আন্তর্জাতিক মাদক বিরোধী দিবসে সচেতনতা প্রচার চলছে। আর সেই মিছিলেই থানার আইসি কি না ‘মত্ত’ অবস্থায় টলতে টলতে বক্তৃতা দিচ্ছেন! আইসি-র এই কীর্তি দেখে চোখ কপালে ওঠে মিছিলে অংশগ্রহণকারীদের। শেষে পরিস্থিতি সামাল দিতে, আইসি-কে বাড়ি চলে যেতে বলেন উপস্থিত পুলিশ কর্তারা।

বারুইপুর পুলিশেরতরফে বুধবার মাদকবিরোধী সচেতনতার প্রচারের জন্যে সোনারপুর থেকে বৈকণ্ঠপুর পর্যন্ত একটি মিছিলের আয়োজন করা হয়। সেখানে সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ অংশ নিয়েছিলেন। হাজির ছিলেন বারুইপুর পুলিশ জেলার সুপার রশিদমুনির খান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইন্দ্রজিৎ বসুও।অভিযোগ, ওই মিছিলে সোনারপুর থানার আইসি অসিতবরণ কুইল্যা ‘মত্ত’ অবস্থায় হাঁটছিলেন। প্রথম থেকেই অসংলগ্ন কথাবার্তা বলছিলেন তিনি। একটা সময়ে মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে তাঁকে বক্তৃতা দিতেও দেখা যায়। এর পর তাঁকে বাড়ি ফিরে যেতে বলা হয়।

পুলিশ সুপার রশিদ মুনির খান বলেন, ‘‘ওই পুলিশ অফিসারকে সাসপেন্ড করা হয়েছে।’’ পুলিশ সূত্রে খবর, তাঁর বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্তও শুরু হয়েছে। তবে অসিতবরণ ঘনিষ্ঠ মহলে জানিয়েছেন, তাঁর বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে সে ব্যাপারে তিনি কিছু জানেন না।

আরও পডু়ন: ওদের হাত ধরার কথা বলেননি মমতা: তৃণমূল, বাম-কংগ্রেস বলল বলেছিলেন, তবে ‘নো চান্স’

আরও পড়ুন: গুলি চালিয়েছে পুলিশই, বিজেপির দাবি ঘিরে ফের রণক্ষেত্র গুড়াপ

স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, সোনারপুর থানার আইসি-র বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে নানা অভিযোগ উঠেছে। তিনি আইসি থাকাকালীনএলাকায় জুয়া-গাঁজার ঠেক নতুন করে গজিয়ে উঠছে। যারা এই ধরনের কারবার চালাচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয় না। বেআইনি মদের ঠেকও আগের থেকে বেড়েছে বলে এলাকাবাসীর দাবি।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।