Advertisement
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Muhammad Musa

জঘন্যতম বোলিং আক্রমণ! পাকিস্তানকে নিয়ে এই মন্তব্য কে করলেন জানেন?

অ্যাডিলেড টেস্টে পাকিস্তানের পেসারদের মধ্যে উইকেট নিয়েছেন একমাত্র শাহিন শাহ আফ্রিদি। তিনি ৮৮ রানে নেন তিন উইকেট। মহম্মদ মুসা ২০ ওভারে দেন ১১৪ রান। আর মহম্মদ আব্বাস দেন ১০০ রান। ইয়াসির শাহও ওভার পিছু ছয়ের বেশি রান দেন। এই বোলিং আক্রমণ নিয়েই মন্তব্য করেছেন পন্টিং।

অভিষেক টেস্টে মহম্মদ মুসা হতাশ করেছেন। ছবি টুইটার থেকে নেওয়া।

অভিষেক টেস্টে মহম্মদ মুসা হতাশ করেছেন। ছবি টুইটার থেকে নেওয়া।

সংবাদ সংস্থা
অ্যাডিলেড শেষ আপডেট: ০২ ডিসেম্বর ২০১৯ ১০:২৬
Share: Save:

পাকিস্তানের বোলিং আক্রমণকে তাঁর দেখা জঘন্যতম হিসেবে চিহ্নিত করলেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক রিকি পন্টিং। অ্যাডিলেড টেস্টে পাকিস্তানের প্রথম এগারো নিয়েও প্রশ্ন তুললেন তিনি।

অ্যাডিলেড টেস্টে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে তিন উইকেটে ৫৮৯ রান তুলেছে অস্ট্রেলিয়া। বাঁ-হাতি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ৩৩৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। ১৬২ করেন লাবুশানে। পাকিস্তানের পেসারদের মধ্যে উইকেট নিয়েছেন একমাত্র শাহিন শাহ আফ্রিদি। তিনি ৮৮ রানে নেন তিন উইকেট। মহম্মদ মুসা ২০ ওভারে দেন ১১৪ রান। আর মহম্মদ আব্বাস দেন ১০০ রান। ইয়াসির শাহও ওভার পিছু ছয়ের বেশি রান দেন। এই বোলিং আক্রমণ নিয়েই মন্তব্য করেছেন পন্টিং।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ওয়েবসাইটে পন্টিং পরিষ্কার বলেছেন, “পাকিস্তানের বোলাররা খুব দুর্বল। টেস্টে কোনও দলের বোলিং আক্রমণ হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে ওরা ভয়াবহ। আমাদের দেশে খেলতে আসা কোনও দলের এত জঘন্য বোলিং আক্রমণ দেখেছি কি না, মনে পড়ছে না।”

আরও পড়ুন: লারার রেকর্ড ভাঙতে পারে রোহিতই, বলে দিলেন ওয়ার্নার​

আরও পড়ুন: সৌরভদের মেয়াদ বাড়াতে সুপ্রিম কোর্টেই যাচ্ছে বোর্ড

পাকিস্তান কেন প্রথম এগারোয় ১৬ বছর বয়সি নাসিম শাহকে রাখেনি তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন পন্টিং। অস্ট্রেলিয়ায় এসে প্রস্তুতি ম্যাচেও নজর কেড়েছিলেন নাসিম। তার পর প্রথম টেস্টেও তিনি সাড়া ফেলেন। অভিষেক টেস্টেই কাড়েন প্রশংসা। নাসিমের পরিবর্তে পাকিস্তান অ্যাডিলেডে খেলাচ্ছে ১৯ বছর বয়সি মহম্মদ মুসাকে। পন্টিংয়ের মনে হয়েছে মুসা এখনও টেস্টে বল করার মতো পরিণত হয়ে ওঠেননি। দু’বারের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক বলেছেন, “আমি তো বুঝতেই পারছি না যে কেন ১৬ বছরের নাসিম এই টেস্টে খেলছে না। পাকিস্তান খেলাচ্ছে মুসাকে। যে এর আগে মাত্র সাতটি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছে। ওকে তো আমার টেস্ট ম্যাচের বোলার বলেই মনে হচ্ছে না।”

কোথায় সমস্যা হচ্ছে পাকিস্তানের বোলারদের? পন্টিং বলেছেন, “ওদের বোলিংয়ে খুব একটা ভেদশক্তি নেই। উল্টোদিকে আমাদের ব্যাটিংয়ের রানের খিদে মারাত্মক। তার উপর আমাদের কন্ডিশনে খেলা। আর অস্ট্রেলিয়া এই মুহূর্তে বিশ্ব ক্রিকেটে নিজেদের ফের প্রতিষ্ঠা করার তাগিদ নিয়ে খেলছে। ফলে পাকিস্তান সব কিছু মিলিয়েই ঝড়ের মুখে পড়েছে।” এর খেসারতই পাকিস্তানকে অ্যাডিলেড টেস্টে দিতে হয়েছে বলে জানিয়েছেন পন্টিং।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE