Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

স্পর্শ করতে পারবে না কেউ, মতুয়াদের মমতা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১০ জানুয়ারি ২০২০ ০১:৫৭
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।—ছবি পিটিআই।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।—ছবি পিটিআই।

কেন্দ্রীয় সরকার মতুয়াদের নতুন করে ‘বিদেশি’ বানানোর চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, ‘‘যে মতুয়ারা ৪০-৫০ বছর ধরে এখানে আছেন, তাঁরা এমনিতেই নাগরিক। নতুন আইনে তাঁদের নাগরিকত্বের পাশাপাশি অন্য অধিকারও কেড়ে নেওয়ার চক্রান্ত হচ্ছে। তা হতে দেব না।’’

নাগরিকত্ব নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই মতুয়াদের মধ্যে প্রচার করেছে বিজেপি। উত্তর ২৪ পরগনা ও নদিয়ার মতুয়া-প্রধান দু’টি লোকসভা আসনে তৃণমূলকে হারিয়ে জয়ও পেয়েছে তারা। নতুন নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে এ দিন মধ্যমগ্রাম থেকে বারাসত পর্যন্ত মিছিল করেন তৃণমূলনেত্রী। মিছিলের শুরুতে মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষের কথা মাথায় রেখেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘আপনারা, মতুয়ারা সকলেই এ দেশের নাগরিক। আপনাদের ৫ বছরের জন্য আবার বিদেশি বানিয়ে সব অধিকার কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা চলছে।’’ মুখ্যমন্ত্রী মতুয়াদের আশ্বস্ত করে বলেন, ‘‘আমরা থাকতে এ সব হবে না। শুরু থেকে আমরা এই আইনের প্রতিবাদে পথে নেমে আন্দোলন করছি।’’ মঞ্চে উপস্থিত দলের প্রাক্তন সাংসদ মমতা ঠাকুরের উদ্দেশে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘মতুয়াদের বড়মা বীণাপানি দেবীকে কে দেখেছেন? ৩০-৪০ বছর ধরে আমরাই তাঁর দেখাশোনা করেছি। এখন অনেকে (বিজেপি) যাতায়াত করলেও মতুয়াদের জন্য আমরাই কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় করেছি।’’

তৃণমূল সূত্রে খবর, হাতছাড়া বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এ দিন মতুয়া সম্প্রদায়ের বহু মানুষ মমতার মিছিলে যোগ দিয়েছেন। তাঁদের উদ্দেশে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘কোনও চিন্তা করবেন না। আপনারা শুধু ভোটার তালিকায় নিজেদের নাম বা অন্য কোনও তথ্য ভুল থাকলে তা ঠিক করে নিন। আমি থাকতে আপনাদের কেউ স্পর্শ করতে পারবে না।’’ এই প্রসঙ্গেই ঠাকুরনগর এবং লোকনাথের জন্মস্থান চাকলার মতো এই জেলার একাধিক ধর্মীয় স্থানে তিনি কী উন্নয়ন করেছেন, তা-ও মনে করিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement