Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

আইআইটি-র পড়ুয়াদের তৈরি স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবি সম্মানিত উৎসবে

সম্পূর্ণ মোবাইল ফোনে শুট করা এই স্বল্প দৈর্ঘ্যের সিনেমার গল্প এক যৌনকর্মীকে ঘিরে।

মধুমিতা দত্ত
কলকাতা ২৫ জানুয়ারি ২০২১ ০৫:০৮
পুরস্কারজয়ী স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবিটির পোস্টার।

পুরস্কারজয়ী স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবিটির পোস্টার।

জয়পুর আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা ‘মোবাইল শর্টফিল্ম’এর সম্মান পেল ‘পিছুটান’। এই ছবির পরিচালক থেকে অভিনেতা, অভিনেত্রী—সকলেই আইআইটি খড়্গপুরের গবেষক, পড়ুয়া।

সম্পূর্ণ মোবাইল ফোনে শুট করা এই স্বল্প দৈর্ঘ্যের সিনেমার গল্প এক যৌনকর্মীকে ঘিরে। তাঁর একদিনের গল্প বলা হয়েছে ওই ছবিতে। এই পেশায় থাকতে-থাকতে কোথায় এক মায়ার বাঁধনে জড়িয়ে পড়েছেন তিনি। ছবির পরিচালকশাওনকুমার বাগ, আইআইটি খড়্গপুরে পদার্থবিদ্যা নিয়ে গবেষণা করছেন| রবিবার জানালেন, প্রায় নিখরচায় তাঁরা এই ছবিটি বানিয়েছেন। একটি মাত্র মোবাইল ফোনের সাহায্যে বানানো হয়েছে স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবিটি। এরআগে ‘পিছুটান’ ২০২০ সালে টেগোর আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে পুরস্কার পেয়েছে। এর পরে জয়পুর আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে নির্বাচিত হয়। এবং সদ্য সেরার পুরস্কার লাভ করেছে। শাওন জানালেন, পৃথিবীর ৮৫টি দেশের প্রায় আড়াইহাজারের বেশি স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবির মধ্যে পিছুটান সেরার সম্মান পেয়েছে। শাওন ছবিটি পরিচালনার পাশাপাশি সম্পাদনারও দায়িত্বে ছিলেন। ছবির গল্প, চিত্রনাট্য, সিনেমাটোগ্রাফির দায়িত্বে ছিলেন আরও তিন গবেষক। পদার্থবিদ্যা বিভাগের গবেষক সায়ন দাশগুপ্ত, ভূতত্ত্ব ও ভূ-পদার্থবিদ্যা বিভাগের গবেষক জিৎ মজুমদার, রসায়ন বিভাগের গবেষক অভীক ভঞ্জ। সায়ন এবং অভীক অভিনয়ও করেছেন। ছবিটির মুখ্য চরিত্রে রয়েছেন অতনুকা পাল। অতনুকা আইআইটি খড়্গপুরের রসায়ন বিভাগের গবেষক।

শাওন জানালেন, ‘পিছুটান’ ছাড়াও তাঁদের তৈরি আরও একটি স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবি ‘অফসাইড’ এই উৎসবে প্রতিযোগিতা বিভাগে নির্বাচিত হয়। এক রূপান্তরকামীর জীবনের গল্প সেখানে তুলে ধরা হয়েছে। ‘অফসাইড’ ২০১৯ সালে কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবে প্রতিযোগিতামূলক বিভাগে নির্বাচিত হয়েছিল।

Advertisement

সেটির সব কলাকুশলী আইআইটি খড়্গপুরের গবেষক, পড়ুয়া। এই দু’টি ছবিরই সম্পূর্ণ শুটিং হয়েছে আইআইটি খড়গপুরের ক্যাম্পাসের চৌহদ্দির মধ্যে। শাওন বলেন, ‘‘ছবি তৈরির আমাদের প্রথাগত কোনও তালিম নেই। তাই পুরস্কার পেয়ে সত্যি ভাল লাগছে। ভবিষ্যতে পূর্ণদৈর্ঘ্যের ছবি বানানোর ইচ্ছা আমাদের রয়েছে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement