তিন দিনেও রাজীব কুমারের আগাম জামিনের আবেদনের শুনানি শেষ হল না কলকাতা হাইকোর্টে। সোমবার সকালে ফের শুরু  হবে এই মামলার শুনানি। এ দিন সিবিআইয়ের আইনজীবীরা রাজীবের আবেদনের বিরোধিতা করেন বলে আদালত সূত্রে জানা যাচ্ছে। রুদ্ধদ্বার কক্ষে (ইন ক্যামেরা) হয় মামলার শুনানি। আইনজীবী মহলের ধারণা, সোমবার এই মামলার রায় ঘোষণা করতে পারে বিচারপতি সহিদুল্লা মুনশি ও বিচারপতি শুভাশিস দাশগুপ্তের ডিভিশন বেঞ্চ।

আলিপুর জেলা ও দায়রা আদালতে আগাম জামিনের আবেদন নাকচ হয়ে যাওয়ার পর, গত সোমবার হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন রাজীবের স্ত্রী সঞ্চিতা কুমার। বুধবার প্রথম এই মামলার শুনানি শুরু হয়। শুক্রবারও শুনানি হল। অবশ্য কলকাতা হাইকোর্ট রাজীবকে আত্মসমর্পণের পরামর্শ দিয়েছিল। মঙ্গলবার বিচারপতি সহিদুল্লা মুনশি ও বিচারপতি শুভাশিস দাশগুপ্তের বেঞ্চে অবিলম্বে শুনানির জন্য আবেদন জানান রাজীব কুমারের আইনজীবীরা। তখন বিচারপতি মুনশি ওই আইনজীবীদের উদ্দেশে বলেছিলেন, ‘‘জরুরি ভিত্তিতে শুনানির প্রয়োজন কেন মনে করছেন? যান, গিয়ে আত্মসমর্পণ করতে বলুন মক্কেলকে।’’

এক দিকে যেমন আইনি লড়াই চলছে রাজীব কুমার এবং সিবিআইয়ের মধ্যে। তেমনই রাজীবের খোঁজে তল্লাশিও চালাচ্ছেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। ইতিমধ্যেই ২৫ সেপ্টেম্বর রাজীবের ছুটির মেয়ার শেষ হয়েছে বলে সিবিআইয়ের কাছে তেমনই তথ্য রয়েছে। কিন্তু গত বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ২৬ সেপ্টেম্বর কাজে যোগ দেওয়ার কথা থাকলেও, রাজীব নিজের অফিসে (ভবানী ভবনে) যাননি। তিনি এখনও সিবিআইয়ের চোখে ‘পালাতক’। রাজীব কাজে যোগ গিয়েছিলেন কি না, তা জানতে ওই দিনই সিবিআইয়ের চার অফিসার ভাবনী ভবনে গিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন: সফ্‌ট ল্যান্ডিং নয়, চাঁদের বুকে আছড়েই পড়েছিল ‘বিক্রম’, দাবি করল নাসা