Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

তৃতীয় বার মন্ত্রী মলয়, খুশির হাওয়া আসানসোলে

মলয়বাবু ফের মন্ত্রী হচ্ছেন জেনে নানা ক্ষেত্রের সঙ্গে যুক্ত নাগরিকেরা বিভিন্ন দাবিও জানাতে শুরু করেছেন।

নিজস্ব সংবাদদাতা 
আসানসোল ১০ মে ২০২১ ০৫:৩৫
Save
Something isn't right! Please refresh.
আসানসোলে তৃণমূল নেত্রীর পাশে মলয় ঘটক। (ছবি: পারিবারিক সূত্রে)

আসানসোলে তৃণমূল নেত্রীর পাশে মলয় ঘটক। (ছবি: পারিবারিক সূত্রে)

Popup Close

প্রত্যাশা মতোই তৃতীয় বার রাজ্যের মন্ত্রী হচ্ছেন আসানসোল উত্তরের বিধায়ক মলয় ঘটক। যে শহর থেকে তাঁর রাজনৈতিক জীবন শুরু, সেই আসানসোলে এ খবর আসতেই খুশির হাওয়া বইছে। নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, আজ, ১০মে, মলয়বাবুর রাজভবনে ক্যাবিনেট মন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার কথা। পাশাপাশি, মলয়বাবু ফের মন্ত্রী হচ্ছেন জেনে নানা ক্ষেত্রের সঙ্গে যুক্ত নাগরিকেরা বিভিন্ন দাবিও জানাতে শুরু করেছেন। মলয়বাবুর প্রতিক্রিয়া, ‘‘দিদি আমার উপরে ভরসা করেছেন এ বারও। জেলা এবং রাজ্যের সেবা করব সাধ্য মতো।’’

বর্তমানে আপকার গার্ডেনের বাসিন্দা মলয়বাবুর কর্মস্থল আসানসোল জেলা আদালত। সেখানকার সরকারি আইনজীবী স্বরাজ চট্টোপাধ্যায়ের বক্তব্য, ‘‘উনি মন্ত্রী থাকাকালীন জেলা আদালত, সিবিআই, ক্রেতা সুরক্ষা আদালত হয়েছে আসানসোলে। এই উন্নয়নের ধারা এ বারেও বজায় থাকবে বলেই মনে করি।’’ একই কথা জানান ওই আদালতেরই আইনজীবী তাপস উকিল। এ দিকে, ‘আসানসোল ফিস মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশন’-এর সভাপতি মহম্মদ ইলিয়াস বলেন, ‘‘আসানসোলের প্রচুর উন্নতি করেছেন মলয়বাবু। কিন্তু বাজার এলাকার আধুনিক পরিকাঠামো যাতে তৈরি হয়, সে জন্য তাঁর কাছে আবেদন জানাচ্ছি।’’

আসানসোল জেলা হাসপাতালের রোগীকল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান মলয়বাবু। সেই প্রসঙ্গ তুলে হাসপাতালের সুপার নিখিলচন্দ্র দাস জানান, হাসপাতালে ট্রমা সেন্টারটি এ বার পুরো মাত্রায় চালু হবে, এই আশা করছেন তিনি। পাশাপাশি, কোর্ট বাজার-সহ এসবি গড়াই রোডের বিস্তীর্ণ এলাকায় রাস্তা ‘দখল’ এবং যানজট সমস্যার সমাধান করবেন মলয়বাবু, আশা স্থানীয় বাসিন্দা প্রদীপ্ত গোস্বামীর।

Advertisement

যোগেশচন্দ্র ল’কলেজের প্রাক্তনী মলয়বাবুর ১৯৭৫-এ ছাত্র পরিষদের হাত ধরে রাজনৈতিক জীবনে প্রবেশ। আসানসোল ব্লক যুব কংগ্রেসের সভাপতি, অবিভিক্ত বর্ধমান জেলা যুব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদকের পদ সামলানো মলয়বাবু ১৯৯৮-এ তৃণমূলের জন্মলগ্ন থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেনানী। তৃণমূলের জেলা সভাপতি, জেলা চেয়ারম্যান, শ্রমিক সংগঠনের আইএনটিটিইউসি-র রাজ্য সাধারণ সম্পাদক, এমন নানা দায়িত্ব সামলেছেন মলয়বাবু। বিধানসভা থেকে লোকসভা, বহুবার ভোটেও দাঁড়িয়েছেন তিনি। প্রথম জয়, ২০০১-এ, সাবেক হিরাপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে। তার পরে, ২০১১ থেকে টানা আসানসোল উত্তর কেন্দ্রের বিধায়ক মলয়বাবু। এই নিয়ে তিনবার মন্ত্রী হচ্ছেন তিনি। সামলেছেন আইন, শ্রম, কৃষি দফতর। এ বার অবশ্য এখনও দফতর জানা যায়নি।

দাদা ফের মন্ত্রী হচ্ছেন শুনে ভাই, তথা তৃণমূল নেতা অভিজিৎ ঘটকের প্রতিক্রিয়া, ‘‘দাদা বরাবরের মতো এ বারেও মন্ত্রী হিসেবে দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন, এই আশা রাখছি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement