৭ দিন গ্রেফতার করা যাবে না, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে সাময়িক স্বস্তি অর্জুন সিংহর
কার্যত যে কোনও সময় গ্রেফাতারির আশঙ্কা করছিলেন অর্জুন। সেই আশঙ্কাতেই গ্রেফতারি এড়াতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন অর্জুনের আইনজীবীরা।
Arjun Singh

সুপ্রিম কোর্টে স্বস্তি অর্জুন সিংহের। —ফাইল চিত্র

বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই তাঁর বিরুদ্ধে প্রচুর মামলা হয়েছে। সেই সব মামলায় সাময়িক স্বস্তি পেলেন অর্জুন সিংহ। আপাতত সাত দিন তাঁর গ্রেফতারিতে স্থগিতাদেশ জারি করল সুপ্রিম কোর্ট। গণনা কেন্দ্রে উপস্থিত থাকার জন্য গ্রেফতারি এড়াতে আর্জি জানিয়েছিলেন ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন। সেই আবেদনে বুধবার সায় দিয়েছে শীর্ষ আদালত।

এ বছরের এপ্রিলেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন ভাটপাড়ার প্রাক্তন বিধায়ক ও দাপুটে নেতা অর্জুন সিংহ। তার পর থেকে অর্জুনের বিরুদ্ধে অন্তত ২০টি ফৌজদারি মামলা দায়ের হয়েছে। কিন্তু অর্জুনের অভিযোগ, এই সব মামলা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন বলেই প্রতিশোধ পরায়ণ মনোভাব নিয়ে রাজ্যের শাসক দল তাঁর বিরুদ্ধে একের পর এক ফৌজদারি মামলা দিয়ে শায়েস্তা করার চেষ্টা করছে।

এর মধ্যেই গত ৬ মে পঞ্চম দফায় ভোটগ্রহণ হয়েছে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে। ওই দিন বিভিন্ন এলাকায় ছুটে বেড়াতে দেখা গিয়েছিল অর্জুন সিংহকে। তার পর সপ্তম তথা শেষ দফায় ১৯ মে ভাটপাড়া কেন্দ্রের উপনির্বাচন হয়েছে। লোকসভা নির্বাচনের চেয়েও বেশি অশান্তি-গন্ডগোল হয়েছে উপনির্বাচনে। ওই দিন নির্বাচন কমিশনও অর্জুন সিংহের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করার নির্দেশ দেয় পুলিশকে।

আরও পড়ুন: ‘গুন্ডামি করিস না, দরকার হলে আমাকে মার!’ অর্জুনকে ভিডিয়ো বার্তা মদনের

আরও পড়ুন: এনডিএকে রুখতে ফোনে নবীন, কেসিআর, জগন রেড্ডির সঙ্গে কথা পওয়ারের

এই সব মিলিয়েই কার্যত যে কোনও সময় গ্রেফাতারির আশঙ্কা করছিলেন অর্জুন। সেই আশঙ্কাতেই গ্রেফতারি এড়াতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন অর্জুনের আইনজীবীরা। শীর্ষ আদালতের কাছে তাঁদের যুক্তি ছিল, অভিযুক্ত নিজে প্রার্থী। গ্রেফতার করা হলে তিনি ২৩ মে গণনাকেন্দ্রে উপস্থিত থাকতে পারবেন না। এই যুক্তি মেনে নিয়ে অর্জুন সিংহকে কার্যত সাত দিনের সময় দিল শীর্ষ আদালত। তবে একই সঙ্গে অর্জুনের আইনজীবীকে এলাকার অশান্তির কথাও স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন শীর্ষ আদালতের বিচারপতিরা।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত