×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

নিজের কাছে প্রমাণ করার তাগিদ ছিল, বলছেন রবীন্দ্র জাডেজা

সংবাদ সংস্থা
কটক২৩ ডিসেম্বর ২০১৯ ১১:২৩
ম্যাচ জিতিয়ে শার্দুলের সঙ্গে ফিরছেন জাডেজা। রবিবার কটকে। ছবি: এপি।

ম্যাচ জিতিয়ে শার্দুলের সঙ্গে ফিরছেন জাডেজা। রবিবার কটকে। ছবি: এপি।

নিজের কাছেই প্রমাণ করার ছিল নিজেকে। জানিয়েছেন রবিবার কটকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টেনশনের মুহূর্তে পরিণত ইনিংস খেলে ম্যাচ জিতিয়ে ফেরা রবীন্দ্র জাডেজা

৩১ বলে নট আউট ৩৯ রানের ইনিংস একইসঙ্গে ৫০ ওভারের ফরম্যাটে জাডেজার গুরুত্বকে তুলে ধরছে। ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে পরাজয়ের পর ভারতীয় দল জোর দিয়েছিল রিস্ট স্পিনারে। লেগস্পিনার যুজভেন্দ্র চহাল ও চায়নাম্যান কুলদীপ যাদবকে খেলানো হচ্ছিল। কিন্তু, তাঁদের উপর ভরসা ক্রমশ কমেছে। এখন একসঙ্গে দু’জনকে খেলানো প্রায় হয়ই না। ধীরে ধীরে টিম ম্যানেজমেন্টের ভাবনায় ফিরে এসেছেন জাডেজা। ওয়ানডে বিশ্বকাপেও খেলেছেন তিনি। চলতি বছরে একদিনের ক্রিকেটে ব্যাট হাতে তাঁর গড়ও বেশ ভাল, ৩৪.৩৩!

জাডেজা বলেছেন, “আমি যখনই সুযোগ পাই, নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করি। উন্নতির পথে থাকার লক্ষ্য থাকে। সীমিত ওভারের ক্রিকেটেও যে পারি, সেটা প্রমাণের তাগিদ থাকে। তবে বিশ্বের অন্য কারওর কাছে কিছু প্রমাণের নেই। বোলিং, ফিল্ডিং বা ব্যাটিং, যা-ই করি না কেন, সেরাটা দিতে চাই।”

Advertisement

রবিবার বিরাট কোহালি যখন আউট হয়েছিলেন, তখন জেতার জন্য ভারতের ২৩ বলে দরকার ছিল ৩০ রান। কোহালি তাঁকে উইকেটে টিকে থেকে জিতিয়ে ফেরার নির্দেশ দিয়ে গিয়েছিলেন। জাডেজা তাই করেওছেন। ক্রিজে আসা শার্দুল ঠাকুরকে গাইডও করেছিলেন। জাডেজা কী বলেছিলেন শার্দুলকে? জাডেজা বলেছেন, “বিরাট আউট হওয়ার পর নিজেকে বলেছিলাম যে শেষ বল পর্যন্ত থাকতে হবে উইকেটে। শার্দুলকে বলেছিলাম যে উল্টোপাল্টা শট খেলার দরকার নেই, ঠিকঠাক ব্যাট করলেই চলবে। টাইমিংয়ে জোর দিতে বলেছিলাম। উইকেট খুব ভাল ছিল। ব্যাটে দারুণ ভাবে আসছিল বল।”

Advertisement