×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৩ জুন ২০২১ ই-পেপার

অটোর ‘দৌরাত্ম্য’, প্রাণ গেল যাত্রীর

নিজস্ব সংবাদদাতা
ক্যানিং ০৫ মার্চ ২০২০ ০১:৫৯
শোকার্ত: মৃতের পরিবার। ক্যানিংয়ে।  ছবি: প্রসেনজিৎ সাহা

শোকার্ত: মৃতের পরিবার। ক্যানিংয়ে। ছবি: প্রসেনজিৎ সাহা

অটো দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল এক যাত্রীর। বুধবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে ক্যানিংয়ের বাহিরসোনা মোড়ে ক্যানিং-বারুইপুর রোডে। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতার নাম মমতা পুরকাইত (৪৮)। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, বেপরোয়া ভাবে অটো চলে রাস্তায়। তোলা হয় অতিরিক্ত যাত্রী। এর জেরেই বার বার দুর্ঘটনা ঘটছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর, এ দিন সকালে কুলতলির কচিয়ামারা থেকে একটি অটোতে সাতজন যাত্রী বারুইপুরে যাচ্ছিলেন। অভিযোগ, অটো জোরে চালাচ্ছিলেন চালক। বার বার বললেও গতি কমাননি। অতিরিক্ত গতির কারণেই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাহিরসোনা মোড়ের কাছে উল্টো দিক থেকে আসা অন্য একটি অটোর সঙ্গে মুখোমুখি ধাক্কা লাগে বলে অভিযোগ। ছিটকে পড়েন বারুইপুরের উকিলপাড়ার বাসিন্দা মমতা। ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঘটনার পর থেকে পলাতক অটো চালক। তাঁর খোঁজ চলছে।

মমতার দিদি সবিতা গায়েনও ছিলেন ওই অটোতে। তিনি বলেন, ‘‘বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে বাড়ি ফিরছিলাম। চালক প্রচণ্ড গতিতে অটো চালাচ্ছিলেন। কয়েকবার বললেও শোনেননি। সেই কারণেই দুর্ঘটনা ঘটল।’’

Advertisement

অটোতে অতিরিক্ত যাত্রী বহন ও বেপরোয়া অটো চালানোর অভিযোগ ফের উঠেছে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে। এ বিষয়ে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা আইএনটিটিইউসি-র সভাপতি শক্তিপদ মণ্ডল বলেন, “পথ নিরাপত্তার জন্য মুখ্যমন্ত্রী তথা রাজ্য সরকার সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফ প্রকল্প করেছে। তবুও কিছু অটো চালক নিয়ম-কানুন মানছেন না। বেপরোয়া ভাবে অটো চালাচ্ছেন, দুর্ঘটনা ঘটছে। এই সব অটো চালকদের বিরুদ্ধে পুলিশ-প্রশাসনকে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আবেদন করছি।’’ অভিযুক্ত অটো চালকের বিরুদ্ধে দল ও সংগঠনের তরফ থেকেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

Advertisement