Advertisement
১৪ এপ্রিল ২০২৪
Khalistani Controversy

দোষীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপের দাবি, ‘খলিস্তানি’ বিতর্কে রাজ্যের শিখেরা মুখ্যসচিবের দ্বারস্থ

মন্তব্য-বিতর্কের জেরে এর আগে রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোসের সঙ্গে দেখা করেছেন শিখ গুরুদ্বার কমিটির প্রতিনিধিরা। দোষীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপের দাবিও জানিয়েছিলেন।

বিপি গোপালিক এবং যশপ্রীত সিংহ।

বিপি গোপালিক এবং যশপ্রীত সিংহ। ফাইল চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৫:৩৯
Share: Save:

‘খলিস্তানি’-মন্তব্য বিতর্কের জেরে এ বার রাজ্যের মুখ্যসচিব বিপি গোপালিকের দ্বারস্থ হচ্ছেন শিখ সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিরা। ওই মন্তব্যকাণ্ডে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে সোমবার বিকেল ৪টে নাগাদ মু্খ্যসচিবের কাছে আবেদন জানাতে যাচ্ছেন তাঁরা।

গত ২০ ফেব্রুয়ারি সকালে সন্দেশখালি অভিমুখে যাত্রা করেছিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তাঁর সঙ্গে গিয়েছিলেন বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পাস-সহ দলের কয়েক জন নেতা। ধামাখালিতে তাঁদের আটকে দিয়েছিল পুলিশ। কেন তাঁদের আটকানো হচ্ছে, তা নিয়ে পুলিশের আধিকারিকদের সঙ্গে বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েছিলেন বিজেপি বিধায়করা। পুলিশ আধিকারিকদের মধ্যে ছিলেন আইপিএস অফিসার যশপ্রীত সিংহ। যাঁকে দেখে ‘খলিস্তানি’ বলে মন্তব্য করা হয় বলে অভিযোগ।

এই মন্তব্য-বিতর্কের জেরে এর আগে রাজ্য বিজেপির সদর দফতরের সামনে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন শিখ জনগোষ্ঠীর মানুষেরা। দোষীদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করার আর্জি নিয়ে রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোসের সঙ্গেও দেখা করেছেন শিখ গুরুদ্বার কমিটির প্রতিনিধিরা। বৃহস্পতিবার দুপুরে শিখ সম্প্রদায়ের সাত সদস্যের প্রতিনিধিদল রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে স্মারকলিপি তুলে দেয়।

পরে রাজভবনের বাইরে বেরিয়ে স্মারকলিপিটি পড়ে শোনান প্রতিনিধিদলের অন্যতম সদস্য গুরমিত সিংহ। তাঁর দাবি, আইপিএস আধিকারিককে ‘খলিস্তানি’ বলে অপমান করে শুভেন্দু অধিকারী এবং বিজেপির প্রতিনিধিদল শিখ ধর্মাবলম্বীদের পাগড়ি অর্থাৎ ‘পবিত্রতা’ এবং‌ ‘আত্মসম্মান’কে অপমান করেছেন। দোষীদের বিরুদ্ধে রাজ্যপালকে যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়েছে প্রতিনিধিদলটি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE