Advertisement
২২ জুলাই ২০২৪
BJP worker beaten

‘তৃণমূলের ঝান্ডা ধর, না হলে এলাকা ছাড়’! দুর্গাপুরে বিজেপি কর্মীকে বেধড়ক মারধরে অভিযুক্ত তৃণমূল

বিজেপির অভিযোগ, ভোটের ফলপ্রকাশের পর থেকেই তৃণমূলের লোকজন এসে হুমকি দিচ্ছেন। স্থানীয় এক বিজেপি কর্মীকে জোর করে পার্টি অফিসে তুলে নিয়ে গিয়ে মারধরও করা হয়েছে বলে থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

আক্রান্ত বিজেপি কর্মী।

আক্রান্ত বিজেপি কর্মী। — নিজস্ব চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
দুর্গাপুর শেষ আপডেট: ১৪ জুন ২০২৪ ১৮:৪৯
Share: Save:

বর্ধমান-দুর্গাপুরে বিজেপির দিলীপ ঘোষের হারের পর থেকে এলাকার বিজেপি কর্মীদের একাংশের মুখে তৃণমূলের অত্যাচারের অভিযোগ। এক বিজেপি কর্মীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে তৃণমূলের পার্টি অফিসে মারধর করার অভিযোগ দায়ের হয়েছে স্থানীয় নিউ টাউনশিপ থানায়। যদিও সমস্ত অভিযোগই অস্বীকার করেছে রাজ্যের শাসকদল।

বিজেপির অভিযোগ, বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রে দিলীপ পরাজিত হওয়ার পর থেকেই বিজেপি কর্মীদের তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে ডেকে পাঠানো হচ্ছে। না গেলে জোর করে তুলে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তার পর গালিগালাজের পাশাপাশি বিজেপি কর্মীদের মারধরও করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠছে। দুর্গাপুরের নিউ টাউনশিপ থানায় ভ্যাম্বে কলোনি এলাকার রঞ্জিত অধিকারী নামের এক সক্রিয় বিজেপি কর্মীকে ওই এলাকারই তৃণমূল কার্যালয়ে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠল অভিজিৎ ঘোষ এবং শতদল রায় নামে দুই তৃণমূল কর্মীর বিরুদ্ধে। তৃণমূলের বিরুদ্ধে দুর্গাপুরের নিউ টাউনশিপ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে বিজেপি। ভিত্তিহীন অভিযোগ বলে দাবি করে পাল্টা সরব হয়েছে তৃণমূলও।

আক্রান্ত বিজেপি কর্মী রঞ্জিত অধিকারী বলেন, ‘‘নির্বাচনের ফলপ্রকাশের পর থেকেই বাড়িতে এসে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। তৃণমূলের পার্টি অফিসে যাওয়ার জন্যেও বলা হত। আমি না যাওয়ায় বৃহস্পতিবার রাতে ঘাড়ধাক্কা দিয়ে তুলে নিয়ে যায় তৃণমূল আশ্রিত দুই দুষ্কৃতী অভিজিৎ আর শতদলের নেতৃত্বে বেশ কয়েক জন। দলীয় কার্যালয়ে নিয়ে গিয়ে বলা হয়, ‘এলাকায় থাকতে হলে তৃণমূলের ঝান্ডাই ধরতে হবে। না হলে এলাকা ছাড়তে হবে।’’’ সেখানে তাঁকে মারধরও করা হয় বলে অভিযোগ।

বর্ধমান-দুর্গাপুরে বিজেপির সাংগঠনিক জেলা সাধারণ সম্পাদক অভিজিৎ দত্ত বলেন, ‘‘দিকে দিকে আমাদের কর্মীরা ঘরছাড়া এবং আক্রান্ত। রঞ্জিতকেও মারধর করা হয়েছিল। পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।’’

বিষয়টিতে আমল দিতে রাজি নয় তৃণমূল। তাদের দাবি, হারের পর বিজেপি দিশেহারা হয়ে তৃণমূলকে কালিমালিপ্ত করার চেষ্টা করছে মিথ্যে রটিয়ে। পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূলের সহ-সভাপতি উত্তম মুখোপাধ্যায় বলছেন, ‘‘সবই বিজেপির নাটক। বাংলা থেকে বিদায়ের পথে, তাই কী করবে বুঝে পাচ্ছে না বিজেপি। তাই তৃণমূলের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করছে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

TMC police
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE