Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

অর্জুন-অনুব্রতর আকচাআকচি

নিজস্ব সংবাদদাতা
০৬ এপ্রিল ২০১৯ ০২:২৭
 সভায় অনুব্রত মণ্ডল। নিজস্ব চিত্র

সভায় অনুব্রত মণ্ডল। নিজস্ব চিত্র

তৃণমূলের প্রার্থী হলে ব্যারাকপুর কেন্দ্রে তাঁর জেতার কোনও সম্ভাবনা ছিল না। সেই জন্যই তিনি বিজেপির প্রার্থী হয়েছেন বলে দাবি করলেন অর্জুন সিংহ। তাঁর দাবি, তৃণমূলে থাকলে মানুষ তাঁকে ভোট দিতেন না।

শুক্রবার একটি মামলায় বারাসত আদালতে হাজিরা দিতে আসা বীরভূমের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল অর্জুনকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘‘ও কোনও সিংহ নয়, বাঘও নয়। মানুষ সেটা ওকে বুঝিয়ে দেবে।’’ সেই প্রসঙ্গে অর্জুন বলেন, ‘‘ঠিকই তো, আমি বাঘ-সিংহ কেন হতে যাব? আমি তো অর্জুন।’’ অর্জুন প্রসঙ্গে অনুব্রত এ দিন বলেন, ‘‘সাংসদ হওয়া তো অনেক দূরের কথা, ও নিজের বিধায়ক পদও ধরে রাখতে পারবে না। ব্যারাকপুরের ভোটাররা ওকে যোগ্য জবাব দেবে।’’

গত কয়েকদিন ধরেই ব্যারাকপুরে তৃণমূল-বিজেপির গোলমাল চলছিল। শেষ পর্যন্ত দেওয়াল দখল, কর্মীদের শাসানি, মারধর নিয়ে প্রশাসনের দ্বারস্থ হলেন ব্যারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন। শুক্রবার ব্যারাকপুরের মহকুমা শাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ জানান তিনি। তৃণমূল অবশ্য পাল্টা অভিযোগ করে জানিয়েছে, গুন্ডাগিরি করছেন বিজেপি নেতা-কর্মীরাই।

Advertisement

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

কার্যত হুমকির সুরে অর্জুন এ দিন বলেন, ‘‘আমি গুন্ডাগিরি করলে ওরা দাঁড়াতে পারবে? কিন্তু সে সব আমি করব কেন? আমার দলের কর্মীদের প্রতিনিয়ত মারধর করছে তৃণমূলের লোকেরা।’’ তাঁর অভিযোগ, গুন্ডাগিরি করেই তৃণমূল ভোট করতে চাইছে। তবে সেই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে তৃণমূল। নৈহাটির বিধায়ক পার্থ ভৌমিক বলেন, ‘‘কেউ কিছু করছে না। বিজেপি আসলে দেওয়াল লেখা, প্রচার করার লোক খুঁজে পাচ্ছে না। সেই জন্য ওদের দলের প্রার্থী অভিযোগ করে প্রচার পেতে চাইছেন। মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাইছেন।’’ তিনি মনে করেন, মানুষ তা ধরে ফেলেছে। সেই জন্যই হতাশা থেকে অর্জুন মনগড়া অভিযোগ করছেন। বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকে নিজের এত দিনের পরিচিত সাদা পোশাক মাঝেমধ্যেই বদলাচ্ছেন অর্জুন। শুক্রবার তিনি এসেছিলেন গেরুয়া পোশাকে। তৃণমূলে টিকিট না পেয়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার প্রসঙ্গ উঠতেই তিনি বলেন, ‘‘আমি তৃণমূলের প্রার্থী হতেই চাইনি। তৃণমূলের হয়ে লড়লে আমি ভোটই পেতাম না। মানুষ তৃণমূলকে বর্জন করেছেন। তাই বিজেপির প্রার্থী হয়েছি।’’

বিজেপির ব্যারাকপুর সাংগঠনিক জেলার সভাপতি ফাল্গুনী পাত্রের অভিযোগ, বারবার পুলিশ-প্রশাসনের কাছে অভিযোগ জানিয়েও কোনও লাভ হচ্ছে না। তৃণমূলকর্মীরা তাঁদের পার্টিকর্মীদের মারধর করে নিজেরাই পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাচ্ছে।



Tags:
Arjun Singh Anubrata Mandal Lok Sabha Election 2019লোকসভা ভোট ২০১৯

আরও পড়ুন

Advertisement