Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Bengal Polls: কুকুরের ‘কামড়’ গরুকে, বিবাদ তৃণমূল-বিজেপিতে

নিজস্ব সংবাদদাতা
জামুড়িয়া ০৫ এপ্রিল ২০২১ ০৭:৩৮
—প্রতীকী ছবি।

—প্রতীকী ছবি।

কুকুর কামড়েছে গরুকে! আর এমন ‘অভিযোগ’কে কেন্দ্র করেই তরজায় জড়ালেন স্থানীয় তৃণমূল ও বিজেপি কর্মীরা! রবিবার জামুড়িয়ার হিজলগড়া পঞ্চায়েতের পঞ্চায়েতপাড়ার ঘটনা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এলাকার বাসিন্দা তথা তৃণমূল কর্মী বরুণ বাউড়ি একটি পথ-কুকুরকে কিছু দিন ধরে বাড়িতে পুষছিলেন। সম্প্রতি সেটি অসুস্থ হয়ে যায় বলে অভিযোগ। এলাকাবাসীর একাংশের দাবি, ওই কুকুরটি পড়শিদের কয়েকটি হাঁস, মুরগি, গরুকে কামড়ায়। পাশাপাশি, এক শিশু-সহ তিন জনকেও কামড়েছে বলে অভিযোগ। বরুণবাবুর পড়শি, তথা এলাকার বিজেপি কর্মী সাধন গড়াইয়ের অভিযোগ, গত বৃহস্পতিবার ওই কুকুরটি তাঁদের বাড়ির দু’টি গরুকে কামড়ে দেয়।

বরুণবাবুর অভিযোগ, সাধনবাবু তাঁকে কুকুরটিকে অন্যত্র সরিয়ে নিতে বলেন। না হলে ‘রোষের’ শিকার হতে হবে, এই মর্মে হুমকি দেওয়া হয়। বরুণবাবুর অভিযোগ, ‘‘শনিবার রাত ৮টা নাগাদ সাধনবাবু ও তাঁর দুই ছেলে-সহ কয়েকজন বিজেপি সমর্থক আমাদের বাড়িতে ঢুকে আমাকে ও বাড়ির মহিলাদের মারধর করেন।’’ ঘটনার কথা জানাজানি হতেই এলাকায় জড়ো হন তৃণমূল ও বিজেপি কর্মীরা। রাত ৯টা নাগাদ বিরাট পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বরুণবাবুর অভিযোগ, “কুকুরটি গরুকে কামড়ে দেওয়ার পরে সাধনবাবু আমার কাছে ক্ষতিপূরণের দাবি করেন। তা না দিতে চাওয়াতেই এই হামলা।’’

Advertisement

এ দিকে, বিজেপি কর্মীরাও বরুণবাবুর বিরুদ্ধে পাল্টা হামলার অভিযোগ করেছেন। স্থানীয় বিজেপি কর্মী দেবী গড়াই জানান, তাঁদের দু’টি গরুকে বরুণবাবুর পোষা কুকুর কামড়ে দেয়। বরুণবাবুকে কুকুরটিকে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যেতে অথবা চিকিৎসা করাতে বলেছিলেন। বিজেপি কর্মী দেবীর অভিযোগ, ‘‘এর পরে শনিবার রাত ১০টা নাগাদ বরুণবাবু, বরুণবাবুর ভাই-সহ কয়েকজন আমাকে, আমার স্বামী ও ছেলেকে মারধর করেন। কেন্দ্রা ফাঁড়িতে অভিযোগ করেছি।’’ এ ছাড়া বিজেপি কর্মী সুজয় বাউড়ি জানান, তাঁর ছেলেকেও কুকুরে কামড়ে দিয়েছে। তাঁর অভিযোগ, ‘‘আমরা বিজেপি সমর্থক। তাই কুকুরটিকে অন্যত্র পাঠানোর ব্যবস্থা করছেন না বরুণবাবু।’’

বরুণবাবুর দাবি, কয়েকজন বিজেপি সমর্থক কুকুরটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে। পাশাপাশি, তাঁর অভিযোগ, ‘‘আমাদের মারধর করার জন্য আমার স্ত্রী পুলিশে অভিযোগ করেছেন সাধনবাবুদের বিরুদ্ধে।’’ সংশ্লিষ্ট সব পক্ষই তাঁদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

বিষয়টিকে একেবারেই পাড়াগত বিবাদ বলে দাবি করেছেন তৃণমূল ও বিজেপি নেতৃত্ব। তবে পুলিশ জানিয়েছে, দু’টি অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত চলছে। পাশাপাশি, কুকুরটির সন্ধান করা হচ্ছে। সেটিকে আদৌ পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়েছে কি না, তা-ও দেখা হচ্ছে।

আরও পড়ুন

Advertisement