রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ও কলকাতা পুরসভার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর স্ত্রী রত্নাদেবীর বিবাহ-বিচ্ছেদের মামলার শুনানি আপাতত স্থগিত রাখার জন্য অনুরোধ জানালেন ‘ডিস্ট্রিক্ট জজ’ বা জেলা বিচারক রাই চট্টোপাধ্যায়। তিনি লিখিত নির্দেশপত্রে এই অনুরোধ জানিয়েছেন আলিপুরের অতিরিক্ত দায়রা বিচারক পুষ্পল শতপথীকে।

আলিপুর আদালত সূত্রের খবর, ৩ অক্টোবর শোভনবাবু তাঁর আইনজীবী মারফত বিচারক শতপথীর এজলাসের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি অভিযোগ তুলে একটি হলফনামা জমা দিয়েছিলেন জেলা বিচারকের কাছে। শোভনবাবুর অভিযোগ, তাঁদের বিবাহ-বিচ্ছেদের মামলায় প্রশ্নোত্তর পর্ব চলছে। রত্নাদেবীর কৌঁসুলিরা শোভনবাবুকে নানা ধরনের প্রশ্ন করছেন। রত্নাদেবীর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ নিয়ে শোভনবাবুর জবাবদিহি শুরু হয়েছে। কিন্তু তাঁর বক্তব্য যথাযথ ভাবে নথিভুক্ত করছেন না বিচারকের স্টেনোগ্রাফার।

শোভনের আরও অভিযোগ, ওই মামলায় কলকাতা হাইকোর্ট কিছু নির্দেশ দিয়েছিল। বিচারক শতপথী তা মানছেন না। তাই বিচ্ছেদের মামলাটি অন্য বিচারকের এজলাসে সরানোর আবেদন জানান প্রাক্তন মেয়র।

আরও পড়ুন: ‘ডেকে কৈফিয়ৎ চান’, ধনখড়কে নিয়ে অমিতকে বলল তৃণমূল, সংসদেও তোলার প্রস্তুতি

৩ অক্টোবর শোভনবাবুর তরফে ওই হলফনামা জমা দেওয়া হয়েছিল। তার পরে পুজোর ছুটি শুরু হয়ে যায় আদালতে। ৩০ অক্টোবর আদালত ফের চালু হওয়ার পরে ওই হলফনামা খতিয়ে দেখেন জেলা বিচারক। তার পরেই তিনি ওই মামলার বিচার প্রক্রিয়া স্থগিত রাখার জন্য মামলার দায়িত্বপ্রাপ্ত অতিরিক্ত দায়রা বিচারককে অনুরোধ করেন। আলিপুর আদালতের সরকারি আইনজীবীদের একাংশ জানান, শোভনবাবুর অভিযোগেরও শুনানি হবে জেলা বিচারকের আদালতে। বিবাহ-বিচ্ছেদের মামলাটি অন্য বিচারকের এজলাসে স্থানান্তরিত করা হবে কি না, তা ঠিক হবে ওই শুনানির ভিত্তিতেই।