Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

Bengal Bypoll 2021: দিনহাটার দ্বিতীয় যুদ্ধে অশোকের বিরুদ্ধে ইতিহাস বদলাতে চান উদয়ন, মরিয়া বিজেপি-ও

নিজস্ব সংবাদদাতা
কোচবিহার ০৭ অক্টোবর ২০২১ ১৯:৩৩
মনোনয়ন জমা দেওয়ার পথে উদয়ন গুহ।

মনোনয়ন জমা দেওয়ার পথে উদয়ন গুহ।
—নিজস্ব চিত্র।

উপনির্বাচনে দিনহাটা দখল পাখির চোখ তৃণমূলের। বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ওই কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী উদয়ন গুহ। মনোনয়ন জমা দেওয়ার দিনে উদয়নকে সঙ্গে নিয়ে রাস্তায় নেমেছেন কোচবিহারের একাধিক তৃণমূল নেতা। তৃণমূল শিবিরের এই ঐক্যের ছবি তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে। উদয়নের বিরুদ্ধে বিজেপি-র প্রার্থী অশোক মণ্ডল। ঘটচনাচক্রে একই বছরে দিনহাটায় এই নিয়ে দ্বিতীয় বার যুদ্ধে নামছেন উদয়ন। আবার অশোকের বিরুদ্ধে এটা তাঁর দ্বিতীয় নির্বাচনী যুদ্ধ।

দিনহাটা কেন্দ্রে বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমা দেন উদয়ন। তাঁর সঙ্গে দেখা গিয়েছে জোড়াফুল শিবিরের জেলার একাধিক নেতা এবং মন্ত্রীকে। উদয়নের সঙ্গে ছিলেন তৃণমূলের বর্তমান জেলা সভাপতি গিরীন্দ্রনাথ বর্মণ, তৃণমূলের রাজ্য সহ-সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ এবং শিক্ষা দফতরের প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারী। এ ছাড়াও ছিলেন তৃণমূলের দুই প্রাক্তন জেলা সভাপতি পার্থপ্রতিম রায় এবং বিনয়কৃষ্ণ বর্মণ। এই ছবি শেষ বার কবে দেখা গিয়েছে তা স্মরণে আনতে পারছেন না অনেকেই। কারণ এর আগে ২০১৬ সালে বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকে একের পর এক রাজনৈতিক হিংসার ঘটনা ঘটে কোচবিহারে। যার পিছনে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল রয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে বার বার। সেই পর্বের পর এমন ঐক্যের ছবি কোচবিহার জেলা তৃণমূলে শেষ বার কবে দেখা গিয়েছে তা স্মরণে আনতে পারছেন না অনেকেই। যা দেখে রাজনৈতিক মহলের ধারণা, গত বিধানসভা নির্বাচনে জয়ের সামান্য দূর থেকে ফিরে আসা দিনহাটা কেন্দ্র দখলে মরিয়া তৃণমূল। ওই কেন্দ্রে বিজেপি-র প্রার্থী হয়েছিলেন নিশীথ প্রামাণিক যিনি বর্তমানে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। যদিও তিনি বিধায়ক পদ ছেড়ে দেন। তার জেরেই ওই কেন্দ্রের উপনির্বাচন হতে চলেছে আগামী ৩০ অক্টোবর।

আরও একটি সমীকরণ রয়েছে দিনহাটা কেন্দ্রে। এ বার উদয়নের বিরুদ্ধে বিজেপি প্রার্থী করেছে অশোককে। এই সেই অশোক, যিনি তৃণমূলে থাকাকালীন ২০০৬ সালে ফরওয়ার্ড ব্লকে থাকা এই দিনহাটা কেন্দ্রেই উদয়নকে হারিয়েছিলেন। সেই সময় উত্তরবঙ্গের একমাত্র বিধায়ক ছিলেন অশোকই। তবে তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পর বিজেপি-তে যোগ দেন তিনি। আবার ২০১৫ সালে তৃণমূলে যোগ দেন উদয়নও। তৃণমূল এবং বিজেপি দুই প্রার্থীই শিবির বদলেছেন। ১৫ বছর বাদে ফের মুখোমুখি উদয়ন এবং অশোক। ফলে দু’জনের মধ্যে পুরনো রাজনৈতিক ‘শত্রুতা’ ফের চাগাড় দেবে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক মহলের একাংশ।

Advertisement

সেই সব সমীকরণ মাথায় রেখে দিয়েছেন উদয়ন। ইতিহাস তুলে ধরে তিনি বলছেন, ‘‘অশোক মণ্ডলের বাবা উমেশ মণ্ডল হারিয়েছিলেন কমল গুহকে। পরবর্তী কালে কমল গুহও অশোক মণ্ডলের বাবাকে হারিয়ে দেন। একই রকম ভাবে ১৫ বছর আগে ২০০৬ সালের নির্বাচনে হেরে গেলেও এই উপ নির্বাচনে বিপুল ভোটে জিতব।’’

উদয়নের প্রতিদ্বন্দ্বী অশোক আবার বলছেন, ‘‘২০০৬ সালে উদয়ন গুহকে হারিয়েছিলাম। ২০০৬ সালে দিনহাটার মানুষ দু’হাত তুলে আশীর্বাদ করেছিল। ১৫ বছর পর ফের সুযোগ পেয়েছি। গত বিধানসভা নির্বাচনেও দিনহাটার মানুষ দু’হাত তুলে আশীর্বাদ করেছিলেন। এ বারও তাঁরা তাই করবেন।’’ অবশ্য পরিসংখ্যান বলছে, উদয়নের বিরুদ্ধে নিশীথ দিনহাটার যুদ্ধে জেতেন মাত্র ৫৭ ভোটে।

আরও পড়ুন

Advertisement