Advertisement
১৯ এপ্রিল ২০২৪
Sandeshkhali Incident

‘খলিস্তানি’ মন্তব্য নিয়ে প্রথম এফআইআর দায়ের ভবানীপুর থানায়, কার নামে করা হল অভিযোগ?

গত মঙ্গলবার সন্দেশখালিতে শিখ আইপিএস অফিসার যশপ্রীত সিংহের উদ্দেশে ‘খলিস্তানি’ মন্তব্য করার অভিযোগ ওঠে বিজেপি নেতৃত্বের বিরুদ্ধে। তার পর থেকেই বিতর্কের সূত্রপাত।

‘খলিস্তানি’ মন্তব্য করার অভিযোগে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হল ভবানীপুর থানায়।

‘খলিস্তানি’ মন্তব্য করার অভিযোগে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হল ভবানীপুর থানায়। —ফাইল চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২২:৩১
Share: Save:

কর্তব্যরত এক আইপিএস অফিসারের উদ্দেশে ‘খলিস্তানি’ মন্তব্য করার অভিযোগ ওঠে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের বিরুদ্ধে। ওই ঘটনায় এ বার এফআইআর দায়ের হল ভবানীপুর থানায়। শুক্রবার এই এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। একই সঙ্গে ‘খলিস্তানি’ বিতর্কে রাজ্য বিজেপির সদর দফতরের সামনে অবস্থানরতদের পক্ষেও একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে।

বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বে গত মঙ্গলবার সন্দেশখালিতে গিয়েছিল বিজেপি বিধায়কদের একটি প্রতিনিধি দল। সেই সময় এক শিখ আইপিএস অফিসারকে লক্ষ্য করে ‘খলিস্তানি’ মন্তব্য করা হয় বলে অভিযোগ। ওই বিতর্কের রেশ রাজ্য পেরিয়ে জাতীয় স্তরে পৌঁছয়। পৌঁছয় পঞ্জাবেও। শুক্রবার প্রথম এই ঘটনায় এফআইআর দায়ের করা হল এ রাজ্যে। থানায় যিনি অভিযোগ করেছেন, তাঁর নাম গুরমীত সিংহ। ঠিকানা হিসাবে তিনি পদ্মপুকুর রোডের ইয়ুথ খালসা ক্লাবের নাম লিখেছেন। অভিযোগপত্রে গুরমীত জানিয়েছেন, ওই ঘটনায় শুধু শিখ পুলিশ কর্তাকে ধর্মীয় অবমাননাই করা হয়নি, পাশাপাশি বিভিন্ন ধর্মের মধ্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করা ও হিংসা ছড়ানোরও চেষ্টা করা হয়েছে। অন্য দিকে, মুখ্যমন্ত্রীকে লেখা শিখ সম্প্রদায়ের চিঠিতে বলা হয়েছে, তাঁদের উদ্দেশে এমন আক্রমণের ঘটনায় অভিযুক্তের শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত তাঁরা শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ চালিয়ে যাবেন। একই সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর সময়ও চেয়েছেন তাঁরা। জানিয়েছেন, তাঁদের একটি প্রতিনিধি দল মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে চায়।

এফআইআরের প্রতিলিপি।

এফআইআরের প্রতিলিপি। —নিজস্ব চিত্র।

গত মঙ্গলবার সন্দেশখালির একটি ভিডিয়ো পোস্ট করে ‘খলিস্তানি’ মন্তব্যের নিন্দা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। ‘পাগড়ি’ এবং ‘খলিস্তানি’ সমার্থক নয় বলে বিজেপির কঠোর সমালোচনাও করেন তিনি। পরে সেই দিনই বিকেলে একটি সাংবাদিক বৈঠক করে এডিজি (দক্ষিণবঙ্গ) সুপ্রতিম সরকার জানান, শিখ পুলিশ অফিসার সম্পর্কে বিজেপির তরফে যে মন্তব্য করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে, তা নিয়ে ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৯৫(এ) ধারায় আইনত পদক্ষেপ করা হবে। রাজ্য পুলিশের এক্স হ্যান্ডলেও এ সংক্রান্ত একটি পোস্টে লেখা হয়, ‘‘আমাদের এক অফিসারকে খলিস্তানি বলেছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা। এটি একটি উসকানিমূলক মন্তব্য এবং ফৌজদারী অপরাধ। কড়া আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।’’

ভবানীপুর থানায় দায়ের হওয়া এফআইআরেও অবশ্য বিজেপির কোনও নেতার নামের উল্লেখ করা হয়নি। বলা হয়েছে বিজেপির কোনও নেতা অথবা সদস্য ওই মন্তব্য করেছেন। আপাতত সেই ‘অজানা’ বিজেপি নেতা অথবা সদস্যের বিরুদ্ধেই দায়ের করা হয়েছে এফআইআরটি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

IPS Officer Sikh Community
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE