• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গাড়ি ঘিরে ‘গো ব্যাক’ দেবশ্রীকে

Debasree Chaudhuri
মুখোমুখি: গাড়ি ঘিরে চলে বিক্ষোভ। রায়গঞ্জ। নিজস্ব চিত্র

নতুন নাগরিকত্ব আইনের সমর্থনে বাড়ি বাড়ি প্রচার চালানোর সময় বিক্ষোভের মুখে পড়লেন রায়গঞ্জের বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী। বুধবার বেলা সাড়ে ১২টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে রায়গঞ্জ শহরের ২০ নম্বর ওয়ার্ডের ইন্দিরা কলোনিতে।

বিজেপির অভিযোগ, নতুন ওই আইন বাতিলের দাবিতে এ দিন তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা কেন্দ্রীয় নারী ও শিশুকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রীর গাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান। দেবশ্রীর সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের বচসাও শুরু হয়। অভিযোগ, তৃণমূল নেতা-কর্মীরা ‘দেবশ্রী গো ব্যাক’ ও ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জিন্দাবাদ’ স্লোগান দিতে শুরু করেন। বিজেপির নেতা-কর্মীরা পাল্টা বিজেপি ও নরেন্দ্র মোদীর সমর্থনে স্লোগান দেন।

স্থানীয় সূত্রে খবর, দু’পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও ধাক্কাধাক্কি শুরু হয়ে যায়। বিজেপির নেতা-কর্মীরা কোনও ভাবে দেবশ্রীর গাড়ি সেখান থেকে বের করে কলেজপাড়া এলাকায় ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের দিকে রওনা

করিয়ে দেন।

বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, এ দিন সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ বিজেপির জনাপঞ্চাশেক নেতা-কর্মীকে নিয়ে শহরের ২২ নম্বর ওয়ার্ডের বন্দরশ্মশান কলোনির একাধিক বাড়ি ও দোকানে নতুন নাগরিকত্ব আইনের সমর্থনে প্রচার চালান দেবশ্রী। লিফলেটও বিলি করেন। এর পরে তিনি ২০ নম্বর ওয়ার্ডের ইন্দিরা কলোনির কয়েকটি বাড়িতে গিয়ে একই ভাবে প্রচার চালান। অভিযোগ, সেই কর্মসূচির পরে গাড়িতে বাগডোগরা বিমানবন্দরে যাওয়ার পথে বিক্ষোভের মুখে পড়েন দেবশ্রী।

কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীকে ঘিরে তৃণমূলের বিক্ষোভের অভিযোগ মানতে চাননি ওই ওয়ার্ডে শাসকদলের মহিলা সংগঠনের সভানেত্রী মঞ্জু রাহা। তাঁর বক্তব্য, নতুন নাগরিকত্ব আইন পাশ হওয়ার পরে নাগরিকত্ব প্রমাণে বাসিন্দারা সমস্ত কাজ ফেলে প্রতি দিন আধার, ভোটার ও রেশন কার্ডে তথ্য সংশোধনের জন্য ডাকঘর, ব্যাঙ্ক ও সরকারি দফতরে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়াচ্ছেন। তাঁদের হয়রানি ও দুর্ভোগ চরমে উঠেছে। সে সবের প্রতিবাদে এ দিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে কাছে পেয়ে বাসিন্দারা ওই আইন বাতিলের দাবি জানান।

ওই ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর অর্ণব মণ্ডলের বক্তব্য, ‘‘লোকসভা ভোটের আগে দেবশ্রী রায়গঞ্জ থেকে কলকাতাগামী সকালে একটি ট্রেন চালু করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। এখনও তা চালু না হওয়ায় এ দিন স্থানীয় বাসিন্দারা ক্ষোভপ্রকাশ করেছেন।

দেবশ্রীর অভিযোগ, ‘‘তৃণমূল নতুন ওই আইন নিয়ে বাসিন্দাদের ভুল বোঝাচ্ছে। আর সঠিক সময়েই ট্রেন চালু হবে।’’ বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘যাঁরা নৈতিক এবং গণতান্ত্রিক ভাবে হেরে গিয়েছেন, তাঁরা তাঁকে শারীরিক ভাবে আটকানোর চেষ্টা করেছেন।’’ বিজেপির জেলা সভাপতি বিশ্বজিৎ লাহিড়ী ও দলের রায়গঞ্জ শহর কমিটির প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ প্রুস্তির অভিযোগ, জনসমর্থন হারানোর আঁচ করে তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা এ দিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন