মহুয়ার নামে অশালীন মন্তব্য, ৪৮ ঘণ্টার নিষেধাজ্ঞা বিজেপি নেতার উপর
শুক্রবার রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক স়ঞ্জয় বসু বলেন, “বিজেপি সভাপতি মহাদেব সরকারের মিছিলে অংশ নেওয়ার উপর ৪৮ ঘণ্টা নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেল ৪টে থেকে আগামী রবিবার বিকেল ৪টে পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা থাকবে।”
Mohua And Mahadev

মহাদেব সরকার ও মহুয়া মৈত্র। —ফাইল চিত্র

বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে বিজেপির নদিয়া উত্তরের সাংগঠনিক জেলার সভাপতি মহাদেব সরকারের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করল নির্বাচন কমিশন। আগামী ৪৮ ঘণ্টা তিনি কোনও রকম মিছিলে অংশ নিতে পারবেন না। শুধু তাই নয়, সংবাদমাধ্যমে এবং সোশ্যাল সাইটেও কোনও মন্তব্য করাতেও নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে।

সম্প্রতি তিনি কৃষ্ণনগরের তৃণমূল প্রার্থী মহুয়া মৈত্রের বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্য করেন বলে মহাদেবের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে। বিষয়টি জানার পরে থানায় মহাদেব সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করার পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনে লিখিত অভিযোগ করেন মহুয়া। মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন মহাদেবকে শো-কজ করে। কিন্তু মহুয়া এখানেই থেমে থাকেননি। তিনি বুধবার সুপ্রিম কোর্টে মামলা করে আবেদন করেন, যাতে মহাদেব সরকার প্রচার করতে না পারেন।

সুপ্রিম কোর্টও কড়া পদক্ষেপ করার নির্দেশ দেয় কমিশনকে। শুক্রবার রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক স়ঞ্জয় বসু বলেন, “বিজেপি সভাপতি মহাদেব সরকারের মিছিলে অংশ নেওয়ার উপর ৪৮ ঘণ্টা নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেল ৪টে থেকে আগামী রবিবার বিকেল ৪টে পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা থাকবে।”

আরও পড়ুন: বাংলায় মমতাদিকেই দরকার, বিজেপির চালে ছিন্দওয়াড়া দখল নিয়ে বলছেন কমলপুত্র

আরও পড়ুন: ‘আমি শুধু একটি পার্টিতেই যোগ দিতে পারি’, মোদীর কটাক্ষ কী ভাবে ফেরালেন টুইঙ্কল?

এই সিদ্ধান্তে খুশি মহুয়া মৈত্র। তাঁর কথায়, ‘‘রুচিহীন ভাষায় বিজেপি নেতৃত্বরা মন্তব্য করে চলেছেন। কমিশন কড়া সিদ্ধান্ত নেওয়ায় আমি খুশি। এটা একটা উদাহরণ হতে চলেছে।’’ একই ভাবে কমিশনের এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, ‘‘নির্বাচন কমিশন যা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তা আমরা মেনে নিয়েছি।’’

গত ২২ এপ্রিল কৃষ্ণনগরের কলেজের মাঠে জনসভা করতে গিয়েছিলেন বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ। সেই মঞ্চে বক্তৃতা করার সময় মহাদেব সরকার কৃষ্ণনগর কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মহুয়া মৈত্রের বিরুদ্ধে আপত্তিকর ও অশালীন মন্তব্য করেন বলে অভিযোগ। এতে জনসমক্ষে মহুয়ার ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে বলে অভিযোগ তৃণমূলের।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত