×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

চপ ভেজে শিল্প নিয়ে সরব বিজেপি

নিজস্ব সংবাদদাতা
দুর্গাপুর৩০ নভেম্বর ২০২০ ০০:৫৪
প্রতিবাদ। নিজস্ব চিত্র।

প্রতিবাদ। নিজস্ব চিত্র।

চপ ভেজে, মদের পাউচ নষ্ট করে রাজ্যের শিল্প পরিস্থিতি নিয়ে সরব হল বিজেপি। পাশাপাশি, তারা দাবি জানিয়েছে শিল্পায়নেরও। রবিবার দুর্গাপুরের এমএএমসি এলাকার বি ১ মোড়ে বিজেপি-র এই কর্মসূচি ও বিজেপি নেতৃত্বের বন্ধ শিল্পক্ষেত্র ফের খোলার ‘প্রতিশ্রুতি’-কে কেন্দ্র করে জেলায় শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর।

এ দিন ভারতীয় জনতা যুব মোর্চার ৩ নম্বর মণ্ডল শিল্পের দাবিতে ওই কর্মসূচি নেয়। সেখানে মঞ্চের সামনে স্টোভ জ্বেলে চপ ভেজে তা বিলি করা হয়। দেশি মদের ২০ টাকার পাউচ নষ্ট করা হয়। বিজেপির জেলা সভাপতি লক্ষ্মণ ঘোড়ুইয়ের দাবি, ২০১১-য় বিধানসভা ভোটের আগে তৃণমূল রাজ্যে ১৮২টি প্রকল্প ঘোষণা করেছিল। তৃণমূল ক্ষমতায় এসে বাংলায় শিল্পায়নের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। লক্ষ্মণবাবুর অভিযোগ, ‘‘তৃণমূল এমএএমসি, বিওজিএল, এইচএফসিএল খোলার কথা বললেও বাস্তবে কিছু হয়নি। এই রাজ্য় সরকারের আমলে বাংলায় চপ ও মদ-শিল্প ছাড়া আর কিছু হয়নি। তাই আমাদের এই কর্মসূচি।’’ এর পরেই লক্ষ্মণবাবুর ‘প্রতিশ্রুতি’, তাঁরা রাজ্যে ক্ষমতায় এলে বন্ধ এমএএমসি, এইচএফসিএল খোলা হবে।

তবে, বন্ধ রাষ্ট্রায়ত্ত কারখানা খোলার বিষয়ে বিজেপির ‘প্রতিশ্রুতি’ প্রসঙ্গে সিটু নেতা পঙ্কজ রায়সরকারের কটাক্ষ, ‘‘কেন্দ্রে বিজেপি সরকার থাকার সময়েই এমএএমসি, এইচএফসিএল বন্ধ হয়েছিল। তৎকালীন ক্রীড়ামন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফ্যাক্সবার্তা দেখিয়ে দাবি করেছিলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ী জানিয়েছেন, এমএএমসি খুলবে।’ দুর্গাপুরের মানুষ সব দেখেছেন।’’ বিজেপির এই দাবি প্রসঙ্গে সরব হয়েছে আইএনটিইউসি-ও। সংগঠনের নেতা অসীম চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘এমএএমসি খোলার বিষয়টি কোন জায়গায় দাঁড়িয়ে আছে তা বিজেপি জানে না। ভোট আসছে তাই এ সব বলা হচ্ছে।’’

Advertisement

বিজেপির এ দিনের কর্মসূচিকে ‘রাজনৈতিক চমক’ বলে দাবি করে আইএনটিটিইউসি জেলা সভাপতি বিশ্বনাথ পাড়িয়ালের অভিযোগ, ‘‘কেন্দ্রে বিজেপি সরকার থাকাকালীন দুর্গাপুর ও আসানসোলে একের পর এক রাষ্ট্রায়ত্ত কারখানা বন্ধ হয়েছে।’’

Advertisement