Advertisement
২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Domestic Flight Service

সোমবার থেকে দিল্লি, মুম্বইয়ের উড়ান নয় কলকাতায়

আগামী ৬-১৯ জুলাই দিল্লি, মুম্বই, চেন্নাই, আমদাবাদ, পুণে এবং নাগপুর থেকে উড়ান আসবে না কলকাতা বিমানবন্দরে।

সোমবার থেকে দেশের ছ’টি শহরের উড়ান আসবে না কলকাতা বিমানবন্দরে— ফাইল চিত্র।

সোমবার থেকে দেশের ছ’টি শহরের উড়ান আসবে না কলকাতা বিমানবন্দরে— ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৪ জুলাই ২০২০ ১৭:৫৭
Share: Save:

আগামী ৬ থেকে ১৯ জুলাই দিল্লি-সহ দেশের ছ’টি শহর থেকে উড়ান আসবে না কলকাতায়। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের উদ্যোগে সায় দিয়ে শনিবার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় বিমান পরিবহণ মন্ত্রক। কলকাতা বিমানবন্দরের তরফে এই সিদ্ধান্তের কথা এদিন বিকেলে ঘোষণা করা হয়েছে।

এয়ারপোর্ট অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (এএআই)-র এদিনের নির্দেশিকার কথা জানিয়ে কলকাতা বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের টুইট— ‘আগামী ৬-১৯ জুলাই দিল্লি, মুম্বই, চেন্নাই, আমদাবাদ, পুণে এবং নাগপুর থেকে উড়ান আসবে না কলকাতা বিমানবন্দরে। এই সময়সীমা বা পরবর্তী নির্দেশিকা না-আসা পর্যন্ত এই সিদ্ধান্তই বলবৎ থাকবে।’

দু’মাস বন্ধ থাকার পরে লকডাউন পর্বের মধ্যেই গত ২৫ মে থেকে ঘরোয়া উড়ানের নিয়ন্ত্রিত চলাচল শুরু হয়েছিল। কিন্তু রাজ্য সরকারের তরফে গোড়া থেকেই অত্যধিক মাত্রায় করোনা সংক্রমিত শহরগুলি থেকে কলকাতায় বিমান যাতায়াতে কিছু বিধিনিষেধ জারির পক্ষে সওয়াল করা হয়েছিল। বিমান পরিষবায় সতর্কতা এবং নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে কেন্দ্রীয় বিমান পরিবহণ মন্ত্রী হরদীপ সিংহ পুরীর কাছে প্রস্তাব দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন: কোন ধাপে রয়েছে করোনা টিকা, কী জানাচ্ছে ভারত বায়োটেক?

জুনের শেষ সপ্তাহে নবান্নে আয়োজিত সাংবাদিক বৈঠতে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে কলকাতা বিমানবন্দর থেকে মাসে দু’বার ঘরোয়া উড়ান চলাচল করা উচিত। বিদেশে আটক ভারতীয়দের ফেরানোর উদ্দেশ্যে চালু বন্দে ভারত মিশন উড়ান মাসে একবার কলকাতায় বিমানবন্দরে আনার বার্তাও কেন্দ্রকে দিয়েছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: বিস্ফোরণের আওয়াজ, তার পরেই আগুন, বেহালায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু মা-মেয়ের

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE