Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

বিজেপি-মতুয়া মহাসঙ্ঘ যোগে আসছেন শাহ

ঠাকুরবাড়ি সূত্রে জানা গিয়েছে, শাহের সভায় মূল মঞ্চ ছাড়া আরও দুটি মঞ্চ থাকছে। বাকি দুটি মঞ্চে মতুয়া ও বিজেপি নেতৃত্বরা থাকবেন।

নিজস্ব সংবাদদাতা
গাইঘাটা ২৬ জানুয়ারি ২০২১ ২২:৪৩
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

বিধানসভা ভোটের আগে মতুয়াদের বার্তা দেওয়ার চেষ্টায় ঠাকুরবাড়িতে আসছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বিজেপি এবং অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসঙঘের যৌথ উদ্যোগে আগামী ৩০ জানুয়ারি শাহের সভার আয়োজন হচ্ছে। বনগাঁর বিজেপি সাংসদ তথা অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসঙ্ঘের সঙ্ঘাধিপতি শান্তনু ঠাকুর সোমবার গাইঘাটায় বলেছেন, ‘‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীয় সভায় আমাদের লক্ষ্য দু’লক্ষ মানুষকে নিয়ে আসার। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যে হেতু নাগরিকত্ব আইন কার্যকর করা নিয়ে উদ্বাস্তু, মতুয়াদের সামনে তাঁর মতামত জানাবেন, তাই মূল মঞ্চটি করা হচ্ছে অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসঙ্ঘের ব্যানারে।’’

ঠাকুরবাড়ি সূত্রে জানা গিয়েছে, শাহের সভায় মূল মঞ্চ ছাড়া আরও দুটি মঞ্চ থাকছে। বাকি দুটি মঞ্চে মতুয়া ও বিজেপি নেতৃত্বরা থাকবেন। শাহের সভার জন্য একটি হেলিপ্যাড তৈরির কাজ দ্রুততার সঙ্গে চলছে। ওই কাজের অগ্রগতি এ দিন খতিয়ে দেখেন শান্তনু। বিজেপির রাজ্য নেতারা প্রায় রোজই দফায় দফায় ঠাকুরবাড়িতে আসছেন সভার প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে।

দীর্ঘ দিন ধরেই নাগরিকত্ব আইন কার্যকর করার দাবিতে সরব শান্তনু। কিন্তু তাঁর দাবি যে আশু মেটার নয়, সেই ইঙ্গিত মিলছিল বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের তরফে। ফলে, কয়েক মাস ধরে দলের অনুষ্ঠান এড়িয়ে চলছিলেন শান্তনু। দিনকয়েক আগে বিজেপি নেতৃত্ব তাঁকে আশ্বস্ত করেন, ৩০ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঠাকুরনগরে মতুয়া ধামে আসবেন। একই সঙ্গে শান্তনুর দাবি মতো বনগাঁকে দলের আলাদা সাংগঠনিক জেলা হিসাবে ঘোষণা করা হয়। নতুন সাংগঠনিক জেলার সভাপতি করা হয় শান্তনু ঘনিষ্ঠ বিজেপি নেতা মনস্পতি দেবকে। তার পরেই বরফ গলেছে। শান্তনু বলেন, ‘‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সভায় রাজ্যের সমস্ত এলাকা থেকে মতুয়াদের প্রতিনিধিদের ডাকা হচ্ছে। কারণ, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কথা সকলেরই জানার প্রয়োজন।’’ শাহের সভার দিকে নজর রাখছেন সাধারণ মতুয়ারাও। ঠাকুরবাড়িতে আসা কয়েক জন মতুয়া ভক্ত এ দিন বলেন, ‘‘কেন্দ্র সরকার নাগরিকত্ব আইন করেছে। আমাদের আশা, তারাই তা দ্রুত কার্যকর করবেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিশ্চয়ই সে কথা জানাবেন।’’

Advertisement

জাতীয় নাগরিকপঞ্জি-বিরোধী যুক্ত মঞ্চ অবশ্য বলছে, উদ্বাস্তুদের নাগরিকত্ব ‘দেওয়া’র ঘোষণা রাজনৈতিক ভাঁওতা। নতুন আইনে নাগরিকত্বের জন্য তথ্যপ্রমাণ-সহ আবেদন করতে হবে। শাহের সভার আগেই আজ, মঙ্গলবার প্রজাতন্ত্র দিবসে রাস্তায় নামছে যুক্ত মঞ্চ। সংগঠনের আহ্বায়ক প্রসেনজিৎ বসু জানিয়েছেন, ‘উদ্বাস্তু-বিরোধী’ নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন, ২০০৩ এবং ‘অসাংবিধানিক ও প্রতারণামূলক’ সিএএ প্রত্যাহারের দাবিতে আজ শিয়ালদহ থেকে নিউ মার্কেট পর্যন্ত মিছিল ও পরে সাংস্কৃতিক কর্মসূচি ও জনসভা হবে।

আরও পড়ুন

Advertisement