Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

মদন-বাণে ভাটপাড়ায় অর্জুন-বধ চান মমতা

সুপ্রকাশ মণ্ডল 
২৬ এপ্রিল ২০১৯ ০০:৩১
স্বমহিমায়: প্রচার শুরু করে দিলেন মদন মিত্র। বৃহস্পতিবার তোলা নিজস্ব চিত্র

স্বমহিমায়: প্রচার শুরু করে দিলেন মদন মিত্র। বৃহস্পতিবার তোলা নিজস্ব চিত্র

তিনি যেন তৈরিই ছিলেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে সিউড়ির জনসভা থেকে দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভাটপাড়া বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে তাঁর নাম ঘোষণার ঘণ্টা দু’য়েকের মধ্যেই মদন মিত্র পৌঁছে গেলেন ভাটপাড়ায়। মদনের মিছিল বের হল রাতেই।

তৃণমূলের টিকিটে জেতা অর্জুন সিংহ এই কেন্দ্রের বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী। আগামী ১৯ মে এই কেন্দ্রে উপনির্বাচন হবে।

ভাটপাড়ায় পৌঁছে দলের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে এক দফা বৈঠকের পরে মদন বেরিয়ে পড়েন ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিভিন্ন এলাকায় প্রচারে। রাত ৯টায় ভাটপাড়ায় ফিরে ফের একদফা নিজের প্রচার সারলেন। প্রচার শেষে স্ব-মেজাজে জানিয়ে দিলেন ভাটপাড়া যতই অর্জুন সিংহের এলাকা হোক, আসলে তা তৃণমূলেরই। ভোটের ফলেই তার প্রমাণ মিলবে।

Advertisement

অনেক নাম নিয়ে জল্পনা হলেও শেষ পর্যন্ত ভাটপাড়ায় মদনকে প্রার্থী করায় খুশি এলাকার তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা। এক নেতার কথায়, ‘‘দিদি ঠিকঠাক লোককেই প্রার্থী করেছেন। অর্জুনের সঙ্গে মদনদাই টক্কর দিতে পারবেন। লোহা কাটতে তো লোহারই দরকার হয়।’’ মদনও দলের কর্মীদের এ দিন বলেন, ‘‘এক ইঞ্চি জমি কাউকে ছাড়া হবে না। প্রমাণ করে দিতে হবে, ভাটপাড়ার মানুষ আসলে তৃণমূলকে চান, কোনও ব্যক্তিবিশেষকে নয়।’’

গত কয়েক দিন ধরে তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে ভাটপাড়ায় বেশ কয়েকজন স্থানীয় নেতাকে নিয়ে চর্চা চলছিল। দলের এক নেতা জানান, তাঁদেরও প্রার্থী হওয়ার যথেষ্ট সম্ভাবন ছিল। কিন্তু, শেষ পর্যন্ত সব দিক বিবেচনা করেই মদনকে প্রার্থী করা হল। মদনকে যে প্রার্থী করা হচ্ছে, তা দলের উপরতলার কয়েকজনের কাছে আগেই খবর ছিল। দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, জেলা নেতৃত্বের কাছ থেকে রাজ্য নেতৃত্ব প্রার্থী হিসেবে নামের তালিকা চেয়েছিলেন। সেখানেই দু’দিন আগে মদনের নাম চূড়ান্ত হয়। নৈহাটির বিধায়ক পার্থ ভৌমিককে আগেই জানানো হয়েছিল মদনের নাম। সেই মতো বুধবার তিনি ভাটপাড়ার স্থানীয় নেতাদের নিয়ে বৈঠক করেন। বৈঠকে তিনি জানিয়ে দেন, স্থানীয় নয়, বাইরের কাউকে প্রার্থী করা হচ্ছে। তার জন্য যেন তাঁরা মানসিক প্রস্তুতি নিয়ে রাখেন। স্থানীয় নেতারা যাতে মন খারাপ না করেন, সেই জন্য বুধবার পার্থ দফায় দফায় বৈঠক করেন স্থানীয় নেতাদের সঙ্গে। তবে প্রার্থীর নাম তিনি জানাননি। কেন মদনকে প্রার্থী করা হল, তা-ও দলের নেতাদের কাছে ব্যখ্যা করেন তিনি। বিজেপি যাকেই প্রার্থী করুক না কেন, আসলে লড়বেন সেই অর্জুন সিংহ। যিনি ক’দিন আগেও ছিলেন তৃণমূলের অন্যতম নেতা। ফলে, তাঁর বিরুদ্ধে লড়তে গেলে মদনের মতোই ডাকাবুকো প্রার্থী দরকার বলে স্থানীয় নেতাদের জানানো হয়। কারণ, মদন জেলার নেতাদের ভাল চেনেন। কাছেই কামারহাটি বিধানসভার প্রার্থী ছিলেন তিনি। পাঁচ বছর মন্ত্রিসভায় গুরুত্বপূর্ণ দফতর সামলেছেন। ফলে তিনি প্রার্থী হলে দলের পক্ষে ভালই হবে। পার্থ নিজে বলেন, ‘‘দলনেত্রী প্রার্থী ঠিক করেছেন। ভাটপাড়ার মানুষও শান্তি চান। দীর্ঘদিন পরে তাঁরা সেই সুযোগ পেয়েছেন। ভোটের ফলেই তার প্রমাণ মিলবে।’’ বিজেপি যদিও এখনও প্রার্থী ঘোষণা করেনি। তবে অর্জুনের পরিবারের কেউ প্রার্থী হবেন বলে জল্পনা চলছে রাজনৈতিক মহলে। যদিও এই বিষয়ে কিছু বলতে রাজি হননি অর্জুন। তিনি বলেন, ‘‘দল যাকে যোগ্য মনে করবে, তাকেই প্রার্থী করবে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement