটিকে মোহনবাগান দুই সেরা দলের মধ্যে খেলা হবে। তবে ডিফেন্স সামলেই আক্রমণ করতে চান তিনি। প্রণয় বলেন, ‘‘হাড্ডাহাড্ডি ম্যাচ হবে। আমাদের গোল খাওয়া চলবে না একেবারেই। হুগো বুমো ও ফিরছে ওদের দলে। সঙ্গে মোর্তাজা রয়েছে। তাই গোল খাওয়া যাবে না। এক ইঞ্চিও জমি ছাড়ব না আমরা।’’

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement