Advertisement
০১ ডিসেম্বর ২০২২
TMC

BJP MLA: বিজেপি থেকে কমল আরও এক বিধায়ক, কৃষ্ণ কল্যাণী যোগ দিলেন তৃণমূলে

ইতিমধ্যেই দলত্যাগী বিধায়কদের বিধায়কপদ খারিজের দাবিতে স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি লিখে আবেদন জানিয়েছেন বিরোধী দলনেতা।

তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন কৃষ্ণ কল্যাণীর।

তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন কৃষ্ণ কল্যাণীর। ফাইল চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৭ অক্টোবর ২০২১ ১৫:২২
Share: Save:

বিজেপি-র আরও এক বিধায়ক যোগ দিলেন তৃণমূলে। বুধবার দক্ষিণ কলকাতার এক বেসরকারি হোটেলে রায়গঞ্জের বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণীকে তৃণমূলে যোগদান করান তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। যোগদানপর্বে ছিলেন তৃণমূলে হিন্দিভাষী সেলের সভাপতি তথা জোড়াসাঁকোর বিধায়ক বিবেক গুপ্ত। গত ১ অক্টোবর দলবিরোধী কাজের অভিযোগে কৃষ্ণকে শোকজ করেছিল বিজেপি। শোকজের সিদ্ধান্ত জানার পরেই দলত্যাগের কথা ঘোষণাও করেছিলেন কৃষ্ণ। এ বার সরাসরি নিজের পুরনো দলে ফিরে গেলেন তিনি। তাঁকে নিয়ে মোট পাঁচজন বিজেপি বিধায়ক তৃণমূলে যোগ দিলেন।

বিধানসভা ভোটের আগেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি-তে গিয়েছিলেন কৃষ্ণ। গিয়েই রায়গঞ্জ কেন্দ্রে বিজেপি-র টিকিট পেয়ে জিতেও যান তিনি। কিন্তু বিধায়ক হওয়ার কয়েক মাসের মধ্যেই রায়গঞ্জের সাংসদ তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরীর সঙ্গে বিরোধী শুরু হয় তাঁর। প্রকাশ্যেই দলীয় সাংসদের বিরুদ্ধে তাঁকে হারানোর চক্রান্ত করার অভিযোগ আনেন রায়গঞ্জের বিধায়ক। বিরোধী এমন জায়গায় পৌঁছায় অঘোষিত ভাবে দলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেন তিনি। আর বুধবার বিজেপি ছেড়ে ‘ঘর ওয়াপসি’ হল কৃষ্ণর।

Advertisement

ভোটের মাস তিনেক আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যান কৃষ্ণ। ঘাসফুল শিবিরে ফিরে সেই কৃষ্ণ বলছেন, ‘‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যা কথা দেন, তা করে দেখান। ভোটের আগে উনি যা যা বলেছিলেন, ক্ষমতায় ফিরে সব করে দেখিয়েছেন। আমি তা দেখে অভিভূত। ধন্যবাদ জানাই মমতা’দি এবং অভিষেক’দাকে।’’ আগের দল সম্পর্কে তাঁর ব্যাখ্যা, ‘‘বিজেপি-তে ভাল কাজের মূল্যায়ন নেই। ছ’মাস আগে ভুল করেছিলাম। এ বার তা শুধরে নিচ্ছি।’’ মূল্যবৃদ্ধি ইস্যুতেও বিজেপি-র সমালোচনা করেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক মুকুল রায়, বড়জোড়ার বিধায়ক তন্ময় ঘোষ, বাগদার বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস ও কালিয়াগঞ্জের বিধায়ক সৌমেন রায় তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। বিধানসভা ভোটে বিজেপি-র পক্ষে জয় পেয়েছিলেন ৭৭ জন। কিন্তু সাংসদ পদ ধরে রাখতে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিক ও জগন্নাথ সরকার পদত্যাগ করায় সেই সংখ্যা নেমে এসেছিল ৭৫-এ। কিন্তু একে একে পাঁচজন বিধায়কের দলত্যাগে বিজেপি-র বিধায়ক সংখ্যা নেমে এল ৭০-এ। তবে দলত্যাগী বিধায়কদের বিধায়কপদ খারিজের দাবিতে স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি লিখে আবেদন জানিয়েছেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। আবার তিনমাস অপেক্ষা করে মুকুলের বিধায়কপদ খারিজের দাবিতে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে বিজেপি পরিষদীয় দল। কিন্তু তাতেও বিধায়কদের দলত্যাগ রোখা যাচ্ছে না।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.