Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

‘এক মুঠো ধান’, নিতে ফের রাজ্যে নড্ডা, কাটোয়ায় সভা, বর্ধমানে রোড শো

নিজস্ব সংবাদদাতা
বর্ধমান ০৮ জানুয়ারি ২০২১ ২১:৫০
নড্ডার সফর উপলক্ষে বর্ধমান শহরে তৈরি হয়েছে এমন একাধিক তোড়ন। —নিজস্ব চিত্র

নড্ডার সফর উপলক্ষে বর্ধমান শহরে তৈরি হয়েছে এমন একাধিক তোড়ন। —নিজস্ব চিত্র

আগের মতো মধ্যাহ্নভোজ রাজনীতি থাকছেই। সঙ্গে এ বার যোগ হচ্ছে ‘এক মুঠো ধান’। নতুন এই কর্মসূচি নিয়েই শনিবার ফের রাজ্য সফরে আসছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নড্ডা। পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়া এবং শহর বর্ধমানে একাধিক কর্মসূচি রয়েছে নড্ডার। ডায়মন্ড হারবারের ঘটনার কথা মাথায় রেখে অতিরিক্ত সতর্ক জেলার পুলিশ প্রশাসন। সাবধানী বিজেপি নেতৃত্বও। সর্বত্র কড়া নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পূর্ব বর্ধমানের পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায়। বর্ধমান শহরে রোড শো-এর দৈর্ঘও কমানো হয়েছে পুলিশের অনুমতি না মেলায়।

এ বারের সফরে নড্ডার নতুন কর্মসূচি শুরু হচ্ছে। নাম ‘এক মুঠো ধান’। কৃষকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে এক মুঠো ধান সংগ্রহ করবেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। শনিবার বেলা ১১টা নাগাদ দুর্গাপুরের অণ্ডাল বিমানবন্দরে নামবেন নড্ডা। সেখান থেকে হেলিকপ্টারে পৌঁছবেন কাটোয়ার জগদানন্দপুরে। এই গ্রামেই রয়েছে রাধাগোবিন্দ জিউ-এর মন্দির। মন্দিরে পুজো দেবেন তিনি। তার পরেই এই এক মুঠো ধান কর্মসূচি।

এর পর লাগোয়া গ্রাম মুস্থুলিতে দুপুর বেলা ১১টা ৫০ মিনিটে জনসভা। সেই জনসভা ঘিরে বিজেপির রাজনৈতিক প্রস্তুতি তুঙ্গে। পাশাপাশি সভায় কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সতর্ক রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। এই সভার পর মুস্থুলি গ্রামের কৃষক মথুরা মণ্ডলের বাড়িতে মধ্যাহ্নভোজ সারবেন নড্ডা।

Advertisement

বিকেলে ৩টে ১০ মিনিটে বর্ধমান শহরে রোড শো-তে যোগ দেওয়ার কথা নড্ডার। মধ্যাহ্নভোজের পর বর্ধমান শহরের উল্লাস উপনগরীতে অস্থায়ী হেলিপ্যাডে নামবেন তিনি। এর পর বীরহাটা থেকে কার্জন গেট পর্যন্ত পদযাত্রায় যোগ দেবেন। যদিও এই রোড শো-এর অনুমতি চাওয়া হয়েছিল বীরহাটা থেকে বিসি রোড পর্যন্ত। কিন্তু পুলিশ অনুমতি দেয়নি। ফলে সংক্ষিপ্ত হয়েছে পদযাত্রার রুট।

পদযাত্রার আগে অবশ্য বর্ধমানের সর্বমঙ্গলা মন্দিরে পুজো দেওয়ার একটি কর্মসূচির কথা জানানো হয়েছে বিজেপির পক্ষ থেকে। পুজো দেওয়ার সময় নির্ধারিত হয়েছে দুপুর ৩টে ৫ মিনিট। কিন্তু বহু প্রাচীন রীতি অনুযায়ী দুপুর একটা থেকে বিকেল চারটে পর্যন্ত মন্দিরের প্রবেশদ্বার খোলা থাকলেও মূল মন্দিরের দরজা বন্ধ থাকে। কর্তৃপক্ষের দাবি, ওই সময় সর্বমঙ্গলা দেবী ঘুমোন। ফলে পুজোর কর্মসূচি চূড়ান্ত নাও হতে পারে। সর্বমঙ্গলা মন্দির ট্রাষ্টি বোর্ডের সম্পাদক সঞ্জয় ঘোষ বলেন, এখনও পর্যন্ত তাঁর সঙ্গে এই বিষয়ে কেউ যোগাযোগ করেননি।’’

ডিসেম্বরের মাঝামাঝি রাজ্য সফরে এসে ডায়মন্ড হারবারের সভায় যাওয়ার পথে নড্ডার কনভয়ে হামলা হয়েছিল। তেমন কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এ বার চূড়ান্ত সতর্ক পূর্ব বর্ধমানের পুলিশ-প্রশাসন। পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, যেখানে যেখানে কর্মসূচি রয়েছে, সর্বত্র নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করা হয়েছে। বর্ধমান শহরে রোড শো-তেও থাকবে নিরাপত্তার কড়াকড়ি।

আরও পড়ুন: নড্ডার সফরের আগে কোভিড নিয়ে সতর্ক বিজেপি, জনে জনে টেস্ট

আরও পড়ুন: মমতা-বৈঠকের ৭২ ঘন্টার মধ্যে অমিত সকাশে ধনখড়, রাজ্য জুড়ে জল্পনা

আরও পড়ুন

Advertisement