• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বান্ধবীদের হেনস্থার প্রতিবাদ করায় পিটিয়ে, বিষ খাইয়ে যুবককে খুনের অভিযোগ

Arun Biswas
মৃত অরুণ বিস্বাস। ছবি: সংগৃহীত।

বান্ধবীদের উত্যক্ত করছিল পাড়ার ক্লাবের ছেলেরা। প্রতিবাদ করায় পিটিয়ে, বিষ খাইয়ে এক যুবককে খুনের অভিযোগ উঠল স্থানীয় একটি ক্লাবের কয়েক জনের বিরুদ্ধে। বুধবার বারুইপুর থানা এলাকার কল্যাণপুর ত্রিপুরানগরের বাসিন্দা অরুণ বিশ্বাস (২৮) নামে ওই যুবকের মৃত্যু হয়। এর পরেই পাপ্পু বিশ্বাস, দীপু বিশ্বাস-সহ ক্লাবের কয়েক জনের নামে খুনের অভিযোগ দায়ের করেছে অরুণের পরিবার।

পুলিশ জানিয়েছে, বারুইপুরের ত্রিপুরানগরেই তাঁর বাড়ি। অরুণের পরিবারের অভিযোগ, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি তাঁদের বাড়িতে অরুণের দুই বান্ধবী এসেছিলেন। সে সময় অরুণ বাড়ি ছিলেন না। অরুণের বাড়ির কাছেই খেয়ালি সঙ্ঘ নামে একটি ক্লাব রয়েছে। অভিযোগ, সেই ক্লাবের সদস্য পাপ্পু-দীপু আরও অনেকের সঙ্গে মিলে ওই দুই বান্ধবীকে ক্লাবের মধ্যে আটকে রাখেন বলে অভিযোগ। এমনকি, তাঁদের হেনস্থা করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, খবর পেয়েই অরুণ ক্লাবে যায়। ক্লাবের সদস্যদের সঙ্গে তাঁর কথা কাটাকাটি হয়। পরে তাঁকে ক্লাবের বাইরে ইলেক্ট্রিক পোস্টের সঙ্গে বেঁধে তাঁকে বেধড়ক মারধর করে এবং জোর করে বিষ খাইয়ে দেওয়া হয়। এমনটাই অভিযোগ অরুণের পরিবারের। পরিবারের লোক প্রতিবাদ করলে তাঁদেরও বিষ খাওয়ানোর হুমকি দেয় এবং তাঁদের থেকে ৪০ হাজার টাকাও চাওয়া হয় বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন: ফের পুলওয়ামা! গোপন ‘বার্তা’য় সন্দেহ, ফের হামলার আশঙ্কায় নিরাপত্তা জোরদার কাশ্মীরে

ঘটনার পর গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন অরুণ। ওই রাতেই তাঁকে এম আর বাঙুর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। বুধবার রাতে তাঁর মৃত্যু হয়।

আরও পড়ুন: ‘দেশভক্ত’দের বেধড়ক মারে রক্তাক্ত, তবু বাংলা ছাড়বেন না কাশ্মীরের শাল বিক্রেতা জাভেদ

এই ঘটনায় স্থানীয় মানুষরা ক্লাবের বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ হন। স্থানীয়দের অভিযোগ, ক্লাবের মধ্যে রোজই অসামাজিক কাজকর্ম হয়। রাত হলেই ক্লাবে মদ-জুয়ার আসর বসে। এই নিয়ে বারুইপুর থানাতেও অভিযোগ দায়ের করেছেন তাঁরা। অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন